প্রথম শহীদ মহিলা কবি মেহেরুন্নেসার জন্ম বার্ষিকী উদযাপন

0
637

২০ আগস্ট প্রথম শহদি মহিলা কবি মেহেরুন্নেসার জন্ম দিন। জন্ম বার্ষিকী উদযাপন উপলক্ষে রাজধানীর শাহবাগের গণগ্রন্থাগার সেমিনার কক্ষে দিনব্যাপি আবৃত্তি প্রতিযোগিতা একক নাট্য ডকুফিকশন চলচ্চিত্র প্রদর্শন আলোচনা সভা, র‌্যালি দুর্লভআলোকচিত্র প্রদর্শন, পুরষ্কার ও সনদ বিতরনী অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়েছে।
অনুষ্ঠানটির আয়োজন করে স্বপ্নকলা সাংস্কৃতিক ভুবন। স্বপ্নকলার প্রতিষ্ঠাতা পরিচালক রিয়াজ মাহমুদ মিঠুর সভাপতিত্বে ফরিদ আহম্মেদ ও তানজিনা হোসেনের সঞ্চালনাায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের বাংলা বিভাগের অধ্যাপক আবুল কাসেম ফজলুল হক। উক্ত অনুষ্ঠানে প্রধান আলোচক হিসবে উপস্থিত ছিলেন সংসদ সদস্য কবি কাজী রোজী, উদ্ধোধক হিসেবে উপস্থিত ছিলেন স্বাধীন বাংলা বেতার কেন্দ্রের কণ্ঠযোদ্ধা মনোরঞ্জন ঘোষাল, বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় ফিল্ম, টেলিভিশন বিভাগের চেয়ারম্যান জুনায়েদ আহম্মেদ হালিম, গ্রীন ইউনিভার্সিটি ফিল্ম, টেলিভিশন এন্ড ডিজিটাল মিডিয়া বিভাগের চেয়ারম্যান ড. আফজাল হোসেন খান স্বাগত বক্তব্য রাখেন স্বপ্নকলার প্রতিষ্ঠাতা পরিচালক নোমান বিন সাদেক। অনুষ্ঠানে একক নাট্য আমি মেহের বলছি এর উপস্থান করেন অভিনেত্রী মোসা: আসমা আক্তার লিজা। আরো উপস্থিত ছিলেন, স্বপ্নকলার পরিচালক এ্যাড. মো: সোহেল, আশামনি, আবিদা সুলতানা আইরিন, জান্নাতুল মাওয়া, তাওলাদ মাহমুদ পান্না।
প্রধান অতিথির বক্তব্যে আবুল কাসেম ফজলুল হক বলেন মেহেরুন্নেসা ছিলেন রজনীকান্তর মতোই একজন গুনী কবি। তার লিখনীতে স্বাধীনতা সংগ্রাম এগিয়ে নিয়েছে।
প্রধান আলোচকের বক্তব্যে কাজী রোজী বলেন কবি মেহেরুন্নেসার জন্য আমি কিছুই করতে পারেনি। তার নামে কোন কিছুই নির্মিত বা নাম করণ করা হয়নি।
অন্যান্যের মাঝে আরোও উপস্থিত ছিলেন অনুষ্ঠান সহযোগিতা সংগঠন ইংলিশ ক্লিনিকের চেয়ারম্যান মাহবুবুল আলম, ইউনিভাসাল স্টাডি জোনের চেয়ারম্যান জিল¬ুর রহমান ও রক্তবিন্দুর সাধারন সম্পাদক মহিউদ্দিন উছমানী।
ঢাকা ও গাজীপুর মহানগরের বিশ টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শতাধিক শিক্ষার্থীরা প্রতিযোগিতায় অংশ গ্রহণ করেন।

Advertisement
Advertisement

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here