বিচারককে মারধর : আ.লীগ নেতার ছেলের ৫ বছর কারাদণ্ড

0
271

চট্টগ্রাম নগরের পতেঙ্গায় আউটার রিং রোডে রেসিং করে উল্টোপথে মোটরসাইকেল চালানোর প্রতিবাদ করায় জহির উদ্দিন নামে এক বিচারকের ওপর হামলার ঘটনায় আওয়ামী লীগ নেতা হাজি ইকবালের ছেলে আলী আকবরকে পাঁচ বছর কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত।

বৃহস্পতিবার (১১ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে অতিরিক্ত মহানগর হাকিম মহিউদ্দিন মুরাদের আদালত এ রায় ঘোষণা করেন। এ সময় আলী আকবর আদালতে উপস্থিত ছিলেন।

দণ্ডপ্রাপ্ত আলী আকবর ইকবাল বন্দর থানা আওয়ামী লীগের বহিষ্কৃত সাংগঠনিক সম্পাদক ও ‘হায় মুজিব’ নেতা হিসেবে পরিচিত হাজি ইকবালের ছেলে।

বিষয়টি নিশ্চিত করে নগর পুলিশের সহকারী কমিশনার (প্রসিকিউশন) শাহাবুদ্দিন আহমদ বলেন, ‘বিচারকের ওপর হামলার ঘটনায় করা মামলায় মোট দুজনকে আসামি করা হয়েছিল। আজ শুনানি শেষে আদালত হাজি ইকবালের ছেলে আলী আকবরকে পাঁচ বছরের সাজা দিয়েছেন। আদালত মামলা থেকে খালাস দিয়েছেন আলী আকবরের সহযোগী অন্য আসামি আলী হোসেন জিসানকে।’

গত ৯ ডিসেম্বর পতেঙ্গা সমুদ্র সৈকতে উল্টোপথে মোটরসাইকেল চালানোর প্রতিবাদ করায় চট্টগ্রামের ৫ম যুগ্ম জেলা ও দায়রা জজ জহির উদ্দিনের ওপর হামলা হয়। বিকেল সাড়ে ৪টার দিকে সংঘটিত ওই ঘটনায় আলী আকবর এবং তার সহযোগী হাসান আলী জিসানকে আটক করে পুলিশে দেয় স্থানীয়রা। তাদের মধ্যে আলী আকবর যুবলীগ কর্মী মহিউদ্দিন হত্যা মামলার আসামি। তার বাবা হাজি ইকবালও একই মামলার আসামি। বন্দর থানা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক হাজি ইকবালকে দলীয় শৃঙ্খলাবিরোধী কর্মকাণ্ডের জন্য ১০ বছর আগে বহিষ্কার করা হয়। তবে এলাকায় তিনি এখনো আওয়ামী লীগ নেতা পরিচয় দেন।

জানা গেছে, সাজাপ্রাপ্ত আলী আকবর ও খালাসপ্রাপ্ত তার সহযোগী আউটার রিং রোডে উল্টোপথে সেদিন মোটরসাইকেল চালিয়ে যাচ্ছিলেন। এ সময় ওই পথ দিয়ে গাড়ি নিয়ে অন্যত্র যাচ্ছিলেন জজ জহির উদ্দিন। মোটরসাইকেল তার গাড়ির সামনে পড়লে তিনি উল্টোপথে বেপরোয়া গাড়ি চালানোর বিষয়ে জানতে চান। এ সময় তারা বিচারক ও গাড়িতে হামলা চালান।

আদালত সূত্র জানায়, ঘটনার পরপরই বিচারক জহির উদ্দিনের গাড়িচালক রাজু শেখ বাদী হয়ে আলী আকবর ও আলী হোসেন জিসানের বিরুদ্ধে মামলাটি করেছিলেন। এ মামলায় গ্রেফতার পরবর্তী আদালতের আদেশে তাদের রিমান্ডে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদও করা হয়।

গত ২১ ডিসেম্বর আলী আকবর ও তার সহযোগী আলী হোসেন জিসানকে আসামি করে এ মামলার অভিযোগপত্র আদালতে দাখিল করেন পতেঙ্গা মডেল থানার সাব-ইন্সপেক্টর (এসআই) মোহাম্মদ মহিউদ্দিন চৌধুরী।

Print Friendly, PDF & Email

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here

eighteen + 16 =