সিদ্ধিরগঞ্জের বাসিন্দাদের মধ্যমণি এখন ময়লার স্তূপ

0
76

সিদ্ধিরগঞ্জ প্রতিনিধি : নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশন থেকে বাসিন্দাদের জন্য দেওয়া সকল সুবিধার মধ্যে একটি হলো প্রতিটি বাড়ী থেকে নির্ধারিত লোক ময়লা সংগ্রহ করবে। কিন্তু সেই সুবিধাই অসুবিধা হয়ে দাড়াঁলো নাসিক ১ নং ওয়ার্ডের বাসিন্দাদের। দায় এড়াতে সিটি কর্পোরেশনের পক্ষ থেকে বাসা-বাড়ীর ময়লা আবর্জনা নিয়ে আসা হলেও তা ফেলা হচ্ছে বাড়ীর পাশেরই একটি খোলা জায়গায়। দিনের পর দিন এমন স্বেচ্ছাচারিতার ফলে সিদ্ধিরগঞ্জ বাসীর দূর্ভোগ চরমে পৌছে গিয়েছে। ময়লার স্তূপের আকার বেড়ে গিয়ে চলাচলের রাস্তায় চলে এসেছে। এমতাবস্থায় আশে-পাশের বাসিন্দাদের প্রতিটি মুহুর্ত দুঃসহনীয় হয়ে পড়েছে। ময়লার দুগর্ন্ধে ছড়িয়ে পড়ছে  বায়ুবাহীত বিভিন্ন রোগব্যাধী। যেখানে অবাধে ময়লা ফেলা হচ্ছে তার পাশের রাস্তাটি দিয়েই প্রতিদিন অসংখ্য মানুষের যাতায়াত। ফলে পথচারীদের দূর্ভোগ ও নেহাত কম নয়।

বিভিন্ন বাসা-বাড়ী থেকে সংগৃহীত আবর্জনা এমন খোলা জায়গায় ফেললে ছড়াতে পারে করোনা, নারায়ণগঞ্জ সিভিল সার্জনের এমন বক্তব্যে এলাকাবাসী অচিরেই এর সমাধান চায়। এব্যাপারে নাসিক ১ নং ওযার্ডের বাসিন্দা যুবলীগ নেতা হুমায়ন কবির বলেন, নগরায়নের ফলে এখন বাচ্চাদের জন্য খেলার মাঠ নেই বললেই চলে।

এ মাঠটিও দখল করা হলো ময়লা ফেলার জন্য। তার উপর দুর্গন্ধ তো আছেই। বর্তমানে করোনা মহামারীতে প্রতিনিয়তই জোর দেওয়া হচ্ছে পরিস্কার পরিচ্ছন্নতার  উপর। কিন্তু সিটি কর্পোরেশনের নজরদারীর অভাবে আমাদের প্রতিনিয়ত দিন কাটাতে হচ্ছে ময়লা আবর্জনার বিশাল স্তূপের সাথে। শীঘ্রই যদি এ সমস্যার সঠিক সমাধান না হয় তাহলে অচিরেই এ এলাকা বসবাসের অযোগ্য হয়ে পড়বে।

নাসিক মেয়র মহদোয়ের প্রতি অনুরোধ জানিয়ে সিদ্ধিরগঞ্জের বাসিন্দা শিল্পপতি আনোয়ার ইসলাম বলেন, এসব ময়লা আবর্জনা গুলো আবাসিক এবং ঘনবসতিপূর্ন এলাকা থেকে দূরে সিটি কর্পোরেশনের তত্ত্বাবধায়নে নির্দিষ্ট জায়গায় ফেলার ব্যবস্থা করা হোক। এতে করে সিদ্ধিরগঞ্জে বাসিন্দাদের অসুবিধা এবং রোগব্যাধির প্রকোপ দুটোই কমবে। সাথে সাথে পরিবেশের সঠিক ভারসাম্য বজায় থাকবে।

নাসিক ১,২,৩ নং ওয়ার্ডের মহিলা সংরক্ষিত ওয়ার্ডের কাউন্সিলর মাকসুদা মোজাফ্ফর সত্যতা স্বীকার করে বলেন, উক্ত বিষয়ে ১ নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলরকে বলা হয়েছে। কিন্তু কার্যকরী কোন পদক্ষেপ চোঁখে না পড়ায় এ ব্যাপারে মেয়রকে অবগত করা হয়েছে। এ ব্যাপারে নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনের মেয়র সেলিনা হায়াৎ আইভী মুঠোফোনে বলেন, উক্ত সমস্যা অচিরেই সমাধান করা হবে।  

Print Friendly, PDF & Email

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here

20 − sixteen =