প্রচারবিমুখ দানবীর স্পেন প্রবাসী আব্দুস সাত্তার

0
569

॥ মোঃ নূর নবী ॥
‘এ জগতে হায় সেই বেশি চায়, যার আছে ভুরি ভুরি, রাজার হস্ত করে কাঙ্গালের ধন চুরি’ বহুল প্রচলিত এ প্রবাদটি কমবেশি সবারই জানা। এ সমাজে যার হাজার টাকা আছে সে লাখপতি হতে চান, যার লাখ টাকা আছে তিনি কোটিপতি আর কোটিপতি আরো অনেক অর্থবিত্ত – বৈভবের মালিক হতে চান এমনটাই অধিকাংশ মানুষের চারিত্রিক বৈশিষ্ট্য বলে ধরে নেয়া হয়। কিন্তু প্রাকৃতিক ভারসাম্য রক্ষায় এ সমাজেই ব্যতিক্রম ও ব্যক্তিত্ব রয়েছেন! তারা সংখ্যায় খুব বেশি না হলেও অনন্য চারিত্রিক বৈশিষ্ট্যের অধিকারী এ সকল ব্যক্তিরা সাধারণ মানুষের মাঝে দানখয়রাত করে মানসিক প্রশান্তি খুঁজে বেড়ান। এ রকম ব্যতিক্রমধর্মী মানুষদেরই একজন স্পেন প্রবাসী আব্দুস সাত্তার। ১৭ বছরের ও বেশি সময় যাবত স্পেন-এ বসবাস করছেন তিনি। প্রবাসে দিনাতিপাত করলে ও জন্মভূমির সাধারণ মানুষের কথা এক মুহূর্তের জন্য ও ভুলে যাননি তিনি। আর তাইতো প্রায় প্রতিবছরই দেশে এসে গরিব দুঃখী মানুষকে অকাতরে আর্থিক সহায়তা প্রদান করেন  মো. আব্দুস সাত্তার। তিনি এলাকার মসজিদ, মাদ্রাসা, এতিমখানাসহ বিভিন্ন ধর্মীয় প্রতিষ্ঠানের সাথে জড়িত আছেন। প্রচারবিমুখ মো: আব্দুস সাত্তার এ প্রতিবেদকের সঙ্গে সংক্ষিপ্ত সাক্ষাতকারে খোলামেলাভাবে তার জীবনের কিছু স্মৃতি তুলে ধরেন। আব্দুস সাত্তার বি-বাড়িয়া জেলার বাঞ্চারামপুর থানার ইমামনগর গ্রামের এক সমভ্রান্ত মুসলিম পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন। তাঁর পিতার নাম মো: তাজুল ইসলাম।
সমাজ সেবক ও প্রচারবিমুখ দানবীর আব্দুস সাত্তার জানান, প্রবাসে অধিকাংশ সময় কাটলেও জন্মভূমিকে তিনি কখনও ভুলেননি। এদেশের মানুষের জন্য কিছু করতে সব সময় মন ব্যাকুল থাকতো। আর তাইতো প্রায় প্রতিবছরই দেশে আসতেন। গ্রামের বাড়িতে একটি ইমামনগর দারুল কুরআন হাফেজিয়া মাদ্রাসা ও এতিমখানা স্থাপনের মাধ্যমে কার্যক্রম শুরু করেন তিনি। পরবর্তীতে মসজিদসহ বিভিন্ন উন্নয়নমূলক কাজ করেন। তিনি এলাকার অসহায়, গরীব, নির্যাতিত, নিপীড়িত মানুষের পাশে দাঁড়িয়ে সবসময় বিভিন্নভাবে সাহায্য করে আসছেন। সেই ছোট্ট বেলা থেকে তিনি সামাজিক ও ধর্মীয় কর্মকান্ডের সাথে নিরলসভাবে জড়িত। আব্দুস সাত্তার একজন স্বপ্ন জাগানিয়া মানুষ। বাঞ্চারামপুরের প্রত্যন্ত অঞ্চলের প্রতিভাবান এ যুকব স্ব-প্রতিভায় উদ্ভাসিত। স্বপ্ন-আত্মবিশ্বাস তাকে পৌঁছে দিয়েছে সাফল্যের দ্বারপ্রান্তে। তিনি স্পেন প্রবাসী বাঙালিদেরও আপনজন। কেউ সমস্যা পতিত হলেই ছুটে যান তাঁর কাছে। আর উদার মানসিকতা দিয়ে তিনি সমস্যা সমাধান করেন। সততা, নিষ্ঠা, পরিশ্রম তার জীবনের গতিপ্রকৃতি পাল্টে দিয়েছে। আর এ পাল্টে দেয়ার মাধ্যমে তিনি স্বপ্ন দেখেন সমাজ ও মানব সেবার চিত্র। জীবনের প্রতিটি মুহুর্তে তিনি সমাজ ও মানব কল্যাণে ভূমিকা রাখতে চান। কারণ ‘মানুষ মানুষের জন্য, জীবন জীবনের জন্য’- এটি একটি জনপ্রিয় বাংলা গানের ছন্দ। সমাজ ও মানব কল্যাণে এমন প্রত্যয়ে কাজ করার জন্য দরকার উদার মানসিকতার। তেমনি এক ‘সাদা মনের মানুষ’ স্পেন প্রবাসী, সমাজ সেবক ও দানবীর মোঃ আব্দুস সাত্তার। আব্দুস সাত্তার লাল সবুজের পতাকাবেষ্টিত বাংলাদেশকে ভালোবাসে। ভালোবাসেন এ দেশের সকল শ্রেণী-পেশার মানুষকে। আর এ ভালোবাসার টানে তিনি বারবার ছুটে আসেন প্রিয় জন্মভূমিতে। আব্দুস সাত্তার এর এমন উদারতা বাঞ্চারামপুরের ইতিহাসে নজির হয়ে থাকবে বলে মনে করেন বিজ্ঞ মহল। আব্দুস সাত্তার প্রতিমধ্যে তার নিজ গ্রামে মাদ্রাসা করার জন্য ৩৬ লক্ষ টাকায় একটি জায়গা ক্রয় করছে। তার নিজ গ্রাম ইমামনগরে গড়ে উঠবে আব্দুস সাত্তার হাফেজিয়া ক্বওমী মাদ্রাসা ও এতীমখানা এছাড়া ও তার মায়ের নামীয় ছানোয়ারা ইসলামিয়া মহিলা মাদ্রাসা প্রতিষ্ঠা করবে । মাদ্রাসা দুটি বহুতল ভবন হবে। মাদ্রাসা দুটিতে নুরানী থেকে শুরু করে দাওরায়ে হাদিস পর্যন্ত লেখাপড়া চলবে।
আব্দুস সাত্তার সমাজ ও মানব কল্যাণে তাঁর চলমান অগ্রযাত্রা অব্যাহত রাখবেন বলেও তারা আশা প্রকাশ করেন। আব্দুস সাত্তার বলেন- মহান আল্লাহ রাব্বুল আলামিনের সন্তুষ্টি অর্জন ও সামাজিক দায়বদ্ধতার কারণে আমি ধর্মীয় শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান ও গরীব-দুঃখী মানুষের সেবার মাধ্যমে সমাজ ও মানব কল্যাণে কাজ করে যাব- ইনশাল্লাহ।

Advertisement
Advertisement

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here