চিকলী নদী থেকে বালু উত্তলন ও বিক্রয় আসাদ মাস্টারের রমরমা ব্যবসা

0
98

বদরগঞ্জ প্রতিনিধি : ভুমিদস্যু, চাদাবাজ, মাদক, প্রতারকদের কালো অস্তানে ঢাকা কুৎসিত মূখ জাতীর দৃষ্টি নন্দীত করিতে অপরাধ বিচিত্রার খুরধার লেখা অদম্য ধাবমান।রংপুর জেলা বদরগঞ্জ উপজেলা ধোলাইঘাট বাজারের পাশ দিয়ে বয়ে যাওয়া বহমান চিকলী নদীগর্ভ থেকে বালু উত্তলন ও রমরমা ব্যবসায়ী দিলালপুর দর্জিপাড়ার আসাদুজ্জামান আসাদ মাস্টারের বিরুদ্ধে উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভ’মি) ও নির্বাহী কর্মকর্তা বদরগঞ্জ উপজেলায় অভিযোগ করা হয়েছে বলে প্রকাশ। এদিকে অপরাধ বিচিত্রার অনুসন্ধানে তারাগঞ্জ উপজেলার ১নং আলমপুর ইউনিয়ন, পাড়ঘাটের পাড় চিকলী নদী হইতে ঠিকাদার আতিয়ার রহমান সে থানা আওয়ামীলীগ সভাপতি পদে থাকায়, দলীয় প্রভাবে উল্লেখিত স্থান হইতে ভেকু দ্বারা বালু উত্তলন করিয়া ঠিকাদারী ব্যবসায় টাকা সাস্রয় করিতেছে। এ দিকে আসাদ মাস্টারের পি,এস খ্যাত পচা সর্দারের ছেলে হামিদুর সর্দার ভেকু দিয়ে রাত্রে দশ চাকার ড্রাম গাড়ি ও দিনে ট্রাক্টর, ট্রলির মাধ্যমে বালু বহন করিয়া আসাদ মাস্টারের রমরমা ব্যবসা চালু রেখেছে।

 এলাকারবাসী সুত্রে জানা যায়, আসাদ মাস্টারের পি,এস খ্যাত হামিদুর সর্দার সে একজন গাঁজা ব্যবসায়ীও বটে। এমতাবস্থায় এর পরিচালনায় আর কিছুদিন বালু অবাধে উত্তলন করিতে থাকিলে নদীটির গতিপথ পরিবর্তন হবে এবং ধোলাইঘাট কামারপাড়া চিকলী নদীর তীরবর্তী ২০/২১ অর্থবছরে মনোরম পরিবেশে স্থাপিত গুচ্ছ গ্রামটি হুমকির সম্মুক্ষিন হবে। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক সয়ার, চকতাহিরা ও দিলালপুরের স্বনামধন্য পরিবারের কয়েকজন ছেলে এই অবৈধ্য, ধংসাত্তক গনসর্বনাসী ব্যবসাটির সাথে জরিত থাকায় পানি উন্নয়ন বোর্ডকে একধিকবার, বদরগঞ্জ উপজেলা প্রশাসনে অভিযোগ করা সত্তেও কোনো প্রতিক্রিয়া না হওয়ায় সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাগন প্রভাবশালীদের বশীভ’ত করন হয়েছে বলে একাবাসীর মন্তব্য।

Print Friendly, PDF & Email

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here

four + twelve =