কাউখালীজুড়ে ইটভাটায় পাহাড় কাটার মহো উৎসব

0
606

ইটভাটার মাটির জোগান দিতে পুরো কাউখালীজুড়ে চলছে পাহাড় কাটার মহোৎসব। উপজেলার ব্রিকফিল্ডপাড়া হিসেবেখ্যাত সুগারমিল আদর্শ গ্রাম, গাড়িছড়া, তারাবনিয়াসহ আশপাশের অন্তত ১০ ইটভাটায় দিন রাত প্রকাশ্যে এসব পাহাড় নিধন চলছে।
গোপন সংবাদের ভিত্তিতে ২১ অক্টোবর বেলা ১২টায় ভ্রাম্যমাণ আদালত অভিযান চালিয়ে তিনব্যক্তিকে পাহাড় কাটাসহ ভিন্ন ভিন্ন অপরাধে দ-িত করে। রাঙ্গামাটি জেলা প্রশাসক কার্যালয়ের নেজারত ডেপুটি কালেকটর (এনডিসি) মো. ফারুক সুফিয়ান এ অভিযান পরিচালনা করেন। দ-প্রাপ্তরা হলেন, আবুল বশর (৩৫), নাসের হুসেন (৪৬), হোসেন আহাম্মদ (৫৯)। এদের মধ্যে আবুল বশর ও নাসের হুসেন ড্রাইভারকে পাহাড় কেটে ইট তৈরীর কাজে অবৈধভাবে মাটি মজুদের দায়ে ৩ মাসের বিনাশ্রম কারাদ- এবং ইউবিএম ইট ভাটার ম্যানেজার হোসেন আহাম্মদকে সরকারি সম্পদ ধ্বংস করে পাহাড় কাটার দায়ে ১ বছরের বিনাশ্রম কারাদ- দেয়া হয়। এছাড়াও নিয়মবহির্ভূতভাবে ধারণ ক্ষমতার বাইরে ইট বহন করে রাস্তার ক্ষতিসাধন করায় ৬টি ট্রাকের প্রায় সাত হাজার ইট নিলাম দেয়া হয়। জব্দ করা হয়েছে ইটভাটা ইউবিএম ও কেবিএম’র ৪টি মাটি কাটার স্কেভেটর। ইটভাটার শ্রমিক ও স্থানীয়রা জানান, জেবিএম ইটভাটার মালিক পাইথুই অং মারমা প্রকাশ পার্থিক বাবু, ইউবিএম’র মালিক রিদোয়ান, কেবিএম’র মালিক ছৈয়দ কোম্পানি ও দিদার কোম্পানি ব্যাপকহারে পাহাড় কেটে সাবাড় করে চলেছেন। এদিকে ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযানের খবরে ইটভাটাগুলোর মালিক ও ব্যবস্থাপকেরা আগেই সটকে পড়ে।
কাউখালী থানার এস,আই জাকির জানিয়েছেন, দ-িতদের রাঙ্গামাটি জেলা কারাগারে প্রেরণ করা হয়েছে।
উপজেলার সুগারমিল আদর্শ গ্রাম, গাড়িছড়া, ডাক বাংলো, তারাবনিয়া, মাঝের পাড়াসহ আশপাশের অন্তত ১০ ইটভাটায় গত একমাস ধরে পাহাড় কাটার মহোৎসব চলছে। সরজমিন ঘুরে দেখা যায়, প্রতিটি ইটভাটায় দু’ থেকে চারটি পর্যন্ত স্কেভেটর মজুদ রাখা হয়েছে। এসব মাটি কাটার যন্ত্র দিয়ে নিমিষেই কেটে ফেলা হচ্ছে কালের সাক্ষী পরিবেশের অন্যতম ধারক এসব পাহাড়। রাতদিন প্রকাশ্যে এসব পাহাড় কেটে প্রতিটি ইটভাটার জন্য মজুদ করা হচ্ছে মাটি।
রাঙ্গামাটির এনডিসি মো. ফারুক সুফিয়ান সাংবাদিকদের জানান, এ অভিযান অব্যাহত থাকবে। সরকারি সম্পদ নষ্টকারীরা যত ক্ষমতাধরই হোক তাদের ছাড় দেয়া হবে না।
কাউখালী উপজেলা নির্বাহী অফিসার আফিয়া আখতার জানান, অবৈধ ইটভাটা ও পাহাড় নিধনকারীদের বিরুদ্ধে সামনের দিনগুলোতে আরো কঠোর অভিযান পরিচালনা করা হবে।

Advertisement
Advertisement

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here