কিশোরগঞ্জে অগ্নিকাণ্ডে গবাদিপশুসহ বসতবাড়ি পুড়ে ছাই, ২৫ পরিবার সর্বশান্ত

0
277

ব্যুরো চীফ, রংপুরঃ নীলফামারীর কিশোরগঞ্জ উপজেলার নিতাই ইউনিয়নের তেলিপাড়ায় অগ্নিকান্ডে ২৫ পরিবারের গবাদী পশু- পাখীসহ সব কিছু পুড়ে ছাই। ৩১ মার্চ /২২ বুধবার রাত সারে তিনটার দিকে মনোয়ারের লতিবারের গোয়ালঘরে জালানো মশা নিধনের কয়েল থেকে আগুনের সূত্রপাত ঘটে। আগুন দাউ দাউ করে জ্বলে উঠে মুহূর্তের মধ্যেই চতুর্দিকে ছড়িয়ে পড়ে। রান্নার কাজে ব্যবহৃত ঘরে থাকা গ্যাস সিলিন্ডার বিকট শব্ধে বিস্ফুরিত হয় ও আগুন ভয়াবহ রুপ নেয়। আগুন আগুন বাঁচাও বাঁচাও শোরগোল শুনে ঘুমন্ত লোকজন দ্রুতগতিতে ঘর থেকে বেরিয়ে প্রাণে বেঁচে গেলেও লতিবারের তিনটি গরু ২টি ছাগল, ফজলের ২ টি গরু, ফতেমার ১ টি গরু, আশরাফের ২ টি ছাগল, মমিনের ১ টি, জাদুর ১৩ টি,তাজুলের ১টি ছাগল প্রায় শ খানেক হাস- মুরগী পুড়ে ছাই। 

ওই ওয়ার্ড মেম্বার বাছেদুল জানান, আগুনে যাদের গবাদিপশুসহ বসতবাড়ি পুড়ে ছাই হয়েছে তাদের মধ্যে ২/১ জন স্বচ্ছল ব্যক্তি ছাড়া বাকী সবাই দিনমজুর। আগুনের তীব্রতায় ঘর থেকে কোন কিছুই উদ্ধার করা সম্ভব হয়নি। পরিবারগুলো সব হারিয়ে একেবারে নিঃস্ব হয়ে গেছে। 

সরেজমিনে পরিদর্শন শেষে  ব্যুরো চীফ, রংপুর মোঃ রউফুল আলম জানান, এই অগ্নিকান্ডের ঘটনায় ২৫/২৬ টি পরিবারের প্রায় ৮০ লাখ টাকার ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে বলে জানতে পারেন।

এ ব্যাপারে কিশোরগঞ্জ ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স-এর ভারপ্রাপ্ত স্টেশন অফিসার মোঃ রাশেদুল হক জানান, বৈদ্যুতিক তার থেকে আগুনের সূত্রপাত। তারা আগুন নিয়ন্ত্রণে আনেন এবং কয়েকটি পরিবারের বসতবাড়ি রক্ষা করেন।  আজ দুপুর ১ টার সময় উপজেলা নির্বাহী অফিসার নুরে আলম সিদ্দিকী আগুনে পুড়ে যাওয়া বসতবাড়ী পরিদর্শন করেন। ক্ষতিগ্রস্তদের খোঁজ খবর নেন। ক্ষতিগ্রস্থ্যদের মাঝে শুকনো খাবার বিতরণ করেন। ওই সময় সাথে ছিলেন, উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা, কিশোরগঞ্জ। 

Print Friendly, PDF & Email

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here

1 × three =