উন্নয়নের ছোঁয়া লাগেনি সোনাইমুড়ীর নবগ্রামে

0
52

ইয়কাবু নবী ইমন: স^াধীনতার দীর্ঘ অর্ধশত বছরেও নোয়াখালীর সোনাইমুড়ী উপজেলার দেওটি ইউনিয়নের নবগ্রামে উন্নয়নের ছোঁয়া লাগেনি। ওই গ্রামের তালতলা থেকে সরকারী প্রথমিক বিদ্যালয় পর্যন্ত সড়কটি পাকা করন করা হয়নি দীর্ঘ দিনেও। ফলে মাটির এই সড়কটির বেহাল দশা বিরাজ করছে। সড়কটির অনেক স্থান বিলিন যাচ্ছে। বর্ষ মৌসুমে চরম দূর্ভোগের শিকার হয় স্কুল, কলেজ, মাদ্রাসার শিক্ষার্থীসহ হাট-বাজারগামী হাজার হাজার সাধারণ মানুষ।

সরেজমিন গিয়ে জানা গেছে, দেওটি ইউনিয়নের নবগ্রাম তালতলা থেকে নবগ্রাম সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় পর্যন্ত সড়কটি অত্যান্ত গুরুত্বপূর্ন। নবগ্রাম, দূর্গা দৌলতপুর ও নান্দিয়াপাড়া গ্রামের হাজার হাজার মানুষের একমাত্র যোগাযোগ মাধ্যম এই সড়কটি। সড়কটির বিভিন্ন এলাকা ঘুরে দেখা গেছে করুন চিত্র। প্রতি বর্ষায় সড়কটির অস্তিত্বই সংকটে পড়ে। সড়কটি দিয়ে যানবাহনতো দুরের কথা সাধারণ মানুষ পায়ে হেটেও চলাচলা করতে পারেনা। প্রতিদিন স্কুল, কলেজ, মাদ্রাসা শিক্ষক-শিক্ষার্থী, মসজিদের মুসল্লি, ব্যবসায়ীসহ হাজার হাজার মানুষ যাতায়াত করে সড়কটি দিয়ে। দীর্ঘদিনের সড়কটি পাকা না করায় চরম দূর্ভোগের শিকার হচ্ছে সাধারণ মানুষ। তাই দ্রুত সড়কটি পাকা করনের দাবী জানিয়েছে এলকাবাসী।

স্থানীয় বাসিন্ধা কোরবান আলী, হেদায়েত উল্যাহসহ অনেকে জানান, সড়কটি পাকা করার জন্য আমরা অনেক দৌঁড়াদৌঁড়ি করেছি, শুনি রাস্তা করার জন্য টেন্ডার হয়েছে, কিন্তু পরক্ষনে শুনি পাকা করার কাজ অন্য জায়গায় চলে গেছে। এভাবে আমরা অবহেলিত রয়ে গেছি।নবগ্রামের বাসিন্ধা ও সোনাইমুড়ী প্রেসক্লাবের দপ্তর সম্পাদক টি.এ সেলিম বলেন, সড়কটি অত্যান্ত গুরুত্বপূর্ন। বর্ষকালে সড়কটি দিয়ে হাটাই যায়না। তাই জনগুরুত্বপূর্ন এই সড়কটি পাকা করতে প্রধানমন্ত্রীসহ সংশ্লিষ্ঠদের কাছে জোর দাবী জানাচ্ছি।

 দেওটি ইউনিয়নের চেয়ারম্যান নুরুল আমিন শাকিল জানান, নবগ্রাম, দূর্গাদৌলতপুর ও নান্দিয়াপাড়ার অধিকাংশ মানুষ নবগ্রাম থেকে নবগ্রাম সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় পর্যন্ত সড়কটি দিয়ে যাতায়াত করে। গুরুত্বপূর্ন হিসেবে এই সড়কটি আরো আগেই পাকা হওয়া উচিৎ ছিলো। সড়কটি পাকা করতে আমাদের সর্বাত্মক প্রচেস্টা থাকবে এবং আমি এমপি মহোদয় ও মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর ব্যক্তিগত সহকারী জাহাঙ্গীর আলম সাহেবসহ সকলের সহযোগীতা চাই। রাস্তাটি পাকা হলে ওই এলাকার মানুষ অনেক উপকৃত হবে। 

 সোনাইমুড়ী উপজেলা চেয়ারম্যান খন্দকার রুহুল আমিন জানান, রাস্তাটি সম্পর্কে এলাকার অনেকেই আমাকে বলেছে। আপনারা দূর্ভোগের শিকার হচ্ছেন। গুরুত্ব বিবেচনা করে দ্রুত রাস্তাটি উন্নয়নের আওতায় আনা হবে। নোয়াখালী জেলা পরিষদের প্যানেল চেয়ারম্যান মাসুদুর রহমান শিপন বলেন, এই সরকারের আমলে অনেক উন্নয়ন হচ্ছে। বিশেষ করে আমাদের মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর ব্যক্তিগত সহকারী আলহাজ¦

জাহাঙ্গীর আলমে সাহেব থাকার কারনে স্পেশাল বরাদ্ধে  অনেক কাজ হচ্ছে। কিন্তু নবগ্রামের এই রাস্তাটি সম্পর্কে আমাদের জানা ছিলোনা। আমরা যখনি জেনেছি তখনি রাস্তাটি পাকা করার জন্য বৃহত্তর নোয়াখালী উন্নয়ন প্রকল্প-৩ এ অন্তর্ভূক্ত করেছি। আশা করি চলতি বছরেই টেন্ডার প্রক্রিয়া সম্পন্ন করে সড়কটি  পাকা করা সম্ভব হবে।  

Print Friendly, PDF & Email

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here

sixteen − six =