জন্মদিনের কেকে মোমবাতি জ্বালাবেন না

0
1552

অপরাধ বিচিত্রা ডেস্ক : জন্মদিনে কেকে মোমবাতি ব্যবহারের আগে দ্বিতীয়বার ভাবুন। একটি গবেষণার ফলাফলে বলা হয়েছে, জ্বলন্ত মোমবাতি কেকের মধ্যে ব্যাকটেরিয়া ছড়িয়ে দেয় ফুঁ দিয়ে নেভানোর কারণে।

Advertisement

যুক্তরাষ্ট্রের দক্ষিণ ক্যারোলিনার ক্লেমসন বিশ্ববিদ্যালয়ের একদল গবেষক জানিয়েছেন, জন্মদিনের কেকে জ্বালানো মোমবাতি ফুঁ দিয়ে নেভানোর সময় ১৪০০ শতাংশ বেশি ব্যাকটেরিয়ার ‍সৃষ্টি হয়। গবেষকরা দেখেছেন, যখন একজন মানুষ মোমবাতিতে ফুঁ দেয় তখন তার মুখের লালা জন্মদিনের কেকের ওপর গিয়ে পড়ে এবং তা কেকের ওপর ১৪০০ শতাংশ ব্যাকটেরিয়ার সৃষ্টি করে।

ক্লেমসন বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক ড. পল ডসন এবং তার কয়েকজন ছাত্র এই গবেষণা পরিচালনা করেছেন। তারা একটি ক্ল্যাসিক বেসলাইন পদ্ধতি ব্যবহার করে ব্যাকটেরিয়া গণনা করেছেন।

গবেষণায় প্রচুর ব্যাকটেরিয়ার খোঁজ মিললেও সবচেয়ে আশ্চর্যজনক যে জিনিসটি তারা দেখেছেন তা হচ্ছে, ফুঁ ভেদে ভিন্ন ব্যাকটেরিয়ার সৃষ্টি হয়। একটি ক্ষেত্রে দেখা গেছে, এক ফুঁ তে ১২০ বারের বেশি ব্যাকটেরিয়ার সৃষ্টি হয়েছে, যা থেকে বোঝা যায় যে, কিছু মানুষ অন্যের তুলনায় বেশি ব্যাকটেরিয়ার সৃষ্টি করে।

ড. ডসন বলেন, এই তথ্য জন্মদিনের কেকে মোমবাতির আসল আনন্দ থেকে বঞ্চিত করার জন্য নয়। তিনি বলেন, ‘আমার মনে হয় না এসব ব্যাকটেরিয়ার কারণে আপনি অসুস্থ হবেন। মানুষের মুখ ব্যাকটেরিয়া পূর্ণ এবং অধিকাংশই ক্ষতিকারক নয়।’

তবে কেউ অসুস্থ বা কোনো রকমের সংক্রমণের শিকার হয়ে থাকলে তাকে মোমবাতিতে ফুঁ দেওয়া থেকে বিরত থাকার পরামর্শ দিয়েছেন তিনি। এর ফলে জন্মদিনের কেকে স্বাস্থ্যের জন্য ক্ষতিকর ব্যাকটেরিয়া ছড়ানোর সম্ভাবনা থাকে। বিশেষ করে শিশুদের ক্ষেত্রে প্রাণঘাতী রোগগুলোর বিস্তার ঘটতে পারে।

ড. ডসন বলেন, তিনি জন্মদিনের কেক খাওয়া এড়াবেন যদি দেখেন যিনি ফুঁ দিচ্ছেন তাকে দেখতে স্পষ্টতই অসুস্থ মনে হচ্ছে।

ঝুঁকি এড়াতে জন্মদিনের কেকে মোমবাতি জ্বালানোর প্রথা থেকে চাইলে বিরতই থাকতে পারেন।

Advertisement

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here