৩ নংমৃগা ইউনিয়নের ১নং ওয়ার্ডের জনসাধারণ ২য় বারের মতো মেম্বার হিসেবে দেখতে চাই

0
360

ইটনার মৃগা ইউনিয়নের ১নং ওয়ার্ডের সর্বস্তরের জনসাধারণের একটাই দাবী আগামী ইউনিয়ন পরিষদে নির্বাচনে ২য় বারের মত পুনরায় ১নংওয়ার্ডে মেম্বার হিসাবে দেখতে চাই ১ নং ওয়ার্ডের আওয়ামীলীগের সভাপতি বিশিষ্ট  সমাজসেবক ও তরুণ সমাজের অহংকার মানবপ্রেমিক মো: মারজান মিয়া’কে। বর্তমান স্থানীয় ১নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য মারজান মিয়া এলাকার সকলের অান্তরিক দোয়া ও সহযোগীতা নিয়ে ২য় বারের মত পুনরায় এলাকাবাসীর সেবা ও উন্নয়নে কাজ করে যেতে চান। মৃগা ইউনিয়ন একটি গুরুত্বপূর্ণ ইউনিয়নে সকল শ্রেণীর শ্রমিকদের বসবাসরত ব্যস্ততম এলাকা। অত্র ইউনিয়ন টি গুরুত্বপূর্ণ এলাকা হওয়ায় ইউনিয়নের ১নং ওয়ার্ডের তুলনামূলক জনসংখ্যা অনেক বেশি। তাই এলাকাবাসী মনে করেন বর্তমান মেম্বার মারজান মিয়ার মত মেম্বারকে এই উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রাখতে দরকার বলে জানান এলাকাবাসীরা।

এলাকাবাসী আরো জানান, মারজান মেম্বারের আগে যে মেম্বার ছিলো তেমন কোন অবকাঠামোগত উন্নয়নের কাজ আমরা দ‌ে‌খে‌নি। বরং দীর্ঘ দিন যাবৎ অনেক কষ্ট অপেক্ষা করে জীবন-যাপন করে আসছে এলাকাবাসী ও এলাকার শত শত শ্রমিকসহ স্থানীয়রা। নাগারিক সুবিধার জন্য প্রয়োজনীয় ড্রেনেজ ব‌্যবস্থাসহ রাস্তা ও তেমন কিছু ছ‌ি‌লোনা। শ্রমিকসহ স্থানীয়দ‌ের এই দু‌র্বিসহ জীবন ব‌্যবস্থা দ‌ে‌খে গত ইউপি নির্বাচ‌নে ইউ‌পি সদস‌্য হি‌সেবে অংশ গ্রহন ক‌রে জয় লাভ ক‌রেন মুহাম্মদ মারজান মিয়া। 

মুহাম্মদ মারজান মিয়া গত নির্বা‌চিত হওয়ার পর থেকে এলাকায় বিভিন্ন রাস্তাঘাট সহ অব‌কাঠামোগত ব‌্যাপক উন্নয়ন কাজ করেছেন। তাই এলাকাবাসী ম‌নে কর‌ছেন আগামী ইউ‌পি নির্বাচ‌নেও ৩ নং মৃগা ইউনিয়ন পরিষদের ১নং ওয়ার্ডে মেম্বার হিসাবে আমরা আবারো মুহাম্মদ মারজান মিয়া’কে আমাদের মূল্যবান ভোট দিয়ে নির্বাচিত করবো ইনশা-আল্লাহ্।

মৃগা ইউনিয়নের ১নং ওয়ার্ডে সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, ওয়ার্ডের ছোট-বড় যে সমস্ত রাস্তা ড্রেনেজ ব্যবস্থা করেছেন এলাকাবাসী বলেন মারজান মেম্বারের কোন তুলনা হয় না।মৃগা ইউনিয়ন ১নং ওয়ার্ডের স্থানীয় এক  লোক বলেন, মারজান মেম্বার হওয়ার পরথেকে রাস্তাঘাটের অনেক উন্নয়নমূলক কাজ করেছে তাতে আমরা গর্বিত। তিনি আরো বলেন, মারজান মেম্বার যদি এবারেও মেম্বার প্রার্থী হিসেবে দাঁড়ায় তাহলে আমরা আবারো এলাকাবাসী মিলে ভোট দিয়ে নির্বাচিত করবো।

