হে আল্লাহ আমাদেরকে বাঁচাও

0
257

আমর’া চৈনিক সেনাবাহিনীর যৌ’’নসম্ভোগের খুব প্রিয় বস্তু ছিলাম। অ’মানবিকভাবে আমা’দের সঙ্গে তারা যৌ’’ন সুখ লাভ করতো। অনুনয় বিনয় করলে তারা তো আমা’দের ছাড়তোই না; বরং লাগাগার আমর’া গণধ’র্ষণের শিকার ‘হতাম।হে আল্লাহ আমা’দেরকে – লবাহার জলিল একজন উ’ইঘুর মুসলিম নারী। প্রায় দুই বছর সাম্রাজ্যবাদী চী’নের কারা’গারে অমানবিক নি’র্যাতনের শিকার হয়েছেন।

মুক্তি পাওয়ার পর গত স’প্ত াহের শুরুতে এবং চলতি স’প্ত াহে আল জাজিরা আরবির মুখোমুখি হয়েছিলেন তিনি। পৃথক দুটি ভিডিও সাক্ষাৎকারে বর্ণনা করেছেন সেখানে মুসলিম ব’ন্দী নারীদের সঙ্গে কি আচরণ করছে চাইনিজ সেনাবাহিনী। ভিডিওর চুম্বকাংশ আরবি থেকে ভাষান্তর করেছেন আওয়ার ইসলাম কন্ট্রিবিউটর বেলায়েত হুসাইন।

দৃশ্যটা যে কত হৃদয়বিদারক, এটা যে দেখেছে সেই অনুভব করতে পারে, বর্ণনা করা তার পক্ষে সম্ভব নয়, আহ! ‘মা কা’রাগারে আর দুধের শিশু ক্ষুদার য’ন্ত্রণায় বাইরে ছটফট করছে’।ঋতুস্রাব বন্ধ করার জন্য নারীদের জোর করে মা’দক সেবন করানো ‘হতো। একই কাজ করতো মুসলিম নারীদের স্মৃ’তিশক্তি বিলু’প্ত করার জন্যও। তারপর পশুর মতো যৌ’’ন হে’নস্তা করা ‘হতো যুবতীদের সঙ্গে।

কারা’গারে একটি অত্যন্ত দুঃখজনক ব্যাপার ছিল। আমা’দের সঙ্গে নারী পুলিশদের আচর ; পুরুষদের নির্দেশ মতো তারা আমা’দের একত্র করে সকলের ব’স্ত্রহরণ করতো এবং এই অবস্থাই আমা’দের ওঠবস করতে বাধ্য করা ‘হতো। চীন সরকার এবং কমিউনিস্টদের প্রতি আমা’দের কোন অ’ভিযোগ নেই-এই কথার

ওপর আমা’দেরকে জোরজবরদ’স্তি করে সাক্ষর করানো ‘হতো।উ’ইঘুর মুসলিম নারীদের ওপর চৈনিক সেনাবাহিনী অসহনীয় ও খুব বেশিই বেদনাদায়ক নি’র্যাতন চালাতো। গ’র্ভবতী নারীদের গ্রে’’ফতার না করে শিবিরেই থাকতে দিতো ওরা, কিন্তু সন্তান জন্ম দেয়ার পরেই মায়েদেরকে কা’রাগারের প্রকোষ্ঠে নি’ক্ষেপ করা ‘হতো-এভাবে অসংখ্য মায়ের কোল

ধা’রাবাহিকভাবে খালি করছে মুসলিম বি’দ্বেষী কমিউনিস্ট সরকারের সেনাবাহিনীরা।কা’রাগারে আমা’দেরকে নামাজ পড়তে দেয়া ‘হতোনা, হিজাব পরিধান কিংবা ওজু করা আমা’দের জন্য অসম্ভব ছিল। তারা আমা’দের হলুদ রঙের খুবই ছোট্ট একটি পোশাক পরতে দিতো।তবে এতোসব বাধ্যবাধকতা সত্ত্বেও কারা’গারে কিছু উইঘুর মুসলিম

যুবতীকে দেখেছি, তারা ইশারা করে পাঁচ ওয়াক্ত নামাজ আ’দায় করছে,নিয়মিত কুরআনে কারিমের তেলাওয়াত করছে এবং রাতদিন আল্লাহকে ডাকছে অথচ তাদের ঠোঁট নিরব, নড়ছেনা।আমি দেখেছি, সদ্য সন্তান জন্ম’দানকারী মা আমা’র পাশে বসে আছে, আর স্তন থেকে ফোঁটায় ফোঁটায় দুধ পড়ে বুক ভেসে যাচ্ছে। আমি এসব দেখেছি শুধু, কোন কিছুই তাদের জন্য করতে পারিনি।

Print Friendly, PDF & Email

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here

11 − 7 =