কুমিল্লায় বেপরোয়া পূর্বাঞ্চলের অস্ত্রধারী সন্ত্রাসী আজহার বাহিনী

0
107

মুহাম্মদ জুবাইর: কুমিল্লা আদর্শ সদর পাঁচ নং পাচথুবি ইউনিয়ন শুভপুর শেখ কামাল স্টেডিয়ামের সামনে আজহার বাহিনীর মাদক, অস্ত্র ও সন্ত্রাসী কর্মকান্ডে অতিষ্ঠ এলাকাবাসী।

সরজমিন অনুসন্ধানে জানা যায়, চুরি, ছিনতাই, চাঁদাবাজি, নারী-নির্যাতন, মাদক ও অস্ত্র ব্যবসাসহ বিভিন্ন অসামাজিক কর্মকাণ্ডের কারনে চানপুর হারুন স্কুলের সামনের এলাকাবাসী ২০০৩ সালে জেলা পুলিশ সুপার বরাবর লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন। এরপর স্থানীয় এলাকাবাসী ঐক্যবদ্ধ হয়ে প্রতিবাদ করলে তৎকালীন সময়ে আজহারসহ তার পুরো পরিবারকে সামাজিকভাবে বয়কট করার পর। শুভপুর গোমতীর বাধ দখল করে নতুনভাবে আস্তানা গড়ে তুলেন। এখানে নিজের অস্তিত্ব জানান দিতে রঞ্জু মিয়া নামক এক চা দোকানির বাড়িতে হামলা ও লুটপাট শেষে রঞ্জু মিয়ার বাম হাতের রগ কেটে দেয়।

এই ঘটনার পর আজহার শুভপুর, ডুমুরিয়া চানপুর, টিক্কারচর সহ আশপাশ এলাকার উঠতি বয়সের যুবকদের নিয়ে গড়ে তুলেন একাধিক অস্ত্রধারি সন্ত্রাসী বাহিনী। এই বাহিনীর মাধ্যমে মদ, বিয়ার, ফেনসিডিল, ইয়াবা, মোবাইল, অস্ত্র ও গাঁজা পাচার ছাড়াও এলাকায় আধিপত্য বিস্তার করে বিভিন্ন বাড়িতে চাঁদাবাজি ও শেখ কামাল স্টেডিয়াম এলাকায় ছিনতাই করিয়ে থাকেন। আজহার বাহিনী এতোটাই বেপরোয়া যে, প্রশাসনের লোকদের উপর হামলা করতেও পিছপা হন না।

আজহারের মা তাহেরা বেগম এলাকায় একজন মামলাবাজ মহিলা হিসেবে চিহ্নিত। এলাকার সম্মানিত ব্যক্তিদের টার্গেট করে মিথ্যা মামলা দিয়ে মোটা অংকের টাকা আদায় করার একাধিক অভিযোগ রয়েছে তার বিরুদ্ধে। 

স্থানীয় সূত্র নাম প্রকাশ না করার শর্তে এই প্রতিবেদককে জানান, আজহার কুমিল্লা জেলার চান্দিনা উপজেলায় বিয়ে করেন সেই স্ত্রী কে দিয়ে অবৈধ কাজ করাতে ব্যর্থ হয়ে উলঙ্গ করে প্রতিনিয়ত পিটাতেন। একটা সময় ওই মহিলা তার অত্যাচারের হাত থেকে নিজেকে রক্ষা করতে বাপের বাড়ি চলে যায়। শুভপুরের হতদরিদ্র এক এতিম ১৩ বছর বয়সী কিশোরীকে জোর করে বিয়ে করে সংসার করছেন।

সূত্রমতে ২০১৫ সালের ১৬ আগষ্ট স্থানীয় নাদিম বাহিনীর সাথে আজহার বাহিনীর ব্যাপক গোলাগুলির ঘটনা ঘটে। এসময় মায়ের কোলে থাকা শিশু হৃদয় গুলিবিদ্ধ হয়। যা তৎকালীন সময়ে তুলপাড়ের সৃষ্টি হয়।

