বিশ্ব মুসলিমকে আহ্বান জানিয়েছেন মসজিদের খতিব শায়েখ ইসমাইল নুওয়াহাজাহ

0
111

পবিত্র মসজিদ আল-আকসা ও ফিলিস্তিনিদের রক্ষার্থে খুব শিগগির বিশ্বব্যাপী আন্দোলন গড়ে তোলার জন্য বিশ্ব মুসলিমকে আহ্বান জানিয়েছেন মসজিদের খতিব শায়েখ ইসমাইল নুওয়াহাজাহ।

 

শুক্রবার ব্যাপক-বাধা নিরাপত্তা তল্লাশি সত্ত্বেও ৪০ হাজার মুসল্লি জুমা আদায় করতে আল-আকসায় উপস্থিত হয়েছিলেন। জুমায় আগত ৪০ হাজার মুসল্লির উদ্দেশে দেয়া খুতবায় তিনি এই আহ্বান জানান। খবর আনাদলু আরবির। জুমার খুতবায় শায়খ ইসমাইল বলেন, মুসলমানরাই আল-আকসার প্রকৃত মালিক। ইহুদিবাদীরা আল-আকসা ও জেরুজালেমে মুসলমানদের ওপর যে ঘৃণ্য হামলা অব্যাহত রেখেছে, এটা গোটা বিশ্বের মুসলিমদের ওপর হামলা ও নির্যাতনের শামিল। শান্তি ও শান্ত পরিস্থিতি ফিরে পেতে দ্রুত আল-আকসা রক্ষা আন্দোলন জোরদারের কোনো বিকল্প নেই। তিনি বলেন, দখলদাররা সব মাধ্যম এবং পদ্ধতি অবলম্বন করে জেরুজালেমকে মুসলিমশূন্য করার ষড়যন্ত্রে মেতেছে, মুসলমানদের জীবনকে সংকীর্ণ করে তুলেছে। জেরুজালেম ধর্ম মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তা ফারাস আদ-দুবস জানিয়েছেন, ইসরাইলি বাহিনীর বাধা ও ব্যাপক নিরাপত্তা তল্লাশি সত্ত্বেও এ সপ্তাহে ৪০ হাজার মুসল্লি জুমা আদায় করতে আল-আকসায় উপস্থিত হয়েছিলেন। মুসল্লিদের ভিড়ে মসজিদ এলাকার বাইরেও শত শত মানুষ নামাজ আদায় করেছেন। শুক্রবার ভোর থেকে ইসরাইলি পুলিশ আকসা প্রাঙ্গণে তল্লাশি বাড়িয়ে দেয়। গত মাসে ১৬ বছর পর ইসরাইলি নিষেধাজ্ঞা ভেঙে পবিত্র আল আকসা মসজিদের বাব আল-রহমায় নামাজ আদায় করেছেন মুসল্লিরা। ২০০৩ সালের পর এই প্রথম ইসরাইলি নিষেধাজ্ঞা ভেঙে তারা আল আকসার এ অংশে প্রবেশ করেন। এর জেরে জেরুজালেমের ওয়াকফ কাউন্সিলের পরিচালক শেখ আবদুল আজিম সালহাবকে গ্রেফতার করেছে ইসরাইল পুলিশ। এমন উত্তেজনার মধ্যে এ সপ্তাহের জুমায় বিশ্বের প্রতিটি মসজিদের খতিবদের পবিত্র মসজিদ আল-আকসা ও ফিলিস্তিন সম্পর্কে খুতবা প্রদানের আহ্বান জানিয়েছিল আন্তর্জাতিক মুসলিম স্কলার্সদের ঐক্যবদ্ধ সংগঠন আল-ইত্তিহাদুল আলামিয়্যু লি-উলামায়িল মুসলিমিন (ওয়ার্ল্ড ইউনিয়ন অব মুসলিম স্কলার্স)। এদিকে গত ৪ মার্চ জেরুজালেমে ফিলিস্তিনিদের জন্য ব্যবহৃত মার্কিন দূতাবাস বন্ধ করে তা ইসরাইলি মিশনের সঙ্গে একীভূত করেছে যুক্তরাষ্ট্র। তাছাড়া আল আকসা মসজিদের বাবে রহমত ফটক নিয়েও সংঘর্ষ চলছে দু’সপ্তাহ পর্যন্ত। ১ মার্চ দখলদার ইসরাইল জেরুজালেম নগরীতে মুসলমানদের ওপর ধারাবাহিক যে নিপীড়নমূলক নির্যাতন চালাচ্ছে বলে মিসরের আল-আজহার ইউনিভার্সিটির পক্ষ থেকেও ফিলিস্তিনিদের সঙ্গে সংহতি প্রকাশ করে এর কঠোর নিন্দা জানানো হয়।

Print Friendly, PDF & Email

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here

17 − thirteen =