কর্মীদের কাজের পারিশ্রমিক নিয়ে দৃষ্টান্তমূলক রায়

3
120

কর্মীদের কাজের পারিশ্রমিক নিয়ে দৃষ্টান্তমূলক রায় দিল উচ্চ আদালত। স্থায়ী বা অস্থায়ী কর্মীদের পারিশ্রমিকের বিভেদ রাখা যাবে না বলে রায়ে জানাল দেশের সর্বোচ্চ আদালত। সুপ্রিম কোর্ট জানিয়েছে, স্থায়ী ও অস্থায়ী কর্মীদের একই কাজের জন্য সমান পারিশ্রমিক দিতে হবে।

 

বিচারপতি জে এস কেহর এবং এস এ বোবদের বেঞ্চ সমান কাজের জন্য সমান পারিশ্রমিকের কথা স্পষ্ট ভাবে জানিয়ে স্থায়ী ও অস্থায়ী কর্মীদের মধ্যে পারিশ্রমিকের বৈষম্য দূর করার কথা বলেছেন। শুধু তাই নয়, অস্থায়ী কর্মীরা কেন কম পারিশ্রমিকে কাজ করতে রাজি হন, সে ব্যাপারেও আলোকপাত করেছে সুপ্রিম কোর্টের এই বেঞ্চ। এই রায়ে বলা হয়েছে, একই কাজে নিযুক্ত দুজনের মধ্যে একজন অপরজনের তুলনায় কম পারিশ্রমিক পাবেন, এটা ঠিক নয়। কারণ, তারা একই কর্তব্য ও দায়িত্ববোধ নিয়ে কাজ করেন। একটি কল্যাণকর রাষ্ট্রের পক্ষে এই বৈষম্য অন্য মানে তৈরি করে। পাশাপাশি, মানুষের মর্যাদাও ক্ষুণ্ন করে। কেন অস্থায়ী কর্মীরা এই কম পারিশ্রমিক মেনে নিতে বাধ্য হন, তার ব্যাখ্যায় বিচারপতি জে এস কেহর এবং এস এ বোবদের বেঞ্চ জানিয়েছে, কেউ কম পারিশ্রমিকে কাজ করতে বাধ্য হচ্ছেন মানে, তিনি স্বেচ্ছাশ্রম দিতে রাজি এমনটা ভাবার কোনও কারণ নেই। তাঁর উপর নির্ভরশীল পরিবারের কথা ভেবে তিনি কাজ করতে রাজি হন। পরিবারের খাদ্য ও বাসস্থানের উপযুক্ত সংস্থানের জন্য তিনি আত্মসম্মান ও মর্যাদার সঙ্গেও সমঝোতা করেন। নিজের মূল্যায়ণ করার কথাও অনেক সময় ভাবেন না। কারণ তিনি জনেন, কাজ না করলে, তার উপর নির্ভরশীল পরিবারের লোকজন মারাত্মকভাবে সমস্যায় পড়বে। উচ্চ আদালতের এই রায়ে বদল আনতে পারে বেতন কাঠামোয় ৷ বেতন বৈষম্য দূর করার স্বপক্ষে সুপ্রিম কোর্টের এই রায় স্বস্তি দিয়েছে অস্থায়ী কর্মীদের ৷

Print Friendly, PDF & Email

3 মন্তব্য

  1. বিচারপতি জে এস কেহর এবং এস এ বোবদের বেঞ্চ সমান কাজের জন্য সমান পারিশ্রমিকের কথা স্পষ্ট ভাবে জানিয়ে স্থায়ী ও অস্থায়ী কর্মীদের মধ্যে পারিশ্রমিকের বৈষম্য দূর করার কথা বলেছেন, ধন্যবাদ।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here

20 − one =