থগিত কালকিনি পৌর নির্বাচন দ্রুত বাস্তবায়নের দাবী

0
180

স্থগিত হওয়া মাদারীপুররে কালকিনি পৌরসভা নির্বাচন দ্রুত বাস্তবায়নের দাবী জানিয়েছেন পৌরসভারসাধারণ ভোটাররা। চতুর্থ ধাপে গত ১৪ ফেব্রুয়ারি এই নির্বাচনের ভোট গ্রহণের কথা ছিল। অনুকূল পরিবেশ না থাকায়নির্বাচন স্থগিত করা হয়। গত ১১ ফেব্রুয়ারি এ সংক্রান্ত এক বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করে নির্বাচন স্থগিত করেন নির্বাচন ব্যবস্থাপনা ও সমন্বয়-১ শাখার সিনিয়র সহকারী সচিব মোহাম্মদ মোরশেদ আলম। পৌর নির্বাচন উপলক্ষে প্রার্থীদের প্রচার প্রচারণায় উৎসবমূখর পরিবেশে থাকা অবস্থায় হঠাৎ পরিবেশঅনূকুলে না থাকার অজুহাতে নির্বাচন স্থগিত হওয়ায় প্রার্থী ও সাধারণ ভোটারদের মধ্যে হতাশা বিরাজকরেছে। পৌর এলাকায় নেই কোন নির্বাচনের আমেজ। কি কারণে নির্বাচন স্থগিত হলো? কবে নির্বাচনহবে? এ নিয়ে সাধারণ ভোটারদের মধ্যে রয়েছে নানান প্রশ্ন।

এ নিয়ে পৌর সভার নতুন ভোটার মেহেদী হাসান বলেন, পৌর নির্বাচন উপলক্ষে গোটা পৌর এলাকাএকটা উৎসবমূখর পরিবেশ বিরাজ করেছিল, কি কারণে নির্বাচন স্থগিত হলো কারো অজানা নয়।ভোটের মাধ্যমে এর সঠিক জবাব দিবে ভোটাররা।

অতি দ্রুত নির্বাচনের তারিখ ঘোষনা করে সুষ্ঠু ওনিরপেক্ষ নির্বাচনের দাবি করেন তিনি। অনেকটা আক্ষেপ রেকর্ড আমিনূল ইসলাম রিপন সরদারবলেন, রাজনিতি উর্বর কালকিনিতে নেতাদের চড়াই-উৎরাই দেখেছি। কিন্তু পৌর নির্বাচন নিয়ে এমননোংরামি আগে কখনো দেখিনি, ভোটে জয় পরাজয় থাকবেই, অতি দ্রুত নির্বাচনের দাবি জানানতিনি।

৪ নং সাধারণ ওয়ার্ডের কাউন্সিলর প্রার্থী এমদাদ হোসেন বলেন, পৌর নির্বাচনে একটা উৎসবমূখরপরিবেশ ছিল। হঠাৎ নির্বাচন স্থগিত হওয়ায় ভোটাররা হতাশ হয়েছে। ভোটাররা ভোট দিয়ে তাদেরপছন্দের যোগ্য প্রার্থীকে নির্বাচিত করবে এই অপেক্ষায় আছে। দ্রুত নির্বাচনের তারিখ ঘোষনার দাবীজানান তিনি।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে কালকিনি উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা মোঃ বদরুদ্দিন বলেন, স্থগিত হওয়াপৌর নির্বাচন কবে হবে তার সঠিক বলা যাবে না, আমরা নির্বাচন কমিশন কর্তৃক সিন্ধান্তের অপেক্ষায়আছি, তবে খুব শিগ্রই নির্বাচন হবে বলে আশা প্রকাশ করেন এই কর্মকর্তা।

কালকিনি পৌরসভায় মেয়র পদে আওয়ামী লীগ থেকে নৌকা প্রতীকে এসএম হানিফ, বিএনপি থেকেধানের শীষে মো. কামাল হোসেন, ইসামলী শাসনতন্ত্র আন্দোলন থেকে হাতপাখা প্রতীকে লুৎফররহমান এবং স্বতন্ত্র নারিকেল গাছ প্রতীকে মশিউর রহমান সবুজ ও

চামচ প্রতীকে সোহেল রানা মিঠু।এছাড়া ৯টি ওয়ার্ডের সংরক্ষিত নারী ওয়ার্ডে কাউন্সিলর পদে ১১ জন এবং সাধারণ ওয়ার্ডে কাউন্সিলরপদে ৩০ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছিলেন।

কালকিনি পৌরসভার মোট ভোটার ৩৩ হাজার ৪০০ জন। নারী ভোটার ১৬ হাজার ৭০০ ও পুরুষভোটার ১৭ হাজার ৩০০ জন। চতুর্থ ধাপে কালকিনি পৌরসভার এই নির্বাচন ইভিএমের মাধ্যমে ভোটহওয়ার প্রস্তুতি ছিল।

Print Friendly, PDF & Email

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here

nineteen − fourteen =