করোনা টিকা কেন্দ্রগুলোতে আনসারদের তান্ডব

0
330

করোনা টিকাদান কেন্দ্রগুলোতে টিকা গ্রহণকারীদের উপচে পরা ভির। এই টিকা নিতে আসা বিভিন্ন শ্রেণীর মানুষের সাথে প্রতিটি টিকা কেন্দ্রে আনসাররা ব্যাপক হয়রানি ও জুলুম করছে বলে অভিযোগ রয়েছে। বিশেষ করে সরকারী হাসপাতালগুলোতে দীর্ঘ লাইনে শৃঙ্খলা বজায় রাখার জন্য আনসার মোতায়েন করা হয়। কিন্তু প্রকৃতপক্ষে এই আনসাররা মানুষের সাথে সহযোগিতার পরিবর্তে অমানবিক আচরনের উদাহারণ সৃষ্টি করে সরকারী এই বাহিনীর ভাবমূর্তী নষ্ট করছে। অভিযোগ রয়েছে দীর্ঘ লাইনে না দাঁড়িয়ে অনেকে আনসার সদস্যদের সাথে টাকার বিনিময়ে চুক্তি করে লাইন ছাড়া টিকা নিয়ে দ্রæত চলে যেতে পারছেন। বিষয়টি নিয়ে গণমাধ্যমে বেশ কয়েকদিন স্বচিত্র প্রতিবেদন প্রকাশিত হয়। কিন্ত এর পরও সামলানো যাচ্ছে না আনসারদের। ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল, স্যার সলিমুল্লা মেডিকেল হাসাপতাল, পিজি হাসপাতাল সহ একাধিক হাসপাতালে একই টিত্র পাওয়া যায়। সংবাদ মাধ্যম টিকাদান কেন্দ্রগুলোর প্রতিবেদন তৈরি করার জন্য সেখানে গেলে আনসার সদস্যরা সংবাদ কর্মীদের সাথেও অসৌজন্যমূলক আচরন করে। এর আগে মুগদা হাসপাতালে করোনা পরীক্ষার জন্য আসা পুরুষ ও মহিলা সকলের সাথে আনসার সদস্যরা আপত্তিকর আচরন করে এমন কি গায়ে হাত তোলোর মত অপরাধ করেছে বলে গণমাধ্যমে প্রকাশিত সংবাদ থেকে জানা গেছে।

অধিকন্ত মুগদা হাসপাতালের স্টাফদের সাথে যোগসাজসে করোনার ভ‚য়া পজিটিভ ও নিগেটিভ রিপোর্ট তৈরি করে হাজার হাজার টাকা হাতিয়ে নেওয়ার ঘটনায় একাধিক আনসার সদস্যদের বিরুদ্ধে নিকটস্ত থানায় মামলা হয় বলে প্রকাশ। সম্প্রতি দৈনিক যুগান্তরের প্রথম পাতায় আনসার কর্তৃক টিকা প্রত্যাশীদের ওপর লাঠিপেটার স্বচিত্র প্রতিবেদন প্রকাশিত হয়।

সাংবদে জানা যায় রাজধানীর মহাখালী গ্যাস্ট্রোলিভার হাসপাতালে টিকা নিতে আসা ব্যক্তিরা ভোররাতে লাইনে দাঁড়ায়। বৃষ্টির কারণে তারা একটু ভেতরে ঢুকতেই আনসার সদস্যরা লাঠি নিয়ে এলাপাতারি আঘাত করতে থাকে। এই আঘাতে অনেক টিকাপ্রত্যাশী আহত হয়েছেন।

পুরান ঢাকার সর্বত্রই টিকা কেন্দ্রে আনসারদের একই অচরণ দেখা যায়। স্যার সলিমুল্লা মেডিকেল হাসপাতালে কর্তব্যরত আনসাররা প্রকাশ্যে টাকা নিয়ে লাইন ছাড়া একাধিক ব্যক্তিকে টিকা নিতে সহয়াতা করেছে মর্মে সেখানে এপর্যন্ত অনেক হৈচৈ ও প্রতিবাদ সৃষ্টি হয়।

লাইনে থাকা ভুক্তভোগীদের অভিযোগ কর্তব্যরত আনসরারা লোক বুঝে তিন শ থেকে এক হাজার টাকার বিনিময়ে লাইন ছাড়া একাধিক ব্যক্তিকে করোনা টিকা নিতে সহয়ায়তা করেছে। বিষয়টি নিয়ে গণমাধ্যমে এত প্রতিবেদন ও প্রতিবাদের পরও আনসারদের সদর দপ্তর কী কারণে ব্যবস্থা নিচ্ছে না তা নিয়ে জনমনে ক্ষোভ সৃষ্টি হচ্ছে।

প্রশ্ন হচ্ছে করোনার টিকা কি আনসারদেরকে অনৈতিক ব্যবসা করার লাইসেন্স দিয়েছে? ওদের লাগাম ধরতে না পারলে টিকা প্রত্যাশীরা হয়রানির শিকার হতেই থাকবে।

Print Friendly, PDF & Email

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here

9 − 6 =