বঙ্গবন্ধুর আদর্শের কোন মৃত্যু নেই ঃ এমপি খোকা

0
508

সোনারগাঁও প্রতিনিধিঃ খুনিরা মনে করেছিল বঙ্গবন্ধু ও তাঁর পরিবারের সদস্যদের হত্যা করে তাঁর চেতনাকে বিনাশ করে দেবে। তাদের সেই ষড়যন্ত্র সফল হয়নি। কারণ চেতনার ও বঙ্গবন্ধুর আদর্শের কখনো মৃত্যু হয় না। শেখ মুজিবুর রহমান না থাকলেও তাঁর চেতনা ধারন করছে কোটি কোটি হৃদয়। কথাগুলো বলছিলেন, সংসদ সদস্য নারায়ণগঞ্জ-৩ (সোনারগাঁও) ও জাতীয়পার্টির যুগ্নমহাসচিব গণমানুষের নেতা লিয়াকত হোসেন খোকা ।  গতকাল মঙ্গলবার জাতীয় শোক দিবস শোকের  মাসব্যাপি প্রগ্রামে সোনারগাঁও উপজেলা সাদিপুর ইউনিয়নে  শোক সভা ও দোয়া অনুষ্ঠানে তিনি এসব কথা বলেন।  তিনি আরো বলেন ‘যদি বঙ্গবন্ধুর জন্ম না হতো তাহলে স্বাধীন বাংলাদেশ আমরা পেতাম না। শেখ মুজিবুরে জন্ম না হলে বিশে^র বুকে মাথা উঁচু করে দাঁড়াবার চিন্তাও আমরা করতে পারতাম না। এই স্বপ্ন তিনি দেখেছিলেন। কীভাবে স্বপ্নপূরণ করতে হয়, বাংলাদেশ স্বাধীনতা করার মাধ্যমে সেই লক্ষ্যে কিন্তু আমরা এগিয়ে যাচ্ছিলাম। কতিপয় কুচক্রি বিপথগামী সেনা সদস্যদের নিয়ে ষড়যন্ত্রকারীরা বঙ্গবন্ধুকে হত্যার মাধ্যমে মনে করেছিল তার যে চেতনা সেটা বোধ হয় বিনাশ হয়ে গেল। কিন্তু চেতনার কখনো মৃত্যু হয় না। বঙ্গবন্ধুর যে চেতনা, তাঁর যে স্বপ্ন, স্বাধীন বাংলাদেশ গড়ার। অর্থনৈতিক মুক্তি নিশ্চিত করা। আমরা সেদিকেই এগিয়ে চলছি।’
বঙ্গবন্ধুকন্যা শেখ হাসিনার নেতৃত্বের দৃঢ়তার বিষয়টি তুলে ধরে তিনি বলেন, ‘বঙ্গবন্ধুকন্যা শেখ হাসিনা বাংলাদেশের আওয়ামী লীগের সভাপতি ও বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী। যিনি অত্যন্ত পরিশ্রম করে আমাদেরকে বিশে^র বুকে একটি সমৃদ্ধশালী এবং অত্যন্ত মর্যাদাশীল একটি রাষ্ট্রে পরিণত করছেন। এর মাধ্যমে বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলা গড়ার স্বপ্ন পূরণ হচ্ছে।’  তিনি আরো বলেন আমাদের সোনারগাঁকে স্বপ্নের সোনারগাঁ গড়ে তুলতে চাই । সোনারগাঁয়ে ভাল ভাল  জনপ্রতিনিধি নিয়ে  জনপ্রতিনিধি ফোরাম গঠন করেছি। সোনরাগাঁয়ে  ভাল মানুষ থাকিবে , মানুষ রুপী শয়তান থাকিতে পারবেনা ।  অনুষ্ঠানে বারদী ইউপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান দাইয়ান সরকার, পিরোজপুর ইউপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান আলমগীর কবির, বৈদ্যেরবাজার ইউপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান ইসমাঈল হোসেন,সাদিপুর ইউপির প্যানেল চেয়ারম্যান নূর হোসেন, সাদিপুর ইউপির জাতীয় পার্টি আহবায়ক আবুল হাসেম, পৌর কাউন্সিলর জাহেদা আক্তার মনি, রিতা আক্তার, পারভীন আক্তার, শাহজালাল। সাদিপুর ইউপি মেম্বার রফিকুল ইসলাম, নূর জামাল, হাকিম উদ্দিন, মহাসিন মিয়া, ইসমাঈল হোসেন, আশরাফ উদ্দিন, সাবেক মেম্বার আব্দুল হামিদ, মাইনুদ্দিন, জাকির হোসেন ও আমির আলী। নোয়াগাঁও ইউপি মেম্বার আনোয়ার হোসেন, নেহাল উদ্দিন, মোস্তফা মোল্লা, সেলিম হোসেন, এবিএম রিপন, বাহাউদ্দিন, নুরুল ইসলাম, মহিলা মেম্বার মরিয়ম বেগম, রুবিনা আক্তার ও রেহেনা আক্তার। সনমান্দী ইউপি মেম্বার মহিউদ্দিন, জয়নাল আবেদীন, ফিরোজ আহমেদ, মহিলা মেম্বার লুৎফা আক্তার, খাদিজা আক্তার, সাবেক মেম্বার রুহুল আমীন, মতিউর রহমান ও হারুন মিয়া। বারদী ইউপি মেম্বার রফিকুল ইসলাম, ছানাউল্লাহ, নজরুল ইসলাম, বাবুল মিয়া, মহিলা মেম্বার পিয়ারা বেগম, জমিলা আক্তার ও জীবনী আক্তার। জামপুর ইউপি মেম্বার আলীজান, সগির হোসেন ভূঁইয়া গেলমান, ডা. লুৎফর রহমান, ছানাউল্লাহ, বকুল ভূঁইয়া, ইব্রাহীম মিয়া, মহিলা মেম্বার জরিনা আক্তার, নিলুফা আক্তার ময়না ও জমিলা আক্তার। পিরোজপুর ইউপি মেম্বার মজিবুর রহমান, মোশারফ হোসেন, আবুল হোসেন, জাহাঙ্গীর হোসেন, মহিলা মেম্বার মোর্শেদা আক্তার, মমতাজ বেগম ও উম্মে সালমা। বৈদ্যেরবাজার ইউপি মেম্বার আইয়ুব আলী, আব্দুল বাসেদ, মোহাম্মদ আলী, মজিবুর রহমান, মহিলা মেম্বার সুরাইয়া আক্তার ও আমেলা আক্তার। কাঁচপুর ইউপি মেম্বার নাজমুল ইসলাম, নজরুল ইসলাম, হাসান খাঁন, শাহ আলম, আমানুল্লাহ আমান, মহিলা মেম্বার ইসরাত জাহান পারুল ও মোর্শেদা আক্তার। মোগরাপাড়া ইউপি মেম্বার শফিউদ্দিন, মহিলা মেম্বার রহিমা আক্তার ও সাবিনা আক্তার, শম্ভুপুরা ইউপি মেম্বার সাবেদ আলী, ইকবাল হোসেন, শফিকুল ইসলাম, কবির হোসেন, সাজেদ আলী, মহিলা মেম্বার নূরতাজ বেগম, শারমিনসহ পৌরসভার অন্যান্য কাউন্সিলরবৃন্দ এবং ইউনিয়ন পরিষদের পুরুষ ও মহিলা মেম্বারবৃন্দ।

Advertisement
Advertisement

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here