রৌমারীতে দিগন্ত জুড়ে সরিষার বাম্পার ফলন হওয়ায় কৃষকের মুখে হাসি

0
137

মাজহারুল ইসলাম,রৌমারী (কুড়িগ্রাম) প্রতিনিধিঃ রৌমারীতে দিগন্ত মাঠজুড়ে সরিষা ক্ষেত। যতদুর চোখ যায় হলুদ গাদা ফুলের ন্যায় সুসাজে সজ্জিত ফসলের মাঠ।কৃষক অক্লান্ত পরিশ্রম করে মাথার ঘাম পায়ে ফেলে মাটি চষে ফসল ফলায়। কৃষক চাষ শেষে আশায় বুক বেধে চেয়ে থাকে মাঠের পানে । রৌমারী উপজেলা কৃষিসম্প্রসারণ অধিদপ্তর সুত্রে জানাযায়, এবছর রৌমারতে সারে ৫ হাজার ৪৮হেক্টর লক্ষ্যমাত্রা ছিল। তার মধ্যে অর্জিত হয়েছে ৪ হাজার ২শ হেক্টর জমিতে সরিষা চাষ করা হয়েছে। সরিষা চাষের পর দেশের বিভিন্ন অঞ্চলে বৃষ্টি হলেও রৌমারীতে বৃষ্টি হয়নি।

যেকারনে এখন পর্যন্ত ফসলের কোন ক্ষতি সাধিত হয়নি। তবে আবহাওয়া অনুকুলে ও প্রাকৃতিক দুর্য়োগ না হলে সরিষার ব্যাপক ফলনের আশা করা হচ্ছে । বন্যায় খেয়ে-গেছে রোপা আমন,খোয়া গেছে হালের বলদ, বউয়ের গহনা,সুদ-খোর মহাজনের কাছে নেয়া সুদের টাকা। ঘরে উঠেনি এক মুঠ-ধান। তাতেও ওরা থেমে নেই। বানের পানি শুকিয়ে যাওয়ার সাথে সাথে রবিশস্য, সরিষা, গম, ভুট্রামসহ নানা ফসল চাষে ব্যাস্ত কৃষক। রৌমারীতে এবার রোপা আমন নষ্ট হওয়ায় রেকর্ড পরিমান সরিষা চাষ করা হয়েছে।

সরেজমিন অনুসন্ধাধানে জানাগেছে, । উপজেলার যাদুরচর ইউনিয়নের আলগারচর গ্রামের সরিষা চাষি ভারী কৃষক সাখাওয়ত হোসেন ছক্কু জানান আমরা প্রতিবছর ১২ থেকে ১৫ বিঘা জমিতে সরিষা চাষ করি তারমধ্যে এবছর অন্যান্য বছরের তুলনায় এবার ফলন ভালো। পাশাপাশি একই গ্রামের কৃষক রবিউল ইসলাম বলেন আমি তিন বিঘা জমিতে সরিষা চাষ করেছি বন্যা বেশি হওয়ার কারনে অনেক বাম্পার ফলন হয়েছে। মুক্তিযোদ্ধা আজিম উদ্দিন একইভাবে জানান। 

 দীর্ঘ সময় জমিতে পানি থাকায় পঁচা আর্বজনা ও মাটি পচে যাওয়ায় মাটির উর্ব্বর শক্তি বৃদ্ধি পেয়েছে যারফলে সরিষা গাছ সবল শক্তিশালী হয়েছে। ফলে গাছে ব্যাপক ডালপালা হয়েছে। এতে ফসলের বাম্পার ফলনের আশা করছে কৃষক।

এবিষয় উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা দ্বিপুরায় জানান, এবার চলতি সরিষা মৌসমে রৌমারীতে ৪২শ হেক্টর জমিতে সরিষার বাম্পার ফলন পাবে খেটে খাওায়া কৃষকরা। তিনি আরও বলেন সরিষার ক্ষেতে কোনপ্রকার রোগবালা না থাকায় ফলন ভাল আবস্থানেমাজহারুল

Print Friendly, PDF & Email

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here

two + 10 =