সোনারগাঁয়ের মহজমপুরে পুলিশকে বৃদ্ধাঙ্গুলি দেখিয়ে নান্টু’র জমজমাট মাদক ব্যবসা,অদৃশ্য কারণে গ্রেফতার করছে না পুলিশ

0
265

সোনারগাঁও প্রতিনিধিঃ কঠোর লকডাউনেও পুলিশকে বৃদ্ধাঙ্গুলি দেখিয়ে এবং স্থানীয় তালতলা ফাঁড়ীর কতিপয় অসাধু পুলিশ কর্মকর্তাদের ম্যানেজ করে নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁয়ের জামপুর ইউনিয়নের মহজমপুর এলাকার মাদক ব্যবসায়ী সুমন ওরফে নান্টু জমজমাট মাদক ব্যবসা করে যাচ্ছে। তার অত্যাচারে অতিষ্ঠ এলাকাবাসী।

স্থানীয় তালতলা ফাঁড়ির পুলিশদের মোটা অংকের মাসোহারা দিয়ে দিনের পর দিন সে সোনারগাঁওয়ের পূর্বাঞ্চল তথা জামপুর ও নোয়াগাঁও ইউনিয়ণে জমজমাট মাদক ব্যবসা করে যাচ্ছে বলে অভিযোগ এলাকাবাসীর। সাধারণ মানুষের প্রশ্ন মাদক ব্যবসায়ী নান্টুর খুঁটির জোড় কোথায়? দীর্ঘদিন ধরে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর চোঁখ ফাঁকি দিয়ে অনায়াসে মাদক ব্যবসা চালিয়ে যাচ্ছে নান্টু। নান্টুর সহযোগী মাদক ব্যবসায়ী মাজহারুল ইসলামকে এলাকাবাসী গণধোলাই দিয়ে মাদকসহ পুলিশে দিলেও অন্য সহযোগীদের মাধ্যমে সে ধেধার্ছে চালিয়ে যাচ্ছে মাদক ব্যবসা। মাদক ব্যবসায়ী নান্টু ও তার সহযোগীদের গ্রেফতারের দাবী জানিয়েছেন এলাকাবাসী।এলাকাবাসীর অভিযোগ, উপজেলার জামপুর ইউনিয়নের মহজমপুর এলাকার মকবিলের ছেলে সুমন ওরফে নান্টু দীর্ঘদিন ধরে ওই এলাকায় মাদক ব্যবসা চালিয়ে আসছে। তার সঙ্গে আরো প্রায় ৬-৭ জন মাদক ব্যবসায়ী এ ব্যবসা নিয়ন্ত্রন করে থাকে।

এ মাদক ব্যবসা চলতে থাকায় এলাকার উঠতি বয়সের ছেলেরা মাদকের নেশায় আসক্ত হয়ে পড়ছে। নান্টুর মাদক ব্যবসা নিয়মন্ত্র করতে না পারলে এলাকারবাসী ব্যাপকভাবে ক্ষতির সম্মুখীন হতে পারে। এলাকাবাসী আরও জানান দিনে দূপুরে জনসম্মুখে নান্টু মাদক ব্যবসা করার পরও অদৃশ্য কারণে তাকে গ্রেফতার করছে না তালতলা ফাঁড়ির পুলিশ। এলাকাবাসী অভিযোগ করে বলেন, মাদক ব্যবসায়ীর নান্টুর আপন চাচাতো ভাই শাহাজালাল মজমপুর এলাকায় তার প্রভাবে বাংলা মদও বিক্রি করে থাকে। এ নিয়ে সোনারগাঁ থানায় একাধিক মামলা রয়েছে ।এছাড়াও তার সহযোগী বকুলের ছেলে সফর আলী, হক্কার ছেলে মাজহারুল, মহজমপুর দক্ষিণ পাড়া এলাকার তারা মিয়ার ছেলে রাজু মাদক ব্যবসা চালিয়ে যাচ্ছে। তার সহযোগী মাজহারুল ইসলামকে গণপিটুনি দিয়ে পুলিশে দেওয়া হয়েছে। এ বিষয়ে মাদক ব্যবসায়ী সুমন ওরফে নান্টুর সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, মাদক ব্যবসার সাথে আমি জড়িত না,এগুলো আমার বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র।

সোনারগাঁও থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ওসি হাফিজুর রহমান বলেন,সোনারগাঁওয়ে কোন মাদক ব্যবসায়ীকে ছাড় দেয়া হবে না।তার বিরুদ্ধে তদন্ত সাপেক্ষে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। এদিকে লকডাউনের সুযোগ নিয়ে এলাকায় পুলিশ প্রশাসন কম যাতায়াত করায় মাদক ব্যবসায়ী নান্টু তার বাহিনী দিয়ে বিভিন্ন এলাকা থেকে আগত মাদক সেবীদের কাছে প্রকাশ্যে মাদক বিক্রি করে আসছে।

তাছাড়া মাদক কারবারী নান্টুর বিরুদ্ধে স্থানীয় সোনারগাঁও থানায় একাধিক মামলা চলমান থাকার পরও সে প্রকাশ্যে মাদক ব্যবসা করে যুব সমাজকে ধ্বংশের পথে নিয়ে যাচ্ছে। নারায়ণগঞ্জের পুলিশ সুপার জনাব জায়েদুল আলম পিপিএম এর কাছে এলাকাবাসীর আকুতি নিবেদন, অনতিবিলম্বে এই চিহ্নিত মাদক ব্যবসায়ী নান্টুকে গ্রেফতার করে যুবসমাজকে মাদকমুক্ত করুন।

Print Friendly, PDF & Email

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here

16 − 8 =