এদিকে ১নং ওয়ার্ডের এক দিনমজুর বলেন, আমাদের ৬নং ওয়ার্ডের মেম্বার মালেক ভাইয়ের এর সার্বিক সহযোগিতা ছাড়া আমি চলতে পারি না, তার মতো মহত্ব মেম্বার আমি কখনোই দেখি নাই। করোনা ভাইরাস এর সময়েও বর্তমান সরকারের পাশাপাশি তার নিজস্ব অর্থায়ন থেকে গরীব দুঃখী মানুষেকে অনেক কিছুই দিয়েছে আমি তার কাছ থেকে চাল, ডাল অনেক কিছু নিয়ে আমার ছেলে মেয়েকে খাওয়াইছি, যা ভাষায় প্রকাশ করার মতো না, বড় দুঃখের বিষয় হল এর আগের যে মেম্বার ছিলো তার কাছথেকে কোনদিন সহযোগিতা পাই নাই।

মারজান  মেম্বার একজন সহজসরল ভালো ছেলে।  আমরা তাকে অত্যন্ত ভালো একজন মানুষ হিসাবে জানি। কিছু না দিতে পারলেও যে একটা হাসি দিয়ে কথা বলে তাতেই আমরা খুশি।

এদিকে স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, মারজান ইউ‌পি সদ‌স্যের দায়িত্ব পাওয়ার পরথেকে এলাকায় সন্ত্রাস, চাঁদাবাজী, মাদক ও  বিভিন্ন ধরনের অপরাধ দূর করতে কর্মীদের নিয়ে নিঃরলস পরিশ্রম করে যাচ্ছেন। তাই এই ওয়ার্ড বাসীর বিশ্বাস তারই পক্ষে সম্ভব সন্ত্রাস, চাঁদাবাজী, মাদক ও ভূ’মিদূস্যতাসহ বিভিন্ন ধরনের অপরাধ পুরোপুরি নিয়ন্ত্রণে রেখে পিছিয়ে পড়া মানুষদের ভাগ্যের দ্রুত উন্নয়ন ঘটানো সম্ভব।

এদিকে এলাকার এক চায়ের দোকানে বসা ৭০ বছরের একজন মুরুব্বী বলেন, আমাদের ১নং ওয়ার্ডের মারজান  মেম্বার  নম্র, ভদ্র অনেক ভালো ছেলে। তাকে ছাড়া বিকল্প কোন মেম্বার এখানে আমাদের দরকার নেই। ছোট্ট এই ছেলেটি মেম্বার হওয়ার পরথেকে সাধারন মানুষের ডাকে প্রতি মুহুর্তে সাড়া দিয়েছে।তিনি এই ওয়ার্ডে অনেক উন্নয়নমূলক কাজ করেছে। অনেক গরীবদেরকে সাহায্য সহযোগীতা করেছে। আমরা তাঁর কাছে কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করছি।

এ ব্যাপারে ১নং ওয়ার্ডের বর্তমান মেম্বার মুহাম্মদ মারজান  বলেন, বর্তমান বাংলাদেশ সরকারের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার পক্ষথেকে  কিশোরগঞ্জ ৪ আসনের মাননীয় সংসদ সদস্য প্রকৌশলী রেজওয়ান আহমেদ তৌফিক  এমপি মহোদয়ের ঐকান্তিক প্রচেষ্ঠায় মৃগা ইউনিয়নের ১নং ওয়ার্ডের রাস্তাঘাট সহ বিভিন্ন ধরণের উন্নয়নমূলক কাজ করেছি। আগামী নির্বাচনেও যদি আমাকে এলাকাবাসী ভোট দিয়ে নির্বাচিত করে আমি তাদের জন্য এবং এলাকার স্বার্থে বাকি যে কাজ রয়েছে তা সবগুলো সমাপ্ত করবো ইনশা-আল্লাহ্।

মৃগা ১নং ওয়ার্ড বর্তমান ইউপি সদস্য মুহাম্মদ মারজান মিয়া ওয়ার্ডের জনসাধারণের আন্তরিক দোয়া,ভালোবাসা ও সহযোগীতা কামনা করেছেন।

Print Friendly, PDF & Email

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here

4 × two =