আমাকে ফাসিঁ দিন দুঃখ নেই ‘লাশটি বাঙ্গালীর কাছে দিবেন’ শোক দিবসে ভোলায়- শান্ত

0
474

আল-আমিন এম তাওহীদ ভোলা প্রতিনিধি ॥ বাঙ্গালী জাতির হৃদয়ের স্পন্দন, হাজার বছরের শ্রেষ্ঠ বাঙ্গালী জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান দীর্ঘ ৯ মাস পাকিস্তান জেলে কারাবন্দি ছিলেন। যখন বঙ্গবন্ধুকে পাকিস্তান বাহিনীরা গ্রেফতার করে নিয়ে যায়। তখন বঙ্গবন্ধুকে ওই হায়নার দলেরা বলেছিলো তোমাকে হত্যা করে ফেলবে। বঙ্গবন্ধু তখনি বলেন আমাকে ফাসিঁ দিন আর হত্যা করেন কোন দুঃখ নেই। তবে আমার লাশটি বাঙ্গালীর কাছে হস্তান্তর করবেন বলে মন্তব্য করেছেন, অর্থনীতিবিদ ড. আশিকুর রহমান (শান্ত)।
১৫আগস্ট মঙ্গলবার দুপুরে ভোলা শহরের গোরস্থান জামে মসজিদে জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষ্যে বঙ্গবন্ধু ও তার নিহত পরিবারের রুহের মাগফিরাত কামনায় আয়োজিত দোয়া ও মোনাজাত অনুষ্ঠানে তিনি এসব কথা বলেন।
এসময় তিনি আরো বলেন, বঙ্গবন্ধুর একটাই স্বপ্ন ছিলো দেশের বাঙ্গালী জাতিকে নিয়ে দিন কাটাবেন। এই বাংলাদেশকে সোনার দেশে রুপান্তরিত করা। কিন্তু ১৫আগস্ট ১৯৭৫ সাল কালরাত্রিতে বঙ্গবন্ধুর স্ব-পরিবারকে হত্যা করে একদল সন্ত্রাস হায়নার গোষ্ঠী। তারা চেয়েছিলো বঙ্গবন্ধুকে হত্যা করে এই দেশকে মাটির সঙ্গে মিশিয়ে দিবে। খুনিরা যদি ১০বছরের একটি শিশুকে হত্যা করতে পারে এবং ২মাসের একজন গর্ভবতী নারীকে যদি হত্যা করতে পারে। তাহলে তারা এই দেশের বাঙ্গালী জাতিকে ধ্বংশ করবে না এটার বিশ্বাস কি আছে?। এগুলো খুনিদের কাছে কোন ব্যাপার মনে হয়নি। খুনিরা চেয়েছিলো চিরতরে বাঙ্গালী জাতির ইতিহাস আর ঐতিহ্য ধুলিশ্বর করে দেয়াই মূল লক্ষ্য ছিলো বঙ্গবন্ধুর হত্যাকারীদের। কিন্তু  মহান সৃষ্টিকর্তার রহমতে তা বাস্তবায়ন করতে পারেনি। বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নে দেখা সেই সোনার বাংলা আজ প্রতিষ্ঠিত হয়েছে। বঙ্গবন্ধুর দেহকে মাটিতে রেখেছে কিন্তু তার স্বপ্ন আর আদর্শ মাটিতে রাখতে পারেনি। বঙ্গবন্ধুর সেই সোনার বাংলাদেশ আজ সোনায় পরিনত হয়েছে। বঙ্গবন্ধুর কন্যা বাংলার উন্নয়নের আরেকটি নাম জননেত্রী শেখ হাসিনা আজ তা বাস্তবায়ন করেছে বাবার রেখে যাওয়া কথা আর আদর্শ।
মাওলানা মাহাবুবের সভাপতিত্বে, এসময় উপস্থিত ছিলেন, ভোলা জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি মোসতাক আহম্মেদ শাহিন। আলেম ওমালা, ব্যক্তিবর্গ, প্রিন্ট ইলেকট্রনিক মিডিয়ার সাংবাদিকবৃন্দ ও সাধারণ জনগনসহ অন্যন্যরা প্রমূখ।

Advertisement
Advertisement

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here