আদালতের নির্দেশে মোক্তার মেম্বারকে কেন্দ্রীয় কারাগারে পাঠানো হয়েছে

0
127

কেরানীগঞ্জে চাকরি ছাড়ার অপরাধে নিজ প্রতিষ্ঠানের কর্মচারীকে মারধর করে ইয়াবা ব্যবসায়ী সাজিয়ে পুলিশের কাছে ধরিয়ে দেওয়ার চেষ্টার অভিযোগে এক ইউপি সদস্যকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।কেরানীগঞ্জ মডেল থানার এস আই মো. রফিকুল ইসলাম মঙ্গলবার সাংবাদিকদের এ তথ্য জানান। গ্রেপ্তার মো. মোক্তার হোসেন কালিন্দী ইউনিয়নের ২নং ওয়ার্ড মেম্বার।

এ ঘটনায় ভুক্তভোগী কর্মচারী মো. আল আমিন মারধরের অভিযোগে মামলা করেছেন।

রফিকুল ইসলাম জানান, সোমবার সকালে মোক্তার হোসেন ফোন করে জানান তার এলাকায় ৪০ পিস ইয়াবাসহ এক ব্যবসায়ীকে আটক করা হয়েছে। পরে ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের নির্দেশে ঘটনাস্থলে পৌঁছে দেখি আল আমিন নামের একটি ছেলেকে তারা মারপিট করে বেঁধে রেখেছে এবং মেম্বার আমার হাতে একটি প্যাকেট ধরিয়ে দিয়ে বলেন এর ভেতর দেখেন ইয়াবা ট্যাবলেট রয়েছে।

এসআই বলেন, প্যাকেট খুলে ইয়াবা ট্যাবলেটগুলো দেখে আমার সন্দেহ হয়। আমি খোঁজ নিয়ে জানতে পারি যে, আল আমিন মেম্বারের পানির ট্যাংক বানানোর কারখানার শ্রমিক ছিল। সে তার ওখান থেকে চাকরি ছেড়ে দেয়ার অপরাধে তাকে মারধর করে পুলিশে ফোন দিয়ে ইয়াবা ব্যবসায়ী হিসেবে ধরিয়ে দেয়া হয়েছে। ঘটনা জানার পর ইয়াবা হিসেবে দেয়া ট্যাবলেটগুলো যাচাই করে দেখা যায়, সেগুলো জন্মনিরোধক পিল।

তিনি আরও বলেন, পরে বিষয়টি ওসি স্যারকে জানালে স্যার দুজনকেই থানায় নিয়ে আসতে বলেন। থানার আনার পর স্যার ঘটনার সত্যতা প্রমাণ পেয়ে মেম্বারের বিরুদ্ধে মামলা নিয়ে ওই দিনই আদালতে পাঠান।

কেরানীগঞ্জ মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা কাজী মাইনুল ইসলাম পিপিএম ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, একটি নিরীহ ছেলেকে হয়রানি থেকে রক্ষা করা গেছে।

আদালতের নির্দেশে মোক্তার মেম্বারকে কেন্দ্রীয় কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

Print Friendly, PDF & Email

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here

three × three =