মাদক ব্যবসায়ীদের আতঙ্ক এসআই মামুন

0
999

নূরনবী আহমেদ :
মরণ নেশা মাদকের নীল সোবলে জয়পুরহাটের আক্কেলপুর উপজেলার প্রাণ কেন্দ্র তিলকপুরের যুব সমাজ যখন বি-পথের দিকে ধাবিত হচ্ছে ঠিক সেই মূর্হুতেই মাদক নিমূর্ল, চুরি, ডাকাতি, ছিনতাইসহ সকল অপরাধীদের গ্রেফতারে আক্কেলপুর থানার এসআই ওবাইদুল্লাহ আল মামুন ব্যাপক প্রশংসনীয় উদ্যোগ গ্রহণ করেছেন। তিনি এ থানায় যোগদানের পর তিলকপুর এলাকায় আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখতে বলিষ্ঠ ভূমিকা পালন করে চলছেন। সেই সাথে তিনি চুরি, ডাকাতি, ছিনতাইসহ প্রায় দুই শতাধিক মাদকদ্রব্য বিক্রেতা ও সেবনকারীকে গ্রেফতার করে আইনের আওতায় এনেছেন। উদ্ধার করেছেন অজস্র মাদকদব্র। ফলে উচ্ছেদ হয়ে যায় মাদক স্পট। শুধু মাদকই নয় তিলকপুরের বিভিন্ন স্থানে তিন তাসের ম্যাধ্যমে যেসব জুয়া খেলা চলতো তাও এই প্রতিবাদী এসআই নিমূল করতে সক্ষম হয়েছে। যার ফলে স্থানীয় থানা পুলিশ বিভাগের প্রতি জনগনের স্বস্তি আস্থা ও বিশ্বাসের সৃষ্টি হয়েছে। ইতিপূর্বে অন্য কেউ এমন বিশ্বাস ও আস্থা অর্জন করতে সক্ষম হয়নি। তিলকপুর এলাকা কয়েক মাস আগেও মাদক ব্যবসায়ীদের স্বর্গ রাজ্যে পরিণত ছিল। কিন্তু বর্তমান কর্মরত এসআই মামুন এ থানায় যোগদান করারপর থেকেই তিলকপুরবাসী যেন এক নিরাপত্তার চাদরে বসবাস করছে।
এব্যাপারে এসআই মামুন জানান, মাদক মরণ নেশা একটি মারাত্বক ব্যাধি। যার রোষা নলে পড়ে যুব সমাজ আজ বিপদগামী। তাই যুব সমাজকে মাদক থেকে বাচাঁতে তিনি পুলিশ বিভাগে যোগদান করারপর থেকেই মাদক নিমূলের বিষয়ে কঠোর পদক্ষেপ গ্রহন করে আসছে। তিনি বাঁচতে চাইলে মাদক ছাড়ুন এই সেøাগানকে সামনে রেখে তিলকপুরকে মাদক মুক্ত রাখার প্রত্যয় নিয়ে কাজ করে যাচ্ছেন। এসআই মামুনের রয়েছে যেমন দক্ষতা, সাহসীকতা তেমনি রয়েছে সততা। পুলিশ ও জনগণ আরেক জনের বন্ধু এবং একে অপরের সম্পুরক। তাই উভয়েই মিলেই সচেতনতার সাথে সামাজিক ভাবে দায়িত্ব পালন করলে সমাজে অপরাধ নির্মূল সম্ভব। আইনের শাষন প্রতিষ্টায় সকলে মিলে একাত্বতা ঘোষনা করলে অবশ্যই সমাজে শান্তি ফিরে আসবে। অপরাধী যতই শক্তিশালী হোক পুলিশ সক্রিয় থাকলে একাগ্রতার সাথে নিষ্ঠার সাথে কাজ করলে অপরাধ নির্মূল সম্ভব। এসআই মামুনের ব্যাপারে আক্কেলপুর থানায় গভীর ভাবে খোঁজ নিয়ে জানাগেছে, তিনি মাদক ব্যবসায়ীদের বড় শত্রু এবং অপরাধীদের পিছনে কৌশল অবল্বন করে তাকে যেভাবেই হোক আইনের আওতায় এনেছেন। অথচ অনেক পুলিশ অফিসার এর সাথে দাগী অসামীদের দহরম মহরম সর্ম্পক। ফলে সমাজে আইন শৃঙ্খলার চরম অবনতি ঘটে। কিন্তু এসআই মামুনের কাছে তার সবই যেন উল্টো কেননা তিনি তার চাকুরী জীবনের শুরু থেকেই সততা ন্যায় নিষ্ঠার সাথে দায়িত্ব পালন করে আসছে। তার কাছে কোন অপরাধীই গুড সর্ম্পক করার সাহস পায়না। জেলার সদ্য যোগদানকারী পুলিশ সুপার ও মাদক নিমূর্লে এতটায় কঠোর যে, কোন অপরাধীই তার সাথেও কেউ গুড সম্পর্ক করার সুযোগ নেই। আর অত্র থানার ওসি সিরাজুল ইসলাম ও মাদক নিমূলের ব্যাপারে কঠোর ভূমিকায়। এদের নির্দেশনায় এসআই মামুন মাদক দ্রব্য উচ্ছেদের জন্য এতটায় তৎপর যে তার কাছে যে কোন ব্যক্তি মাদক বিক্রেতা ও সেবন কারীর তথ্য দিলেই সেখানে অভিযান চালান। যার কারণে তিলকপুরে এখন গ্রেফতার আতঙ্কে ভুগছে অপরাধীরা।
গত অক্টোম্বর মাসে তিলকপুর ইউনিয়ন কমিউনিটি পুলিশের উদ্দ্যেগে আক্কেলপুর থানা পুলিশ কতৃর্ক আয়োজিত অপরাধ দমন অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি আক্কেলপুর উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি মোকসেদ আলী মাষ্টার, বিশেষ, অতিথি তিলকপুর ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি গোলাম মোস্তফা, বষিয়ান নেতা আল হাজ্ব আজাদ, থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকতা মোঃ সিরাজুল ইসলামও কমিউনিটি পুলিশের তিলকপুর ইউনিয়ন সভাপতি ও জাসদ নেতা সাখাওয়াত হোসেন খায়ের, ৪ নং তিলকপুর ইউনিয়নের সফল চেয়ারম্যান সেলিম মাহবুব সজলসহ হাজার হাজার উপস্থিত জনতা মাদকমুক্ত তিলকপুর হওয়ায় এসআই মামুনের সাফল্যেতার ব্যাপক প্রশংসা করেন। আক্কেলপুর উপজেলাটি জয়পুরহাট-২ আসন। এই আসনের মাননীয় সংসদ সদস্য বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আবু সাইদ আল-মাহমুদ স্বপন। এই উপজেলায় আওয়ামীলীগ সরকার ক্ষমতায় আসার পর আইন শৃঙ্খলা সন্তোষ জনক পর্যায়ে রয়েছে। তবে বিশেষ অবদান হলো সংসদ সদস্য জনাব আবু সাইদ আল-মাহমুদ স্বপন নির্বাচিত হওয়ারপর জনগন অনেক উপকার পাচ্ছে বলে জানাযায়।

Print Friendly, PDF & Email

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here

ten − 9 =