জনগনকে চিকিৎসা বঞ্চিত রেখে রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর বিদেশে চিকিৎসা গ্রহণের প্রতিবাদে মুখে কালো কাপড় বেঁধে মানববন্ধন

1
441

অবি ডেস্ক: আজ ১১ মে ২০১৯ শনিবার বিকাল ৩.৩০ টায় নাগরিক পরিষদ এর উদ্যোগে জনগনকে চিকিৎসা বঞ্চিত রেখে রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর বিদেশে চিকিৎসা গ্রহণের প্রতিবাদে মুখে কালো কাপড় বেঁধে মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়।
মানববন্ধনে সভাপতির বক্তব্যে নাগরিক পরিষদের আহ্বায়ক মোহাম্মদ শামসুদ্দীন বলেন, “জনগণকে চিকিৎসা বঞ্চিত রেখে বিদেশে চিকিৎসা গ্রহণকারী জননেত্রী, জননেতা, দেশনেত্রী, দেশনেতা হতে পারে না। একজন প্রধানমন্ত্রীর ২ চোখের চিকিৎসা লন্ডনে হলে ১৮ কোটি নাগরিকের ৩৬ কোটি চোখের চিকিৎসা কোথায় হবে? রাষ্ট্রপতি, প্রধানমন্ত্রী, মন্ত্রী, এমপি ও শীর্ষ আমলারা বিদেশে চিকিৎসা গ্রহণের জন্য যাওয়ার মধ্য দিয়ে প্রমাণ হয়, দেশে চিকিৎসা ব্যবস্থায় চরম বেহাল ও নৈরাজ্যকর অবস্থা বিরাজ করছে।

দেশে হাসপাতালগুলোতে চিকিৎসার নামে চলছে ভোগান্তি। এ ভোগান্তির অবসানকল্পে বর্তমান ও বিগত সরকারগুলো কোন ব্যবস্থাই নেয়নি। ক্ষমতাসীন ও ক্ষমতাবানরা এদেশে কামায় বিদেশে জমায়। সংবিধানের সাথে সাংঘর্ষিক ও রাত্রীকালীন সরকার জনগণের উপর নির্ভর না করে বিদেশী প্রভুদের উপর নির্ভর হয়ে পড়েছে। তাই জনগণের মৌলিক অধিকার নিশ্চিত করার নৈতিক দায়বদ্ধতা হারিয়ে ফেলেছে। তাই এদেশে চিকিৎসাক্ষেত্রে নৈরাজ্য অপ্রতিরোধ্য অবস্থায় পৌঁছেছে। জনগণ অসহায়। রাষ্ট্রীয় সফরের নামে ব্রিটেনে গিয়ে সেদেশের সরকার কিংবা রাষ্ট্রপ্রধান অথবা রাণীর সাথে বৈঠক না করে চোখের চিকিৎসা এবং দলীয় কর্মকান্ডে অংশগ্রহণ খুবই ন্যাক্কারজনক। জনগণের অর্থের অপব্যয়। আমরা এর তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাই।”
মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন, দুর্নীতি প্রতিরোধ আন্দোলনের আহ্বায়ক মোঃ হারুন অর রশিদ খান, ইসলামী ঐক্যজোটের সি: যুগ্ম মহাসচিব শওকত আমীন, ডেমোক্রেটিক লীগের সভাপতি সাইফুউদ্দিন আহমেদ মনি, গণঐক্যের আহ্বায়ক আরমান হোসেন পলাশ, বাংলাদেশ গণতান্ত্রিক জোটের চেয়ারম্যান মোঃ খাইরুল ইসলাম দেওয়ান, কর্মসংস্থান পার্টির সভাপতি দেলোয়ার হোসাইন প্রমুখ।

Print Friendly, PDF & Email

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here

five × four =