নামের শুরুতেই ডা: লিখে প্রতারনা রোগীদের ভোগান্তির অন্ত নেই

10
1534

আক্কেলপুর প্রতিনিধি:
জয়পুরহাট জেলার আক্কেলপুর থানার অর্ন্তগত তিলকপুর ইউনিয়নের বিভন্ন গুরুত্বপূর্ণ এলাকায় বেশকিছু নাম ধারী হাতুড়ে ডা: তাদের নামের পূর্বে ডা: লিখে চিকিৎসা দিয়ে যাচ্ছে যুগের পর যুগ বিশেষ করে তিলকপুরের আশেপাশে ডায়াগনেষ্টিক সেন্টার এবং ডাক্টারদের চেম্বার ঘুুরে দেখা যায় এখানে চিকিৎসা দিচ্ছে তারা মেডিসিন সর্ট কোর্স বা ডিপ্লোমা করেছেন অনেকে ৬ মাসের কোর্স আবার অনেকেই একেবারেই পড়ালেখা ছাড়াই রোগীদেরকে দিচ্ছেন চিকিৎসা সেবা। এম.বি.বি.এস না করেই নামের শুরুতেই ডা: লিখে এসব হাতুরে ডাক্তারেরা বিশেষঙ্গ ডাক্তার সেযে রুগীদের কাছ থেকে লাখ লাখ টাকা হাতিয়ে নিলেও চিকিৎসা নিয়ে কোন প্রকার উপকার পাচ্ছেনা । রুগিরা গ্রামের প্রত্যন্ত অঞ্চল থেকে আসা সাধারন মানুষ নামের  শুরুতেই ডা: লেখা দেখলেই মনে করেন অনেক বড় ডাক্তার এই শ্রেণির প্রত্যারকরা সর্ট কোর্সের সাথে ব্রাকেটে ঢাকা লিখে যা অনুমান যোগ্য যে এরা ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ থেকে পাস করা ডাক্তার। ফলে লোকজন আরো বেশি নির্ভযোগ্য হয়ে পড়ে তাদের প্রতি বিভিন্ন সুত্রে জানা গেছে । বিভিন্ন এলাকায় এ সব ডাক্তরদের কবলে পড়ে অনেক সাধারন মানুষ প্রাণ হাড়িয়েছে । অনেকে আবার ভুগছে মহামাড়ি সমস্যা । মানুষ ডাক্তারদেরকে সবচেয়ে বেশী বিশ্বাস করে যখন রোগীরা এসব ডাক্তারদের কাছে যাই তখন এরা শুরুতেই এ্যান্টিকবায়োটিক ঔষধ দেয় । যা একজন সুস্থ্য মানুষকে অসুস্থ্য করে নষ্ট করে দেয় শরীরের গুরুত্বপূর্ণ উপাদান । এমাইনো এসিড । ফলে  মানুষ ধীরে ধীরে চলে  যায় মৃত্যর ধার  প্রান্তে। তিলকপুরে নাম ধারী হাতুড়ে ডাক্টারদের সংখ্যা প্রায় ২৫ থেকে ৩০ জন। স্থানীয় সচেতন মহলের  দাবী দিন দিন হাতুরে এসব চিকিৎসকদের প্রত্যারনার কারনে সাধারন রোগীদের ভোগান্তীর অন্তনেই। খুব শ্রীঘ্রই তিলকপুর ইউনিয়নে বিভিন্ন ফার্মাসী ও ডায়াগষ্টিক সেন্টার তল্লাশি পূর্বক এসব নামধারী ডাক্তারদের বিরুদ্ধে অচিরেই ব্যবস্থা গ্রহন করে। আইনের  আওতায় আনা দরকার বলে মনে করেন এই  এলাকার সচেতন মহল।

Advertisement
Advertisement

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here