ভাকুর্তা ইউপি সচিবের সাক্ষর জাল করে মন্ত্রনালয়ে আবেদন সচিবকে কারন দর্শানোর নির্দেশ !

0
470

সাভারের ভাকুর্তা ইউনিয়ন পরিষদের বর্তমান সচিব মোহাম্মদ আলীর সাক্ষর জাল করে স্থানীয় সরকার,  পল্লি উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রনালয়ের স্থানীয় সরকার বিভাগের সচিব বরাবর একটি আবেদন পাঠানোর অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় গত ১৩ই আগষ্ট মন্ত্রনালয়ের একটি  চিঠিতে যথাযথ কর্তৃপক্ষের বরাবর আবেদন না করে সরাসরি স্থানীয় সরকার বিভাগের সচিব বরাবরে আবেদন পাঠানোর জন্য বর্তমান ইউপি সচিব মোহাম্মদ আলীকে কারন দর্শানোর নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে। স্থানীয় সরকার বিভাগের চিঠির সুত্রে জানা যায়, বর্তমান ভাকুর্তা ইউপি সচিব কে তার দায়িত¦ বুঝিয়ে না দেওয়া সহ বর্তমান ভাকুর্তা ইউপি চেয়ারম্যান আনোয়ার হোসেনে ও সাবেক ইউপি সচিব মোঃ আমির হোসেনের বিরূদ্ধে  দুর্নীতির অভিযোগ এনে স্থানীয় সরকার বিভাগের সচিব বরাবরে আবেদনপত্রটি পাঠানো হয়। তবে  মন্ত্রনালয়ে পাঠানো আবেদনপত্রটি সাক্ষর জাল করে পাঠানো হয় বলে দাবি করেন বর্তমান ভাকুর্তা ইউপি সচিব মোহাম্মদ আলী। অপরাধ বিচিত্রাকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে তিনি বলেন, “কে বা কারা আমার সাক্ষর জাল করে আমাকে হেয় করার উদ্দেশ্যে পত্রটি মন্ত্রনালয়ে পাঠিয়েছে। এই আবেদনপত্রের বিষয়ে আমি কিছুই জানিনা। ১৫ বছরের চাকুরী জীবনে যথাযথ কর্তৃপক্ষ ব্যাতিরেকে সরাসরি সচিব মহোদয় বরাবরে যে আবেদন করার নিয়ম নেই, সেটুকু অভিজ্ঞতা আমার অবশ্যই আছে। এখানে (বর্তমান কর্মস্থল) যোগদানের পর দীর্ঘদিন আমাকে আমার চার্জ বুঝিয়ে না দেওয়া সহ বর্তমান চেয়ারম্যান ও সাবেক সচিবের দুর্নীতির বিষয়ে উর্ধত্বন কর্তৃপক্ষ বরাবর অভিযোগ দায়েরর পর থেকে বিশেষ একটি মহল আমাকে এখান থেকে সরিয়ে দিতে অপচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে,  এই আবেদন তারই একটি অংশ। তাছাড়া এও সত্যি যে এখন অবধি ওয়ান পার্সেন্ট,  জন্ম ও মৃত্যু নিবন্ধন ও এল,জি,এস,পি’র ব্যাংক হিসাব ও চেক বই আমাকে বুঝিয়ে দেওয়া হয়নি।“

Advertisement

মোহাম্মদ আলীর সাক্ষর জাল করে মন্ত্রনালয়ে আবেদন পাঠানোর ঘটনায় নতুন করে জেগে উঠেছে ভাকুর্তা ইউপি এর বর্তমান বিতর্কিত চেয়ারম্যান আনোয়ার হোসেন ও সাবেক সচিব আমির হোসেনের অর্থ আতœসাৎ ও দুর্নীতির বিষয়টি। তাদের বিরূদ্ধে দূর্নীতির অভিযোগটি উত্থাপিত হওয়ার পর এঘটনায় আশ্চর্যজনকভাবে শুধুমাত্র ক্ষমা চেয়ে পার পেয়ে যান বর্তমান ইউপি চেয়ারম্যান ও সাবেক ইউপি সচিব। একজন জনপ্রতিনিধি হয়ে একটি গনতান্ত্রিক দেশের জনগনের অর্থ আতসাৎ করার পরেও তাদের বিরূদ্ধে কোন ব্যাবস্থা গ্রহন ছাড়াই সাধারন ক্ষমার মাধ্যমে বিষয়টি ধামাচাপা দেওয়ার প্রচেষ্টায় সাধারন মানুষ সহ বিভিন্ন সচেতন মহলে তিব্র নিন্দা ও সমালোচনার ঝড় ওঠে। সেই ঘটনার রেশ কাটতে না কাটতেই বর্তমান ইউপি সচিবের সাক্ষর জাল করে মন্ত্রনালয়ে আবেদন পাঠানোর ঘটনায় বিষয়টি নতুন করে আলোচনায় আসলো।

এছাড়াও ভাকুর্তার বর্তমান ইউপি চেয়ারম্যান আনোয়ার হোসেনের বিরূদ্ধে দুর্নীতি,  অনিয়ম সহ রয়েছে এলাকাবাসীর নানান অভিযোগ। সেসকল বিষয় নিয়ে অপরাধ বিচিত্রার ধারাবাহিক আয়োজনের আগামী পর্বে থাকবে বিসÍারিত। জানতে চোখ রাখুন অপরাধ বিচিত্রায়।

Advertisement

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here