পতেঙ্গার নাজির পাড়ায় ইউনাইডেট স –মিলের জায়গা সন্ত্রাসী কায়দায় অবৈধ ভাবে জোর পূর্বক দখলের অভিযোগ

0
418

নিজস্ব প্রতিনিধিঃ নগরীর পতেঙ্গা থানাধীন নাজিরপাড়া প্যারাক ফ্যাক্টুরী এলাকায় আজ ২৪আগস্ট সকাল ১১ টার সময় ইউনাইডেট স মিলে হামলার ঘটনা ঘটে। এতে আহত হন মোঃ আতিকুর রহমান মোল্লা (৬০)ও তার ছেলে আবদুল কাদের (৩০) ।    স্থানীয় এলাকাবাসীর  সূত্রে জানা গেছে,দীর্ঘদিন ধরে স- মিলের জায়গা নিয়ে বিরোধ চলছিল আতিকুর রহমান মোল্লার সাথে এবং একই এলাকার বাসিন্দা সমির উদ্দিন ও নুরুউদ্দিনের সাথে। বেশ কয়েকবার এলাকার স্থানীয় কাউন্সিলর প্রতিনিধিদের নিয়ে সমঝোতার চেষ্টা করে বৃহস্পতিবার সকালের দিকে সমির উদ্দিনের অনুসারিরা প্রায় শতাধিক সন্ত্রাসী এসে জায়গার উপর জোর পূর্বক দেওয়াল দেওয়ার চেষ্টা করে এবং এক পর্যায়ে হাতাহাতির ধাক্কাধাক্কির ঘটনা ঘটে।  তবে জায়গার ক্রয় সূত্রে মালিক আতিকুর রহমান মোল্লা দাবি করে বলেন, বিগত ১২/১৪বছর পূর্বে এলাকার বাসিন্দা সমির উদ্দিন,জসিম উদ্দিন শাহজামাল,রিফাত,লোকমান সহ তাদের গংদের কাছে থেকেই বৈধ ভাবে দলিল মুলে প্রকৃত মালিক হন। কিন্তু কিছু পরপর তাদের ভাই লন্ডন প্রবাসী নুর উদ্দিন দেশে এসে অনৈতিক ভাবে লোকজন এবং সার্ভেয়ার নিয়ে এসে দখল তো আমরা মেনে নিতে পারিনা । আর এতেই সকাল থেকে নাজির পাড়া এলাকায়  দুই গুফের মধ্যে  রক্তক্ষয় সংঘর্ ‘র উপক্রম হচ্ছিল । এসময় পতেঙ্গা থানার পুলিশ ঘটনাস্থলে এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনে বলে জানায়। আহত আতিকুর রহমান বলেন, বেশ কয়েকবার তারা আমার পরিবারের উপর হামলা চালায় এবং জানে মেরে ফেলার হুমকি দেয় নিরুপায় হয়ে তাদের বিরুদ্ধে থানায় অভিযোগ করি। এদিকে ৪১ নং ওর্য়াড কাউন্সিলর ছালেআহম্মদ বলেন, আমি বেশ কয়েকবার জায়গার ব্যাপারটি নিয়ে সমাধানের চেষ্টা করি তারা কোন সমাধানে আসেনি তাই কোর্টে দু পক্ষের লোককে কোর্টের মাধ্যমে সমাধানে বসতে বলি। এ ব্যাপারে পতেঙ্গা থানার  এস আই মোস্তাফিজুর রহমান বলেন, জায়গার বিরোধের জের ধরে কিছু লোকজন বৃহস্পতিবার ঘটনান্থলে জড়ো হয়েছিল কিন্তু কোন প্রকার মারাত্মক ঘটনা ঘটেনি। তিনি আরও বলেন, দু পক্ষের লোক স্থানীয় কাউন্সিলর নিকট সমাঝোতার সিদ্ধান্ত নেয় তারা। আমরাও তা ভালো বলে উভয় পক্ষ কে শৃংখলা বজায রাকতে নির্দেশ দেন । স্থানীয় ৪১ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলরের প্রতিনিধি মোঃ আলী ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে বলেন,জমি-জমা জোর করে কিংবা দলিল ,কাগজ-পত্র ছাড়া হয় না। আমাকে ৪১ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর সাহেব পাঠিয়েছেন আপনারা দুই পক্ষই বসে বিষযটি সুরাহা করা যাই।

Advertisement
Advertisement

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here