কামরাঙ্গীর চরে ভেজাল জুস কারখানা সিলগালা

1
999

নোংরা স্যাঁতস্যাঁতে পরিবেশে তৈরি হয় ফলের জুস। আরো তৈরি হয় জিরাপানি, স্পীড এনার্জি ড্রিংক, দুধ, চাটনীসহ অনেক খাদ্যপণ্য। শিশুদের প্রিয় এসব খাবার তৈরিতে ব্যবহার করা হয় কাপড়ে ব্যবহার করা রঙ, সাইট্রিক এসিড ও সোডা!

 

গতকাল মঙ্গলবার সন্ধ্যায় ঢাকা মহানগর পুলিশের (ডিএমপি) ভ্রাম্যমাণ আদালত রাজধানীর কামরাঙ্গীর চর থানার আশরাফাবাদ এলাকার মজিবর ঘাটের পশ্চিম মমিনবাগের ২ নাম্বার গলির একটি বাড়িতে অভিযান চালিয়ে এমনই দৃশ্য দেখতে পান। ‘শাহজালাল ফুড প্রোডাক্টস’ নামে কারখানাটিতে ভেজাল ও নকল জুস, দুধ ও অন্যান্য পানীয় তৈরি করা হচ্ছিল। আদালত ওই কারখানাটিকে সিলগালা করেছেন। ধ্বংস করা হয়েছে বিপুল পরিমাণ ভেজাল শিশু খাদ্য। ডিএমপির ম্যাজিস্ট্রেট আব্দুল্লাহ আল মামুনের নেতৃত্বে গোয়েন্দা পুলিশের (ডিবি) একটি দল এই অভিযান চালায়। ঢাকা মহানগর পুলিশের উপ-কমিশনার (মিডিয়া) মাসুদুর রহমান জানান, কামরাঙ্গীর চর থানার আশ্রাফাবাদ এলাকার মজিবর ঘাটের পশ্চিম মমিনবাগের ২ নাম্বার গলির তিনতলা বিশিষ্ট শাহজালাল ফুড প্রোডাক্টস নামে কারখানাটিতে ভেজাল ও নকল জুস ও অন্যান্য পানীয় তৈরি করা হচ্ছিল। কোমলমতি শিশুদের জন্য আকর্ষণীয় মোড়কে বালিশ জুস, জিরাপানি, স্পীড, দুধ, ড্রিংকস, চাটনী প্রভৃতি পণ্য তৈরি করে বাজারজাত করা হতো। নোংরা পরিবেশে বিভিন্ন ক্ষতিকারক কেমিক্যাল যেমন- কাপড়ের রঙ, সাইট্রিক এসিড ও সোডা ব্যবহার করা হচ্ছিল। নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট কারখানাটি সিলগালা করে মালিকের বিরুদ্ধে একটি নিয়মিত মামলা করার নির্দেশ দেন।

Print Friendly, PDF & Email

1 মন্তব্য

  1. নোংরা স্যাঁতস্যাঁতে পরিবেশে তৈরি হয় ফলের জুস। আরো তৈরি হয় জিরাপানি, স্পীড এনার্জি ড্রিংক, দুধ, চাটনীসহ অনেক খাদ্যপণ্য। শিশুদের প্রিয় এসব খাবার তৈরিতে ব্যবহার করা হয় কাপড়ে ব্যবহার করা রঙ, সাইট্রিক এসিড ও সোডা!

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here

15 + 8 =