গুলির ঘটনা ঘটিয়েই দূর্গম এলাকায় চলে যায় কন্ট্রাক্ট কিলাররা

0
530

আরিফুল ইসলাম: ঢাকা শহরে জমি দখল-বেদখল ও চাঁদাবাজিসহ বিভিন্ন অপরাধের কাজে চুক্তির মাধ্যমে কিলিং মিশনে অংশগ্রহণ করে গুলির ঘটনা ঘটিয়েই  দূর্গম চর এলাকায় গিয়ে পালিয়ে থাকে ভাড়াটে সন্ত্রাসীরা। রাজধানীতে চাঁদার টাকার জন্য ঠিকাদারকে  গুলি করে চরাঞ্চলে লুকিয়ে থাকা এক সন্ত্রাসী গ্রুপের তিন সদস্যেকে অস্ত্র ও মাদকসহ গ্রেফতার করেছে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের (ডিএমপি) গোয়েন্দা (ডিবি) গুলশান বিভাগ।

 গ্রেফতাররা হলেন- মো. সাহজামান ওরফে সাবু , মো. দুলাল প্যাদা ও মো. সাইফুল ইসলাম ওরফে সুজন। এ সময় তাদের কাছ থেকে একটি রিভলবার, একটি পিস্তল ও তিন হাজার পিস ইয়াবা জব্দ করা হয়। 

গ্রেফতারকৃত মো. সাহজামান ওরফে সাবু, মো. দুলাল প্যাদা ওরফে দুলাল ও মো. সাইফুল ইসলাম ওরফে সুজন।


বৃহস্পতিবার (২৯ জুলাই) দুপুরে ডিএমপির মিডিয়া সেন্টারে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে ডিবি প্রধান অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার এ কে এম হাফিজ আক্তার এসব তথ্য জানান। 
ডিবি প্রধান এ কে এম হাফিজ জানান, গত ৩০ মার্চ ক্যান্টনমেন্ট থানার ৩৩/এ-নং বাসার সামনে চাঁদার টাকা আদায় করাকে কেন্দ্র করে ঠিকাদার আরব আলীকে হত্যার উদ্দেশ্যে সন্ত্রাসীরা গুলি করে। আরব আলীর ডান পায়ের উরুতে গুলিবিদ্ধ হয়ে তিনি গুরুতর আহত হন। এ ঘটনায় ক্যান্টনমেন্ট থানায় একটি মামলা রুজু হয়। 
তিনি বলেন,গুলির ঘটনা ঘটিয়েই  দূর্গম এলাকায় চলে যায় কন্ট্রাক্ট কিলাররা। এ ঘটনায়ও তা-ই ঘটেছে। এ ঘটনার সাথে জড়িত মোঃ সাহজামান ওরফে সাবু চাঁদপুরের দুর্গম চর এলাকা হাইমচরে পালিয়ে যায়। উন্নত তথ্য প্রযুক্তি ব্যবহারের মাধ্যমে সুকৌশলে সাবুকে চাঁদপুরের হাইমচর এলাকা হতে গ্রেপ্তার করা হয়।সাবুর দেয়া তথ্যমতে অন্যান্য সন্ত্রাসীদের গ্রেফতার করে ডিবি।

অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার এ কে এম হাফিজ আক্তার বলেন, রাজধানীতে অনেকেই মাটি/বালি ভরাট ও জমি দখল-বেদখলের কাজে ভাড়াটে সন্ত্রাসী ব্যবহার করছে। এসব বিষয়ে তীক্ষ্ণ নজর রেখেছে ডিবি।এমন ঘটনা ঘটিয়ে কোথাও এ ধরনের কোনো ঘটনা ঘটিয়ে ঢাকার বাইরে পালিয়ে গেলেও কেউ রক্ষা পাবে না। কোথাও এ ধরনের কোনো ঘটনা ঘটলে পুলিশকে অবহিত করার পরামর্শ দেন পুলিশের এ কর্মকর্তা।

গ্রেফতারকৃত সন্ত্রাসীদের পৃষ্ঠপোষকদের বিষয়ে জানতে চাইলে ডিবির প্রধান বলেন, বিদেশে পালিয়ে থাকা সন্ত্রাসী ইব্রাহীম ও যুবরাজের তত্ত্বাবধানে তারা কাজ করতো বলে প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে জানিয়েছে । বিষয়টি তদন্ত করে সে অনুযায়ী ব্যবস্থা নেয়া হবে । এছাড়াও এ চক্রের আরও অন্তত ১০ জনের নামের তালিকা পাওয়া গেছে। তাদের বিরুদ্ধেও তদন্তসাপেক্ষে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। 
গ্রেফতারকৃতদের বিরুদ্ধে পল্লবী থানায় মাদকদ্রব্য ও অস্ত্র আইনে তিনটি পৃথক মামলা রুজু করা হয়েছে বলে সম্মান সম্মেলনে জানানো হয়।

Print Friendly, PDF & Email

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here

thirteen − 12 =