ভুমি দস্যু, দুর্নীতিবাজ ও চাদাবাজ রফিকুল ইসলাম নান্নু

0
203

সুলতান মাহমুদঃ সোনারগাঁ উপজেলা যুবলীগের সভাপতি রফিকুল ইসলাম নান্নুর মেসার্স নাদিম এন্টারপ্রাইজ নামক ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে পৌরসভার পঙ্খীরাজ খালের পশ্চিম পাশে একটি গাইড ওয়াল অতি নিম্নমানের সামগ্রী ও অব্যবহার যোগ্য পুরাতন ইট দিয়ে নির্মাণ করার অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনায় রবিবার (১০ ফেব্রুয়ারি) এলাকাবাসীর পক্ষ থেকে জেলা পরিষদের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তার কাছে একটি লিখিত অভিযোগ করা হয়েছে। অভিযোগে উল্লেখ করা হয়েছে, ২০১৬-১৭ অর্থ বছরে জেলা পরিষদ থেকে সোনারগাঁ পৌরসভায় ভট্টপুর মডেল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ও শ্রী শ্রী সিদ্ধেশ্বরী পূজা মন্ডপ রক্ষার্থে পঙ্খীরাজ খালের পশ্চিম পাশে একটি গাইড ওয়াল নির্মাণের জন্য ৩০ লাখ টাকা বরাদ্দ দেয়া হয়। পরে ওই কাজের টেন্ডার পায় উপজেলা যুবলীগের সভাপতি রফিকুল ইসলাম নান্নুর মেসার্স নাদিম এন্টারপ্রাইজ। সম্প্রতি ওই ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান অতি নিম্মমানের সামগ্রী ও অব্যবহার যোগ্য পুরাতন ইট দিয়ে গাইড ওয়াল নির্মাণ শুরু করে। এতে এলাকাবাসী ক্ষুব্ধ হয়ে কাজ বন্ধ করে দেয় এবং রবিবার নারায়ণগঞ্জ জেলা পরিষদের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তার কাছে একটি লিখিত অভিযোগ করে।— সংবাদ চর্চা নারায়ণগঞ্জে যুবলীগ সভাপতির বিরুদ্ধে চাদার দাবীতে জমি দখল ও মারধরের অভিযোগ করেছেন প্রবাসী মোঃ মহসিন।সোনারগাঁও উপজেলা যুবলীগের সভাপতি রফিকুল ইসলাম নান্নু ও তার স্ত্রী সহ সহযোগীদের বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করেছেন ভুক্তভোগী ওই প্রবাসী।

মঙ্গলবার (২ ফেব্রুয়ারী) দুপুরে পুলিশ সুপার কার্যালয়ে লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন পূর্ব ভবনাথ পুরের হাজী সিরাজুল ইসলামের পুত্র মোঃ মহসিন।

অভিযোগ সুত্রে জানা গেছে,মহসিন দীর্ঘ ২১ বছর সৌদি আরবে শ্রমিক হিসেবে কাজ করেছেন।একজন রেমিট্যান্স যোদ্ধা।প্রবাস জীবনের উপার্জনের অর্থে উপজেলার মোগড়া পাড়া চৌরাস্তার পশ্চিম পাশে সাড়ে ১৭ শতাংশ নিচু জমি ক্রয় করে।

প্রায় ২ বছর আগে সৌদি আরব থেকে দেশে এসে উক্ত জমি বালু ভরাট করে এবং বাড়ী নির্মানের কাজ শুরু করে।কিন্তু উপজেলা আওয়ামী যুবলীগের সভাপতি রফিকুল ইসলাম নান্নু ও তার সহযোগীরা মোটা অংকের চাদা দাবী করে।মহসিন চাদা দিতে অস্বীকার করায় তাকে ৩ টুকরো করে লাশ নদীতে ফেলে দেওয়ার হুমকি দিয়ে তাড়িয়ে দেয় এবং জোরপূর্বক জমি দখলের চেষ্টা করে।

একসময়ের ভারতীয় শাড়ী বিক্রেতা ও ফুটপাতের চাদা আদায়কারী গোহাট্রা গ্রামের নান্নু কেন্দ্রীয় যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক মাইনুল হোসেন নিখিলের নাম ভাংগিয়ে এলাকায় চাদাবাজি সহ বিভিন্ন সন্ত্রাসী কার্যকলাপ করে।চিহ্নিত বালু সন্ত্রাসী ও নদী খেকো নান্নু ও স্ত্রী বিউটি আক্তার,শ্যালক হাবিব পুরের আলামিন,বিল্লাল,রিপন সহ সহযোগীদের নিয়ে মহসিনের জমি দখল করতে মরিয়া — সুন্নী সমাচার

সাবেক ছাত্রলীগের নেতা সোহাগ রনি বলেন, আমি  বাদী হয়ে রফিকুল ইসলাম নান্নুর বিরোদ্ধে চাদা বাজীর মামলা দায়ের করেছি। আমার কোম্পানির থেকে চাদা দাবী করেছিল এবং আমারর কর্মচারীকে অপহরন করেছিল।

Print Friendly, PDF & Email

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here

nineteen + 10 =