এমএলএম ব্যাবসায়ীর হামলার শিকার সাংবাদিকরা

0
251

রাজধানীর কুড়িল বিশ্বরোডের জেবুন্নেছা প্লাজায় “এসএম ট্রেডিং” নামের এক কোম্পানির মালিকের বিরুদ্ধে সাংবাদিকের উপর হামলার অভিযোগ উঠেছে। এছাড়াও উল্টো চাঁদাবাজির অভিযোগ তুলে নির্যাতিত সাংবাদিক সহ অজ্ঞাত ১০/১২ জনের বিরুদ্ধে রাজধানীর ভাটারা থানায় গত বৃহস্পতিবার রাতে একটি হয়রানি মুলক চাঁদাবাজির মামলা দায়ের করেন এস এম ট্রেডিং কর্তৃপক্ষ।

নির্যাতনের শিকার সাংবাদিকরা প্রত্যেকেই স্থানীয় দৈনিক পত্রিকায় কর্মরত রয়েছেন বলে জানা গেছে। গত ২০ অক্টোবর মঙ্গলবার দুপুরে কুড়িল বিশ্বরোডের জেবুন্নেছা প্লাজা থেকে কিছুটা দূরে ফুটপাতে প্রকাশ্যে এ মারধোরের ঘটনা ঘটে। এঘটনায় নির্যাতনের শিকার সাংবাদিক হাসপাতাল থেকে প্রাথমিক চিকিৎসা শেষে ভাটারা থানায় মামলা করতে গেলেও দীর্ঘ সময় পর মামলা (মামলা নং-৬২,২২/১০/২০) রুজু হয় দাবী নির্যাতনের শিকার সাংবাদিকের।

পরবর্তীতে দেখা যায় নির্যাতনের শিকার সাংবাদিকের বিরুদ্ধে উল্টো চাঁদাবাজির অভিযোগ এনে মামলা দায়ের করে এস এম ট্রেডিং কর্তৃপক্ষের পক্ষে আব্দুল হাকিম বিশ্বাস। যদিও সাংবাদিকদের কাছে এ হামলার পুরো ভিডিও ফুটেজ রয়েছে বলে জানা গেছে। ঘটনাস্থলের ভিডিও ফুটেজ ও খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, এস এম ট্রেডিং এর মালিক শুভ চৌধুরির নেতৃত্বে

কোম্পানির ভাইস চেয়ারম্যান পলাশ, ডিএমডি লুতফর রহমান, জিএম মোজাম্মেল হোসেনসহ আরো ১৫ থেকে ২০ জন বড় রড, এস এস পাইভ, ও লাঠিসোটা নিয়ে সাংবাদিকদের উপর অতর্কিত হামলা চালায়। এতে একজন ঘটনাস্থলে মারাত্মক আহত হয়। এবিষয়ে সোমবার মামলার বাদি সাংবাদিক সামছুউদ্দিন জুয়েল বলেন, পেশাগত কাজ শেষে সহকর্মীদের সাথে বাড্ডা থেকে উত্তরা ফেরার পথে প্রতারক শুভর সাথে দেখা হলে তার এমএলএম প্রতারণার বিষয়ে জানতে চাইতেই তিনি

রেগে গিয়ে ফোন করে তার অফিসের স্টাফদের নিচে ডেকে এনে আমাদের ওপর হামলা চালা । পরে উল্টো রাতে আমাদের নামে ৫০ লাখ টাকার মিথ্যা চাঁদাবাজি মামলা দায়ের করেন। মামলা সম্পর্কে জানতে চাইলে ভাটারা থানার ওসি মোক্তারুজ্জামান বলেন, কিছু সাংবাদিক ভাইরা এসেছিলেন একজন ব্যবসায়ীর বিরুদ্ধে মারধোরের অভিযোগে একটি মামলা দায়ের করেছেন। এঘটনায় দুই পক্ষই মামলা করেছেন। মামলাটি এখন তদন্তাধীন রয়েছে। তদন্ত শেষে বিস্তারিত জানানো

Print Friendly, PDF & Email

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here

eighteen − 7 =