স্বাধীনতার ৪৮ বছর অপেক্ষায় ছিলাম বঙ্গবন্ধুর পর শেখ হাসিনার মত দূরদর্শী প্রধানমন্ত্রীর

2
192

এজাজ রহমান, সাংবাদিক ও সংগঠকঃ
আমি আদর্শবাদীদের আদর্শে বিশ্বাসী। সেই লক্ষ্যে এই জীবনে কোন আদর্র্শ প্রধানমন্ত্রী পাই নাই, এই জন্য ভোট দিয়ে ছিলাম জাতীয়তাবাদী, গণতান্ত্রীক, সমাজতান্ত্রীক ও ধর্মনিরপেক্ষ অসাম্প্রদায়ীক মুক্তিযুদ্বের স্বাধীনতার স্বপক্ষের গনপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারকে। নির্বাচন ২০১৯ জয়ে, সত্যের জয় অনিবার্য। বঙ্গবন্ধুর সুযোগ্য কন্যার কন্ঠে শুনতে চাই এবারের সংগ্রাম উন্নয়নের সংগ্রাম। সমগ্র বাংলাদেশে উন্নয়নের ধারাবাহিকতা অব্যহতর লক্ষ্যে জাতীয় ঐক্যের প্রয়োজন বলে আমি মনে করি। মুক্তিযুদ্ধ ও স্বাধীনতার স্বপক্ষের গনমাধ্যমকর্মী হিসাবে শিল্প, সাহিত্য ও সাংস্কৃতিক এবং শিল্প, ব্যবসা বাণিজ্যের উন্নয়নের উপর লেখা লেখি করে আসছি প্রায় ৩০ বছর, এখানো সংগ্রাম করে আসছি। নারী ও শিশু নির্যাতন, সাংবাদিক নির্যাতন, দূর্নীতি, সন্ত্রাস, মাদক ও জঙ্গী প্ররিরোধে সংবাদ সম্মেলন, র‌্যালি, মানববন্ধন করে আসছি, মানবধিকার কর্মী হিসেবে প্রেস ক্লাব, রিপোটার্স ইউনিটি ইত্যাদি। যতদিন বেঁচে থাকবো ততদিন আপনার মত দূরদর্শী প্রধানমন্ত্রীর আদর্শে মেধা, দক্ষতা, প্রজ্ঞা ও দূরদর্শীতা, মুক্তিযুদ্ধ ও স্বাধীনতার চেতনাকে সুপ্রতিষ্ঠিত করার লক্ষ্যে জীবন বাজি রেখে বলিষ্ঠ নেতৃত্বে উপস্থাপন করেছেন বিশে^র কাছে আইডল হিসাবে। মধ্যম আয়ের স্বল্পন্নোত দেশ থেকে উন্নয়নশীল রাষ্ট্রের জাতিসংঘ ঘোষিত এসডিজি ও এমডিজি উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রায়, শিক্ষা, চিকিৎসা, বিনিয়োগ, যোগাযোগ ব্যবস্থা থেকে শুরু করে জীবন মানের প্রতিটি ক্ষেত্রে বিস্বয়ংকর সাফল্যে বাংলাদেশ এখন বিশে^র রোল মডেল। একাদ্বশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের মাধ্যমে হ্যাটট্রিক জয়ের রেকর্ড করে গণতন্ত্রের মানসকন্যা ও মাদার অব হিউমিনিটি বঙ্গবন্ধুর সুযোগ্য কন্যা শেখ হাসিনা ৪র্থ বার প্রধানমন্ত্রীর দায়িত্ব নেয়ায় আপনাকে অভিবাদন। বঙ্গবন্ধুর মত আমারও স্বপ্ন ছিল আত্বনির্ভরশীল, স্বনির্ভর, খাদ্য স্বয়ংসম্পূর্ণ, সুখী সমৃদ্ধ স্বপ্নের সোনার বাংলাদেশ দেখার। আমিও আপনার মত এতিম সন্তান, আমার আর চাওয়া পাওয়ার কিছুই নেই। শুধু একটাই চাওয়া ঐতিহাসিক ৭ই মার্চের ভাষনকে ইউনিস্কো স্বীকৃতি দেওয়ায় আপনার কাছে আমার প্রস্তাব বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট উৎক্ষেপনের সফলতায় সেভেন মার্চ টিভি বিশ্বের দরবারে উপস্থাপন করা এবং বিশে^র কাছে আদর্শবান ভবিষ্যৎ প্রজন্মের জন্য বঙ্গবন্ধু আদর্শ প্রজন্ম সংসদ সমগ্র বাংলাদেশে ছড়িয়ে দেয়ার লক্ষ্যে স্বাধীনাতা, মানবতা বিরোধী যুদ্ধাপরাধীদের বিশেষ ট্রাইবুনালের সুসম্পূর্ণ করেছেন বিচারের মাধ্যমে আইনের সুসাশন প্রতিষ্ঠা। ১৫ই আগষ্টের ১৯৭৫ বঙ্গবন্ধুর স্বপরিবার হত্যার বিচার কার্যকর, ২১ শে গ্রেনেড হামলার বিচার, জাতীয় ৪ নেতার বিচার এখনও চলমান। উক্ত বিচার কার্যকর না হলে এদেশের সাধারণ মানুষের বাঁচার অধিকার হারিয়ে যেতো। বিনিময়ে পেয়েছি বঙ্গবন্ধু ঐতিহাসিক ভাষন ইউনিস্কোর স্বীকৃতি, শেখ হাসিনার মাদার অব হিউমিনিট, আন্তর্জাতিক মাতৃ ভাষার স্বীকৃতি, ২৫শে মার্চ ১৯৭১ গণহত্যার আন্তর্জাতির প্রাপ্তি ছিল, বিশ্বের সর্ববৃহৎ ১৫ই আগষ্টের মানবধীকার লঙ্গন দিবস হিসেবে জাতিসংঘের স্বীকৃতি চাই।
বিস্তারিত তথ্যের জন্য: ০১৯৫৭-৯৮৩৬০৬

Print Friendly, PDF & Email

2 মন্তব্য

  1. স্বাধীনতার ৪৮ বছর অপেক্ষায় ছিলাম বঙ্গবন্ধুর পর শেখ হাসিনার মত দূরদর্শী প্রধানমন্ত্রীর

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here

two × five =