ডায়িং কারখানার দূষণ থেকে বুড়িগঙ্গা নদী রক্ষার দাবি পবার

0
1172

শ্যামপুরের ডায়িং কারখানার দূষণ থেকে বুড়িগঙ্গা নদী রক্ষার দাবিতে যৌথভাবে মানববন্ধন করেছে বাংলাদেশ পরিবেশ আন্দোলন (বাপা) ও বুড়িগঙ্গা রিভারকিপার সংগঠন দু’টি। গতকাল (শুক্রবার) শাহবাগে জাতীয় জাদুঘরের সামনে এই মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়। মানববন্ধনে সংহতি প্রকাশ করে অংশ নেয় ঢাকা ইয়ুথ ক্লাব, ওমেনস ক্লাব এবং পুরান ঢাকা মঞ্চ।

Advertisement

বাপার সাধারণ সম্পাদক ডা. আব্দুল মতিনের সভাপতিত্বে মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন, বাপার যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক শরিফ জামিল, পুরান ঢাকা উন্নয়ন ফোরামের সমন্বয়ক ইমরান হোসইন, পুরান ঢাকা মঞ্চ মোস্তাফিজুর রহমান প্রমুখ।ডা. আব্দুল মতিন বলেন, সবাই বলে বুড়িগঙ্গা রক্ষা করা দরকার। মন্ত্রীরাও আন্দোলনকারীদের মতো টেলিভিশনে কথা বলছে। কিন্তু তারা কোনো ধরনের উদ্যোগ নিচ্ছেন না। বিগত এক দশকের বেশি সময় ধরে শ্যামপুরের ডায়িং কারখানা থেকে মারাত্মক দূষিত বর্জ্য বুড়িগঙ্গায় ফেলা হচ্ছে যা এককভাবে বুড়িগঙ্গা দূষণের জন্য দায়ী। অবিলম্বে শ্যামপুরের ডায়িং কারখানা সরিয়ে নিতে হবে বা বন্ধ করতে হবে। না হয় বিজ্ঞানভিত্তিক তরল বর্জ্য শোধনাগার (ইটিপি) লাগাতে হবে।

পরিবেশবান্ধব নীতির প্রতিফলন ঘটানোর আহ্বান জানিয়ে অন্যান্য বক্তারা বলেন, শোনা যাচ্ছে হাজারীবাগ ট্যানারিতে বিদ্যুতের লাইন কেটে দেওয়া হয়েছে। কিন্তু সেখানে এখনো মেশিন চলছে। বুড়িগঙ্গাকে দূষণ থেকে রক্ষা করতে সরকারের আন্তরিকতার ঘাটতি রয়েছে। বুড়িগঙ্গাকে দূষণ থেকে রক্ষার জন্য জরুরি অবস্থা ঘোষণা করার আহ্বান জানান তারা।এসময় তিনি তিনটি দাবি উত্থাপন করেন। দাবিগুলো- অবিলম্বে শ্যামপুরের ডায়িং দূষণ বন্ধ করা, উৎসে বর্জ্য পরিশোধন ব্যবস্থা নিশ্চিত করে কার্যকর ব্যবস্থা গ্রহণ করা ও ট্যানারিসহ সকল প্রকার শিল্প দূষণ স্থানান্তর নয়, স্থায়ীভাবে বন্ধ করতে হবে।দ্রুত দাবি বাস্তবায়ন না হলে ঢাকা ওয়াসা ও সিটি করপোরেশনের বিরুদ্ধে আন্দোলন করার ঘোষণাও দেন তারা।

Advertisement

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here