নেওয়া যাক একটু বেড়াল বিরিয়ানির মজা

0
985

খাসি মুরগির বিরিয়ানি তো সকলেই অনেক খেয়েছেন। আসুন এবার নেওয়া যাক একটু বেড়াল বিরিয়ানির মজা। আজ্ঞে হ্যাঁ! খাসি মুরগির নাম করে এতদিন কাস্টমারদের খাওয়ানো হচ্ছিল বেড়ালের বিরিয়ানি।

 

কম দাম ও টেস্টের জন্য দোকানে ব্যাবসাও চলছিল রমরমা। চেন্নাইতে পর পর সাত দিন পুলিশি অভিযানে বিরিয়ানির দোকান থেকে উদ্ধার করা হয় ১২ টি বেড়াল। চেন্নাই শহরের বেশ কিছু জায়গা যেমন পাল্লাভারাম, আবাদি, পুম্পেজিল, কান্নিকাপুরাম এবং আরো কিছু জায়গাতে চালানো হয় লাগাতার তল্লাশি অভিযান। এই অভিযান চালানোর পরে উদ্ধার করা হয় ১২টি বেড়ালের মৃতদেহ। এই এলাকাগুলি সব অদিবাসি অধ্যুষিত। সেখানে এই ঘটনাটি বহুবার ঘটেছে। প্রথমবার বেড়ালের রহস্যময় ভাবে উধাও হয়ে যাওয়ার ব্যাপারটা ভালো চোখে দেখেনা স্থানিয় বাসিন্দারা। একজন বাসিন্দা অভিযোগ করে যে বিগত কয়েকদিন ধরে উধাও হয়ে যাচ্ছে তার প্রতিবেশির বেড়াল। এসব শুরু হয় বালাজিনগরের এলাকা থেকে। ক্রমে ক্রমে এই বেড়াল উধাও হওয়ার ঘটনাটি বাড়তে থাকে। ফলে তদন্তে নামে পুলিশ। নেমে তারা জানতে পারে যে বেড়াল চুরি করছে অদিবাসিদের একাংশ। বেশ কয়েকজনকে হেপাজতে নিয়ে জেরা করে পুলিশ। জেরা করাতে জানা যায় বেড়াল গুলিকে তারাই চুরি করেছে। চুরি করা বেড়াল গুলো কোথায় বিক্রি করা হচ্ছে এই ব্যাপারটা জানতে চাওয়াতে তাদের মধ্যে একজন নাম নেয় বিরিয়ানির বেশ কিছু দোকানের। এই অভিযোগে গেফতার করা হয় বেশ কয়েকজন অদিবাসিকে। ছোট থেকেই আমরা শুনে এসেছি। “আপ রুচি খানা, পর রুচি পরনা।” কিন্তু আপ রুচির সাথে সাথে সংস্কৃতি, খাদ্যাভ্যাসটার ব্যাপারেও আমাদের খেয়াল রাখা উচিত। না হলে আমাদের আর পশুদের মধ্যে পার্থক্য কি রইল। বিদেশে এমন কিছু খাওয়ার আছে যা আমাদের দেশের লোকেদের কাছে হয়তো দুস্বপ্নেরও অধম। বিভিন্ন এলাকাভেদে রয়েছে বিভিন্ন রকমের খাদ্যভ্যাস। তারই কয়েকটি সম্পর্কে নীচে আলোচনা করা হল।

Print Friendly, PDF & Email

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here

five × one =