কড়াইল বস্তিতে গ্যাস বিদ্যুৎ পানি চোর সিন্ডিকেটের হোতা একাধিক মামলার আসামী মঞ্জুল হকের ছদ্মবেশী রাজনীতি

0
401

হাবিব সরকার স্বাধীনঃ

সরকারি গ্যাস চোর মুঞ্জুল হকের অপকর্মের কান্ড কড়াইল বস্তি ১৯ নং ওয়ার্ড এলাকার টিএনটিতে গ্যাস বিদ্যুৎ সহ নানান অপকর্মের হুতা মঞ্জুর হক অরফে জামাত মুঞ্জুল হক। কড়াইল বউ বাজার বস্তিতে তার ভাই মুস্তাফার র‍য়েছে বিশাল বিএনপির জামাত নেতাদের সমথ। এলাকাবাসীর প্রতিবেদন কে বলেন দীর্ঘ দিন যাবৎ অবৈধভাবে জাতীয় সম্পদ গ্যাস, পানি, বিদ্যুতের রমরমা বানিজ্য করে আসছে বলে বসবাসকারীদের সূত্রে জানা যায় । আর এসব জাতীয় সম্পদ অপব্যবহার কারীদের নিয়ন্ত্রণ করছেন একটি সিন্ডিকেট। সিন্ডিকেটের অন্যতম কড়াইল কুমিল্লা পট্রির বহু মামলার আসামী টুন্ডা মমিন, দিনে আওয়ামী লীগ মুঞ্জল হক, তার ভাই স্বেচ্ছাসেবক লীগের নেতা নামধারী মুস্তাফা সহ অনেকে। গোডাউন বস্তিতে রয়েছে মুঞ্জুর ক্যাসিয়ার ভাংগারী সামসু ৷অবৈধ গ্যাস পানি বিদ্যুৎ সিন্ডিকেটের বিরুদ্ধে সাঁড়াশি অভিযানের অংশ হিসেবে তিতাস কোম্পানি গুলশান ২৩ নম্বর রোড ত্রকায় অবৈধ গ্যাস বিদ্যুৎ পানি সাম্রাজ্য গড়ে তুলেছেকায় অবৈধ গ্যাস বিদ্যুৎ পানি সাম্রাজ্য গড়ে তুলেছেবঃ মহাখালী ও গুলশান চেকপোস্ট এলাকায় বেশ কিছু অবৈধ গ্যাসের লাইন তিতাস কর্তৃপক্ষ বিচ্ছিন্ন করে দেয়৷ সূত্রে জানা যায় এসব অবৈধ গ্যাস এ শুধু তাই নয়, এই সাম্রাজ্যের বাহিরে অবৈধ গ্যাসলাইন থেকে বেশ কিছু এলাকায় বাইপাস লাইন সাপ্লাই দিয়েছে৷ বাইপাস গ্যাস লাইন গুলো যারা ব্যবহার করে তাদের কাছ থেকে প্রতিমাসে নির্দিষ্ট একটি অংক টাকা নিয়ে থাকেন এই মনজুরুল হক মঞ্জু৷

কড়াইলে দশটি এলাকায় এই বাইপাস লাইন ব্যবহার করা হয় প্রতিটি এলাকা থেকে প্রতিমাসে নির্দিষ্ট অংকের টাকা মনজুরুল হক মঞ্জু হাতিয়ে নিচ্ছে৷ এবং তিতাসের কিছু অসাধু কর্মচারী অবৈধ গ্যাস লাইনের সাথে জড়িত মনজুরুল হক এর বাইপাস গ্যাস লাইন ব্যবহারকারীদের মধ্যে অন্যতম সান্টু, প্রতিমাসে( ৬০) হাজার টাকা দিয়ে থাকেন মঞ্জুকে, আবু সালেক(৬০)হাজার টাকা ,পারভেজ , (৮০)হাজার টাকা ,মোঃ খায়ের , (২০০০০০)দুই লক্ষ টাকা ৷টুটুল,( ৪৫)হাজার টাকা ৷

মিজান ,(৮০)টাকা ৷হাফেজ( ৪৫)হাজার টাকা ৷ জামাই মোস্তফা, (৬৫)হাজার টাকা ৷গ্যাস রফিক মোটা অংকের টাকা দেয় ৷ চোরের উপর বাটপারি নিজে অবৈধ গ্যাস ব্যবহার করে সরকারের লক্ষ লক্ষ টাকা হাতিয়ে নিচ্ছে অন্যদিকে বাইপাস লাইন ব্যবহার করে লক্ষ লক্ষ টাকা হাতিয়ে নিচ্ছে ৷গতবছর টিএনটি ৪ নাম্বার গেটে অবৈধ গ্যাস লাইন বিচ্ছিন্ন করতে এসে তিতাস কর্মকর্তা কে লাঞ্ছিত করেছিলেন এই মনজুরুল হক মঞ্জুর বাহিনী ৷

ওই তিতাস কর্মকর্তা রতন চন্দ্র দে ,মঞ্জুর বিরুদ্ধে বনানী থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি করেছিলেন ,আজকের অভিযানে তিতাসের ম্যানেজার শেখ মঞ্জুরুল ইসলাম বলেন অবৈধ গ্যাস ব্যবসায়ী ও গ্যাস সংযোগ কারীরা যতই শক্তিশালী হোক না কেন তাদের বিরুদ্ধে এ ধরনের অভিযান অব্যাহত থাকবে ৷পরিশেষে দুটি স্থানে অবৈধ সংযোগ বিচ্ছিন্ন করে ,

পাইপ সহ বিভিন্ন সরঞ্জামাদি জব্দ করেন, অবৈধ সংযোগ কারীদের বিরুদ্ধে মামলা প্রসঙ্গে তিনি বলেন যেহেতু কোনো নির্দিষ্ট গোষ্ঠী বা ব্যক্তি আমাদের কাজে বাধা দিতে আসেনি তাই আমরা আপাতত কারো বিরুদ্ধে মামলা করতে পারছিনা৷ বিস্তারিত চোখ রাখুন।

Print Friendly, PDF & Email

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here

2 + twelve =