কুড়িগ্রামের রৌমারীর মানুষ করোনার ভয় করছে না কেউ ওপেন মানুষের ঢল

0
315

মাজহারুল ইসলাম, রৌমারী কুড়িগ্রাম প্রতিনিধিঃ কুড়িগ্রামের রৌমারীর সকল দোকানপাট ওপেন খোলামেলা লাখো মানুষের ঢল। মানুষের সমাগম হিসাবে সবকিছুই যেন স্বাভাবিক। রৌমারী-রাজিবপুরসহ দুই উপজেলায় করোনা সক্রমণের ভয় করেনা যেন কেউ। সর্বস্তরের দোকানপাট খোলামেলাতে হাজারো মানুষের ঢল। সবকিছুই যেন স্বাভাবিক মনে হয়। করোনাভাইরাস নিয়ে সারাবিশ^ আতংক থাকলেও রৌমারী-রাজিবপুরে এসবের যেন বালাই নেই। উপজেলা শহরে ঢোকার পথে নেই কোন কড়াকড়ি। শহরের সব দোকানপাট খোলা। ফলে করোনাভাইরাসের বিস্তার ঘটার উদ্বেগ মাথায় নিয়ে সময় কাটাচ্ছেন এলাকাবাসী। উপজেলা শহর গুলো ঘুরে দেখা গেছে,রোডঘাটে লাখো মানুষের ঢল। একটি দোকানপাটও বন্ধ নেই সবই খোলামেলা রয়েছে। বিশেষ করে উপজেলা শহরের কাঁচাবাজার, কাপড়ের দোকান, হাসপাতালসহ সবখানেই অসংখ্য মানুষের সমাগম। এবিষয়,স্থানীয় কলেজ শিক্ষক আজিজুর রহমান বলেন আমাদের এলাকার প্রায় মানুষ মাস্ক ব্যবহার করছেনা।

প্রশাসনের লক্ষণীয় ভূমিকা একদম জিরো থাকার কারনেই এইভাবে চলছে মানুষ। মানুষ শহরে অবাধে চলাচল করছে, ঘরে থাকা, জরুরি হলেও, প্রয়োজন ছাড়াই অবৈধভাবে ঘুরাফেরা করছে। 

সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখার সরকারি নির্দেশ নির্দেশনা থাকলেও এঅঞ্চলের মানুষ গুলো কিছুই মানছে না। অসচেতনের কারনে এসব মানুষ নিজেদের বিপদগ্রস্ত করছেন।

অন্যদেরও ঝুঁকির মধ্যে যেন ঠেলে দিচ্ছে।উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আল ইমরান বলেন,করোনা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ রাখতে উপজেলা প্রশাসন, উপজেলা পরিষদ সম্মিলিতভাবে কাজ করে যাচ্ছি। প্রতিদিন মাইকিং করে দোকানপাট বন্ধ রাখা, একাধিক মানুষ গণজমায়েত এড়ানো, নিয়মিত হাত ধোয়ার অভ্যাস গড়ার কথা বলা হচ্ছে।

কিন্তু এই এলাকার মানুষ এসব পরামর্শ মানছেই না। রৌমারী উপজেলা স¦াস্থ্যকমপ্লেক্সের দায়ীত্বপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ডাঃ সেলিম তার বক্তব্যে বলেন এই এলাকায় সচেতনতার বড়ই অভাব রয়েছে। আমরা যেভাবে পরার্মশ দিচ্ছি তারা কিন্তু মানছে না।

Print Friendly, PDF & Email

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here

5 × two =