জনাব আয়নাল হক গেদু একজন সফল কাউন্সিলরের গল্প !

0
880

অপরাধ বিচিত্রা ডেস্কঃ সাভার পৌরসভার মোট ৯ টি ওয়ার্ডের মধ্যে অন্যতম একটি ওয়ার্ড ৯ নং ওয়ার্ড। আর এই ওয়ার্ডের বাসিন্দাদের সাথে ধর্ম-বর্ন,  দলমত নির্বিশেষে যে নামটি ওতপ্রোতভাবে জড়িয়ে আছে তাহলো “মোঃ আয়নাল হক গেদু”। সাভার পৌরসভার সাবেক ভারপ্রাপ্ত মেয়র ও পৌরসভার ৯নং ওয়ার্ড থেকে জনগনের ভোটে তিন তিনবার নির্বাচিত একজন সফল কাউন্সিলর।  মুক্তিযোদ্ধা পরিবারে জন্মগ্রহণ করা সদাহাস্যজ্জল এই ব্যাক্তি সরাসরি সম্পৃক্ত আওয়ামীলীগের অঙ্গ সংগঠন বাংলাদেশ কৃষকলীগের রাজনীতির সঙ্গে । অলংকৃত করে রেখেছেন সাভার পৌর কৃষকলীগের সভাপতির পদটি। সাদামাটা জীবনযাপন করা এই ব্যাক্তি একই সাথে নিজের ব্যাক্তিগত জীবন, রাজনৈতিক অঙ্গন,  নিজ এলাকার বাসিন্দাদের মন জয় করে তাদের ভালোবাসা অর্জন সব ক্ষেত্রেই সমানতালে সফলতা অর্জন করেছেন। আর তার এই সফলতার পেছনে অন্যতম প্রধান কারন তার অতিসাধারন জীবনযাপন ও মানুষের বিপদে আপদে সর্বক্ষন পাশে থাকার এক আদম্য মানষিকতা। যা তাকে তার এলাকার সর্বস্তরের মানুষের মধ্যমণি করে রেখেছে। দিনরাত, ঝড়-বৃষ্টি সব প্রতিবন্ধকতাকে জয় করে মানুষের বিপদে আপদে সর্বদা পাশে দাঁড়িয়েছেন।কেউ কোন সমস্যা নিয়ে তার কাছে এলে শত ব্যাস্ততার ভিড়েও হাসিমুখে ধৈর্য সহকারে তাদের কথা শুনেছেন,  সমস্যা সমাধানের সর্বাত্মক চেষ্টা করেছেন।এলাকার উন্নয়নমূলক কর্মকান্ডে রেখেছেন অসামান্য অবদান।

Advertisement

সাভার পৌরসভা ৯নং ওয়ার্ডের এই জনপ্রিয় কাউন্সিলর আয়নাল হক গেদুর জনপ্রিয় এসকল কর্মকান্ড সম্পর্কে খোদ তার নিকট জানতে চাইলে অপরাধ বিচিত্রার সঙ্গে একান্ত আলাপকালে তিনি বলেন, “ আমি মনে করি আমি যা করছি তা আমার দায়িত্ব ও কর্তব্যেরই একটি অংশ। এলাকার মানুষ যেকোন মুহুর্তে যে কোন সমস্যা নিয়ে আমার কাছে আসতে পারে,  এটা তাদের অধিকার। তারাই আমাকে ভোট দিয়ে নির্বাচিতকরেছেন।তাদের বিপদে আপদে যদি আমি পাশে না থাকি কিংবা তারা যদি আমার কাছে তাদের সুবিধা-অসুবিধা নিয়ে আসতে সংকোচ বোধ করে, তবে আর আমি কেমন জনপ্রতিনিধি!  এই এলাকার মানুষের ভালোবাসা না থাকলে পরপর তিনবার নির্বাচিত হওয়া আমার পক্ষে সম্ভব ছিলোনা সুতরাং দোয়া করবেন যেন আগামীতেও তাদের এই ভালোবাসা নিয়েই বাচতে পারি।“

জনাব আয়নাল হক গেদু একটি মুক্তিযোদ্ধা পরিবারের সন্তান হিসাবে তার ব্যাক্তিত্বের মাধ্যমে নিজ পরিবারের সম্মান রক্ষাসহ,  দলীয় সুনাম অক্ষুণ্ণ রেখে যেভাবে যোগ্য নেতৃত্বের মাধ্যমে বাংলাদেশ কৃষকলীগের রাজনীতিতে সংগঠনকে সুসংগঠিত রেখেছেন, এলাকার জনসাধারনের ভালোবাসা আর আস্থা অর্জন করে একজন সফল জনপ্রতিনিধি হিসাবে সমাজে নিজেকে প্রতিষ্ঠিত করেছেন,  তা হতে পারে যে কারো রাজনৈতিক জীবনে আদর্শ। তিনি প্রমান করেছেন সততা,  ত্যাগ,  ন্যায়পরায়ণতাই সফলতার মুলমন্ত্র। আগামী দিনেও এলাকার জনগনের মাঝে তার এই অবস্থান অক্ষত থাকবে এবং তার সফল নেতৃত্বে বাংলাদেশ কৃষকলীগের সংগঠন আরও এগিয়ে যাবে, সর্বসাধারনের এমনটিই প্রত্যাশা।

Advertisement

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here