বস্তুনিষ্ঠতাই সাংবাদিকতার মূল বিষয়: ঢাবি উপাচার্য

0
1203

বস্তুনিষ্ঠতাই সাংবাদিকতার মূল বিষয়, এটি ছাড়া সঠিক সাংবাদিকতা সম্ভব নয় বলে মন্তব্য করেছেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) উপাচার্য অধ্যাপক ড. আ আ ম স আরেফিন সিদ্দিক। বুধবার সকাল ১১ টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের আরসি মজুমদার মিলনায়তনে গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের ৫৫ তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীতে আলোচনা সভা ও পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ মন্তব্য করেন।

Advertisement

তিনি বলেন, সাংবাদিকদের প্রধান কাজ সত্য অনুসন্ধান করা এবং তা প্রতিষ্ঠিত করা। সত্য অনুসন্ধান হবে মানুষের কল্যাণে। এছাড়াও গণমাধ্যমে সত্যের অপলাপ ও ফরমায়েশি সাংবাদিকতা কাম্য নয়। অপসাংবাদিকতা সমাজ, দেশ তথা মানব সভ্যতাকে কলুষিত করে।

তিনি আরো বলেন, সত্যের জয় সব সময় নিশ্চিত। বঙ্গবন্ধু সত্যের মাধ্যমেই একটি স্বাধীন রাষ্ট্র স্থাপন করতে পেরেছিলেন। সত্য প্রকাশ করা, সত্য অনুসন্ধান করাই এই বিভাগের শিক্ষার্থীদের একমাত্র কাজ।

বিভাগীয় চেয়ারম্যান অধ্যাপক মফিজুর রহমানের সভাপতিত্বে এসময় আরো উপস্থিত ছিলেন, প্রধান তথ্য কমিশনার ও গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের সাবেক অধ্যাপক ড. গোলাম রহমান, গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের প্রবীণ অধ্যাপক সাখাওয়াত আলী খান, অধ্যাপক আখতার সুলতানা, জাতীয় প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক ফরিদা ইয়াসমীন ও সহ সভাপতি কাজী রওনক হোসেন।

অনুষ্ঠানে ‘জনগণের সঙ্গে বঙ্গবন্ধুর মিথস্ক্রিয়া: মাধ্যম ও প্রতিপাদ্য’ শীর্ষক মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন বিশিষ্ট সাংবাদিক সৈয়দ বদরুল আহসান।

লিখিত বক্তব্যে সৈয়দ বদরুল আহসান বলেন, জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান একজন গণমাধ্যম বান্ধব মহান রাজনৈতিক নেতা ছিলেন। তিনি সাংবাদিকদের সঙ্গে খোলামেলা আলোচনা করতেন। কারো সঙ্গে তিনি রুঢ় আচরণ করেননি। তাঁর বিরুদ্ধে যারা কলম ধরেছিলেন, তাদেরকেও তিনি অসম্মান করেননি।

এর আগে বিশ্ববিদ্যালয়ের অপরাজেয় বাংলার পাদদেশে থেকে ‘সত্যের সন্ধানে ব্রতী, সদা জাগ্রত আমরা’ প্রতিপাদ্য নিয়ে একটি র‌্যালী বের করেন বিভাগের শিক্ষক ও শিক্ষার্থীরা। র‌্যালীতে বর্তমান শিক্ষার্থীদের সাথে অংশ নেয় প্রাক্তন শিক্ষার্থীরা। ক্যাম্পাসের বিভিন্ন দিক প্রদক্ষিণ শেষে বিশ্ববিদ্যালয়ের আর সি মজুমদার মিলনায়তনে গিয়ে শেষ হয়। এছাড়াও ক্রীড়া ও সাংস্কৃতিক প্রতিযোগিতার পুরস্কার বিতরণ ও কৃতী শিক্ষার্থীদের বৃত্তি প্রদান করা হয়।

অনুষ্ঠানে ক্রীড়া ও সাংস্কৃতিক প্রতিযোগিতার পুরস্কার বিতরণ ও কৃতী শিক্ষার্থীদের বৃত্তি প্রদান করা হয়।

 

Advertisement

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here