নিজেদের জায়গায় সাইনবোর্ড লাগিয়ে প্রতিবাদ জানিয়েছে চট্টগ্রাম দক্ষিণ বন বিভাগ

0
214

মোঃ কামাল হোসেন, চট্টগ্রামঃ রাঙ্গুনিয়ায় বহিরাগত ও সমালোচিত বৌদ্ধ ভিক্ষু শরনংকর থের কর্তৃক দখল কৃত বন বিভাগের সরকারী জায়গায় সাইনবোর্ড লাগিয়েছে কর্তৃপক্ষ। ইতোপূর্বে চট্টগ্রাম দক্ষিণ বনবিভাগ অনেকবার সাইনবোর্ড লাগালেও শরনংকরের নেতৃত্বে তার বাহিনী কর্তৃক এসব সাইনবোর্ড ভেঙ্গে ফেলার অভিযোগ উঠে। সর্বশেষ শরনংকর পাহাড় কেটে স্থাপনা নির্মাণ করতে গেলে বাধা দেয় স্থানীয় বনবিভাগ এবং পুলিশ প্রশাসন। জানাযায়, এতে ক্ষিপ্ত হয়ে অশালীন আচরন এবং তাদেরকে মারতে তেড়ে আসে শরনংকর গং। শরনংকরের উশৃংখল আচরনে ফিরে আসে বনবিভাগ ও পুলিশ সদস্যরা। এদিকে সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি বিনষ্টের দোহায় দিয়ে শরনাংক থের ক্ষেপাতে চেষ্টা করেন বৌদ্ধ সম্প্রদায়কে। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ব্যবহার করে আল্লাহ ও মহানবী (সঃ) কে নিয়ে কটুক্তি, ক্ষমতাসীন কর্তৃক বৌদ্ধ নির্যাতনের অভিযোগ, নিজের সরকারী জায়গা দখলের দায় অন্যের উপর চাপানো এবং অনবরত নোংরা মিথ্যাচার করে যাচ্ছে এই ভিক্ষু।

অন্যদিকে শরনংকর কর্তৃক রাঙ্গুনিয়ার সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি ও শান্তি নষ্টের অপচেষ্টার প্রতিবাদে সমগ্র রাঙ্গুনিয়ায় ইতোমধ্যে হিন্দু, বৌদ্ধ, মুসলিম, খৃষ্টান সম্মিলিত বিভিন্ন সামাজিক সংগঠনের ব্যানারে মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে। রাঙ্গুনিয়ার বৌদ্ধ ধর্মের অনুসারীরাও তাকে রাঙ্গুনিয়ায় আবাঞ্চিত ঘোষণা করেছে।

চট্টগ্রাম দক্ষিণ বন বিভাগ কর্তৃক জানাযায়, চট্টগ্রাম দক্ষিন বন বিভাগের প্রশাসনিক অধিক্ষেত্রাধীন খুরুশিয়া রেঞ্জের খুরুশিয়া বিট এবং সুখবিলাস বিটের ফলহারিয়া মৌজার ১৯৩১ সনে ঘোষিত সংরক্ষিত বনভুমি আর,এস দাগ নং ৬৫৮,৬৫৯, ৬০৭ এবং বি,এস দাগ নং ৬০৫,৬৪৬,৬৪৭।

জনৈক ভদন্ত শরনংকর থেরো,পিতা-দিলীপ বড়ুয়া,উপজেলা-হাটহাজারী,জেলা- চট্টগ্রাম ধর্মীয় ধ্যানের নামে জ্ঞানশরন মহারন্য বৌদ্ধ বিহার নাম দিয়ে সরকারী আনুমানিক ৫০ একর জায়গা জবরদখল করে বিভিন্ন ছোট বড় মূর্তি,তোরন,পুকুর,টিনের ঘর সহ বিবিদ স্থাপনা আইন বহির্ভুতভাবে নির্মান করেন।এছাড়া আরো ৫০ একর সংরক্ষিত বনভুমি দখল করার উদ্যোগ নেন।

উক্ত জবরদখলকৃত সংরক্ষিত বনভুমি জবরদখলমুক্ত করার জন্য ভদন্ত শরনংকর থেরকে আইনি নোটিশ প্রদানসহ অবৈধ স্থাপনা নির্মান কাজে বাঁধা প্রদান করলে সে ক্ষিপ্ত হয়ে বন কর্মচারী ও পুলিশকে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজসহ রোপনকৃত ৩০০০০ চারা কর্তন, প্রস্তাবিত বাগানের ৩ টি সাইনবোর্ড ভেঙ্গে ফেলা,২০১৯-২০২০ সনে বাগান সৃজনের নিমিত্তে উত্তোলিত ৭৬০০০ চারা কর্তন ও ২০০০০ হাজার খুটি পুড়িয়ে ফেলে।এতে সরকারে ১১,০৩,০০০ টাকার ক্ষতি হয়।

সেপ্রেক্ষিতে জবরদখলকারী ভদন্ত শরনংকর থেরর বিরুদ্ধে বন বিভাগ ০৩ টি পুলিশি মামলা এবং বন আইনে ০৩ টি পিওআর মামলা দায়ের করা হয় যা বর্তমানে চলমান রয়েছে।উক্ত জবরদখলকারী এবং তার অনুসারীরা হীন স্বার্থ চরিতার্থ করার মানসে বিভ্রান্তিমুলক বিভিন্ন বক্তব্য মিডিয়া,সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে দেশে বিদেশে অপপ্রচার ও মিথ্যাচার করে যাচ্ছেন।

প্রকৃতপক্ষে ভদন্ত শরনংকর থের বন বিভাগ কতৃক বারংবার নিষেধ করার পরও বন বিভাগের জায়গা দখল করে নতুন নতুন স্থাপনা নির্মান অব্যাহত রাখলে বনবিভাগ এতে বাঁধা প্রদান করে তখন ভিক্ষু ও তার অনুসারীরা বনবিভাগের কর্মকর্তা কর্মচারী ও পুলিশ সদস্যদের অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ ও হুমকি দেয়।

মুলত ভদন্ত শরনংকর থের ঘটনাটি ভিন্ন খাতে নেওয়ার জন্য অপপ্রচার চালাচ্ছে বলে জানান চট্টগ্রাম দক্ষিণ বন বিভাগের আওতাধীন স্থানীয় খুশিয়া বনবিট কর্মকর্তা মাহাবুব আলম।এই অপপ্রচার ও মিথ্যাচারের জন্য চট্টগ্রাম দক্ষিন বনবিভাগ হতে তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছেন কর্তৃপক্ষ।

Print Friendly, PDF & Email

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here

twenty + 10 =