সূত্রমতে আজহারের প্রতিবেশি প্রতিবন্ধী রোমা আক্তার (১৬) এর নিকট সুদের টাকার দাবিতে বাড়ি ঘরে হামলা চালান। এ ঘটনায় রোমা বাদী হয়ে কোতয়ালি মডেল থানায় একটি অভিযোগ করেন।

নাম প্রকাশ্যে অনিচ্ছুক সূত্র জানান, গত ৩০ অক্টোবর ২০২৩ ইং রাতে এলাকায় আতংক সৃষ্টি করে নিজেদের অবস্থান জানান দিতে আজহার ও তার সঙ্গীয় আরিফের নেতৃত্বে কয়েক রাউন্ড গুলিবর্ষণের ঘটনা ঘটে। যা সরাসরি সংবাদ টিভিতে লাইভ সম্প্রচার করা হয়। 

এই প্রসঙ্গে সংবাদ টিভির প্রতিবেদক জুয়েল খন্দকারের সাথে মুঠোফোনে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, আমি ঢাকায় থাকি ঘটনার দিন আমার কুমিল্লার বাড়িতে ছিলাম। টিক্কারচর থেকে চানপুর ব্রীজের দিকে রওয়ানা হলে লোকমুখে শুনি “শেখ কামাল স্টেডিয়াম এলাকায় গোলাগুলি ঘটনা ঘটে। আমি ঘটনাস্থলে গিয়ে দেখি গোলাগুলি শেষ তখন স্থানীয় এক যুবক আমাকে গুলির খোসা দেখায়। আজহারে এখানে অনেক দেশীয় অস্ত্রসস্ত্র দেখে আমার মোবাইল থেকে সংবাদ টিভিতে লাইভ করি পরে স্থানীয়দের সাথে কথা বলে জানতে পারি শুভপুরের আজহার এলাকায় আতংক সৃষ্টি করতে তার সঙ্গীয় আরিফের নেতৃত্ব একাধিক গুলিবর্ষণের ঘটনা ঘটায়।

এছাড়াও শুভপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ৫ম শ্রেণীর ছাত্রী (১২) কে স্কুল যাওয়ার পথে জোরপূর্বক আজহারের ভাতিজা আবুল মিয়ার পুত্র অপহরণের পর ওই ছাত্রীর ইচ্ছের বিরুদ্ধে টানা ৫মাস অন্য স্থানে রেখে ধর্ষণ করেন। হতদরিদ্র ওই মেয়ের পরিবার থানায় অভিযোগ দায়ের করার পর আজহার মেয়ের বাবাকে জানান যে মামলা করে লাভ নেই ওদের বিয়ে হয়ে গেছে। এরপর ওই ছাত্রীকে ৫ মাস পর পিত্রালয়ে পাঠানো হলে ছাত্রী জানান কোনো প্রকার বিয়ে হয়নি। দরিদ্র পিতা মেয়ের ইজ্জৎ নষ্ট করার বিচারের দাবি করে হুমকির মুখে স্ট্রোক করে মারা যান।

সূত্রমতে আজহার বিভিন্ন ধর্নাঢ্য পরিবারের ছেলেদের টার্গেট করে আজহারের স্ত্রীসহ সুন্দরী নারীদের দিয়ে ফাঁদ পেতে কৌশলে মোটা অংকের টাকা আদায় করে থাকেন। আজহারের বিরুদ্ধে একাধিক মামলা আদালতে চলমান থাকলেও অদৃশ্য শক্তির কারনে আজহারের টিকটিকির নাগালও পাচ্ছে না কেউ।

অনুসন্ধানে আরও  জানা যায়,

গত ২৮ ডিসেম্বর ২০২৩ ইং নগরীর ৪ নং ওয়ার্ডের সাবেক কাউন্সিলর মোসলেম উদ্দিনের ছেলে কুমিল্লা সিটি করপোরেশনের কর্মকর্তা সাদির আল রাশিদের মোটরসাইকেল গতিরোধ করে মোবাইল এবং টাকা পয়সা ছিনিয়ে নেয় এবং ব্যাপক তাকে ব্যাপক মারধর করে।

Print Friendly, PDF & Email

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here

three × 1 =