❝ নিজের ব্যাধিগ্রস্ত অন্তরের জন্য নাসীহাহ ❞

0
265

❝একদিন ঈসা আ. এর সাথে ইবলিসের দেখা হয়। ইবলিস তাঁকে বললো, ‘এটা কি সত্যি নয় যে, তাকদীরে যা লেখা আছে কেবল তা-ই ঘটবে?’

ঈসা আ. বললেন ‘এটা সত্য’।

এবার ইবলিস বললো, ‘তাহলে ঐ পাহাড়ের চূড়ো থেকে লাফ দিন এবং আমাদেরকে দেখান যে- আপনি বেঁচে থাকেন নাকি মরে যান।’

ঈসা আ. বললেন, ‘গোলাম কখনো তার মালিককে পরীক্ষা করে না। বরং পরীক্ষা তো নেয় সে-ই যে মালিক।❞

·

আবু নুয়াঈম আল ইসফাহানী এই ঘটনা বর্ণনা করেন৷ ইদানীং আমাদের একটা বড়ো রোগ, আমরা রব্বকে পরিক্ষা করতে যাই। ইসলামের যত বিধিনিষেধ সব বিজ্ঞানের আলোকে, যুক্তির আলোকে যাচাই করতে যাই। আমরা ভুলে যাই, বান্দার কাজ পরীক্ষা  নয়। বরং রব্বের শর্তহীন আনুগত্য এবং এরই মধ্যে কল্যাণ নিহিত।

·

ইমাম আহমাদ  ইবনে হান্বাল রহ. ঈসা আ. এর ব্যাপারে আরও একটা ঘটনা বর্ণনা করেনঃ-

❝ঈসা আ. পানির উপর হাঁটতে পারতেন। হেঁটে হেঁটে জলযান ছাড়াই নদী পার হতে  পারতেন। একদিন এক ব্যক্তি তাঁকে জিজ্ঞেস করলেন, ‘আপনি ডুবে যাওয়া ছাড়াই কি  করে পানির উপর হাঁটতে পারেন?’

ঈসা আ. বললেন, ‘ঈমানের বলে।’

অন্য একজন জবাব দিল, ‘আমাদেরও তো ঈমান রয়েছে।’

এবার ঈসা আ. বললেন, ‘তোমাদের চোখে কি পাথর, বালু, কাঁদা এবং সোনা একই?’

তারা বললো, ‘কখনোই নয়।’

এবার ঈসা আ. বললেন, ‘কিন্তু আমার চোখে সবই সমান। কোনটারই মূল্য নেই।❞

·

এই যে, দুনিয়াকে উপেক্ষা, এরমধ্যেই প্রকৃত কল্যাণ নিহিত। দুনিয়াকে দিয়ে দ্বীনকে যাচাই করার মধ্যে নয়।

·

ঈসা আ. বলেন, ❝একইসঙ্গে এক হৃদয়ে দুনিয়া ও পরকালের প্রতি ভালোবাসা থাকতে পারে না। যেভাবে একই গর্তে আগুন কিম্বা পানি একত্রে থাকতে পারে না।❞

·

আমাদের দুনিয়াপ্রীতি আদতে এত প্রখর যে, দুনিয়াই আমাদের কাছে মূখ্য হয়ে  উঠেছে। আমরা তো ক্যারিয়ারের চিন্তায় অস্থির, ব্যাকুল। ডিপ্রেসড থাকি সবসময়।

·

ঈসা আ. বলছেন, ❝যা কিছু করো, আল্লাহর জন্য করো। কেবলই নিজের পেটের  চিন্তায় অস্থির হয়ো না। পাখিদের দিকে দেখো, তারা সকালে উঠে এবং সন্ধ্যায় পূর্ণোদরে ফিরে যায়। না তারা বীজ বুনে, না ফসল ফলায়। কিন্তু আল্লাহ আহারের ব্যবস্থা করেন।

যদি তোমরা বলো, পাখিদের থেকে তোমাদের পেট বড়ো। তাহলে  গরু, বুনো মহিষ আর হাতিদের দিকে দেখো। তারা না চাষ করে, না ফসল ফলায়। তবুও  তো আল্লাহ তাদের ক্ষুধার্ত রাখেন না।

পৃথিবীর বিলাস থেকে সাবধানে থেকো। দুনিয়ার এই বিলাস, চাকচিক্য আল্লাহর কাছে নোংরা বস্তুর শামিল❞

Print Friendly, PDF & Email

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here

20 + 19 =