ইয়াবা দিয়ে ফাঁসানোর অভিযোগে জনরোষে ৩ ডিবি পুলিশ

0
1351

ইয়াবা দিয়ে দুই ব্যক্তিকে ফাঁসানোর চেষ্টা করার অভিযোগে জনরোষের শিকার হয়েছেন গোয়েন্দা পুলিশের (ডিবি) তিন সদস্য। ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের হস্তক্ষেপে তারা উদ্ধার হয়েছেন। এ ঘটনায় মামলার প্রস্তুতি নিচ্ছে পুলিশ। গত মঙ্গলবার বিকালে খুলনার ডুমুরিয়া উপজেলার শাহাপুর বাজার-সংলগ্ন পাকা কবর এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

Advertisement

পুলিশের ভাষ্যমতে, জেলা গোয়েন্দা শাখার এসআই আবু সাইদ, এএসআই আবু সালেহ ও এএসআই শাহাজুল ইসলাম উপজেলার শাহাপুর বাজার-সংলগ্ন পাকা কবর এলাকায় চেকপোস্ট বসিয়ে তল্লাশি করছিলেন। এ সময় ইয়াবা পাওয়ায় সুমন গাজী ও শামীম গাজী নামে দুজনকে আটক করা হয়। খবর পেয়ে স্থানীয় রঘুনাথপুর ইউনিয়নের ৬নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য ইলতুত খান তাদের ছেড়ে দিতে বলেন। কিন্তু পুলিশ না ছাড়লে ইলতুত লোক এনে ডিবি সদস্যদের অবরুদ্ধ করেন।

তবে প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, সুমন গাজী ও শামীম গাজী গ্যারেজে বসা ছিলেন। ডিবির টিম তাদের পকেটে ইয়াবা দিয়ে হ্যান্ডকাফ পরিয়ে টাকা দাবি করে, না হলে আটক করার হুমকি দেয়। এ সময় লোকজন জড়ো হয়ে তাদের অবরুদ্ধ করে।

ইউপি সদস্য ইলতুত খান দাবি করেন, সুমন আগে মাদক সেবন করতেন, কিন্তু এখন করেন না। আর শামীম তার চাচাতো ভাই।  ডিবির লোকেরা ইয়াবা দিয়ে তাদের আটকের চেষ্টা করলে স্থানীয়রা ঘেরাও করে প্রতিবাদ জানায়।

সুমন অভিযোগ করেন, মাদক মামলায় গ্রেফতারের ভয় দেখিয়ে ডিবির এই কর্মকর্তারা কয়েকদিন আগে তার কাছ থেকে ৩০ হাজার টাকা নিয়েছে। টাকার দাবিতে আবার তাকে ইয়াবা দিয়ে আটকের চেষ্টা করে। তবে অভিযোগ অস্বীকার করে ডিবির এএসআই শাহাজুল ইসলাম এ প্রতিবেদককে বলেন, সুমন গাজী ও শামীম গাজীকে থামতে সিগনাল দেয়া হলে শামীম দুই পিস ইয়াবা গিলে ফেলেন। সুমনের কাছ থেকে দুই পিস উদ্ধার করা হয়। খবর পেয়ে ইলতুত খান লোকজন নিয়ে এসে শামীমকে ভাই দাবি করে ছেড়ে দেয়ার অনুরোধ করেন। কিন্তু অনুরোধ না রাখায় তাদের মোটরসাইকেলের চাবি কেড়ে নিয়ে অবরুদ্ধ করা হয়।

ডুমুরিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা সুকুমার বিশ্বাস বলেন, ঘটনাস্থলে গিয়ে তিনি জানতে পারেন ইয়াবাসহ দুজনকে আটক করা হয়েছে। হট্টগোলের মধ্যে সুমন নামে একজন মাদক ব্যবসায়ী পালিয়ে গেছেন। আটক শামীম গাজী জিজ্ঞাসাবাদে এক পিস ইয়াবা গিলে ফেলার কথা স্বীকার করেছেন।

ডিবি কর্মকর্তাদের অবরুদ্ধ করার প্রশ্নে ইলতুত খান ভুল স্বীকার করেছেন দাবি করে ওসি বলেন, আটক শামীম গাজী ও পলাতক সুমন গাজীকে আসামি করে মামলার প্রস্তুতি চলছে। আর ইউপি সদস্যের ভূমিকার বিষয়ে ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের সঙ্গে আলাপ করে পদক্ষেপ নেয়া হবে।

Advertisement

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here