বিজিবি’র বিরুদ্ধে বালিয়ামারী বর্ডার হাট ব্যবসায়ীদের অভিযোগ

0
491

রৌমারী(কুড়িগ্রাম):
বিজিবি কর্তৃক ব্যবসায়ীদের হয়রানি ও মালামাল আতœসাৎ করায় বিজিবির বিরুদ্ধে লিখিত অভিযোগ করেছেন বর্ডার হাটের ক্রেতা-বিক্রেতারা। গত বুধবার (১৮এপ্রিল) বর্ডার হাট ব্যবস্থাপনা কমিটির সভাপতি ও কুড়িগ্রাম জেলার অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেটের কাছে লিখিত অভিযোগটি করেন রাজিবপুরের বালিয়ামারী-কালাইয়ের চর বর্ডার হাট কমিটির সকল সদস্যরা।

অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, বুধবার (১৮এপ্রিল) বিভিন্ন ধরণের মালামাল ভর্তি ৩৫০টি বস্তা আটক করে বিজিবি’র জামালপুর ৩৫ ব্যাটালিয়নের বালিয়ামারী ফাঁড়ির কোম্পানী কমান্ডার সুবেদার মোর্শেদ আলী। বস্তাগুলোতে জিরা, তেঁতুল, আদা, আংগুরসহ বিভিন্ন ধরণের সামগ্রী ছিল। পরের দিন (১৯ এপ্রিল) আটককৃত মালগুলো ১লাখ ৯৬হাজার ২শ টাকায় নিলামে বিক্রয় করে বিজিবি। হাটে আসা মালামাল আটক করায় বিজিবির ওপর ক্ষুদ্ধ হয়ে বর্ডার হাটের ক্রেতা বিক্রেতারা। এ নিয়ে গতকাল বুধবার (২৫এপ্রিল) সকাল ১০টার দিকে ভুক্তভোগী ব্যবসায়ীরা ওই সীমান্ত হাটে না গিয়ে ধর্মঘট পালন করেন পাশাপাশি তারা জেলা ম্যাজিস্ট্রেটের কাছে গণহারে স্বাক্ষর করা একটি লিখিত অভিযোগ দেন। বিষয়টি নিয়ে বুধবার (২৫এপ্রিল) দু’দেশের মধ্যে উচ্চ পর্যায়ে একটি বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। এতে বাংলাদেশের পক্ষে কুড়িগ্রাম জেলার অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট রিংকু চাকমা ও ভারতের পক্ষে নেতৃত্ব দেন ব্লক ডেভেলপম্যান্ট ম্যাজিস্ট্রেট সিং ফিল।

ভারতের পক্ষে নেতৃত্ব দেওয়া সিং ফিল জানান, উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের নির্দেশে এখন থেকে সীমান্ত হাটে ভারতীয় জিরা বিক্রয় নিষিদ্ধ ওপর দিকে বাংলাদেশ থেকে প্লাস্টিক সামগ্রী ক্রয় নিষিদ্ধ বলেও জানান ওই ভারতীয় কর্মকর্তা।

জামালপুর ৩৫ব্যাটালিয়নের অধিনায়ক লে.কর্ণেল মহিউদ্দিন বলেন, হাটের আসা ক্রেতা বিক্রেতাদের মধ্যে অনিয়ম হওয়ায় মাঝমধ্যে এমন ঘটনা ঘটছে। তবে সরকারি নিয়মের বাইরে আমাদের করার কিছু নেই । ভারতের কর্মকর্তারা আমাদের জানিয়েছেন, তারা ভারতীয় জিরা দিবেন না এবং বাংলাদেশ থেকে কোনো প্লাস্টিক সামগ্রী নেবেন না।

Print Friendly, PDF & Email

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here

five + seventeen =