রৌমারী বাজারে সামান্য বৃষ্টিতেই কাদাপানিঃ হাটুরেদের দুর্ভোগ চরমে

0
478

রৌমারী (কুড়িগ্রাম) প্রতিনিধঃ
উপজেলা বাজারটির ভেতরের দুটি গলিতে ড্রেন গুলি দীর্ঘদিন যাবত সংস্কার ও পরিস্কার না করার দরুন ময়লা আবর্জনায় ভরে গিয়ে পানি নিস্কাসনের ব্যবস্থা বন্ধ হয়ে ড্রেন উপচে গলিতে এসে আবর্জনা ও কাঁদাপানিতে জমে গিয়েছে এবং দোকানের সামন দিয়ে পলিথিন ও বাঁশের বেড়া দ্বারা ছোট ছোট বিভিন্ন দোকান উঠিয়ে পরিবেশ খারাপ করে ফেলেছে। ফলে সামান্য বৃষ্টিতেই পানি ভরে গিয়ে হাটুরে জনসাধারণের চলাচলে বিঘœ ঘটে এবং দুর্গন্ধে নাক বন্ধ করে চলতে হয়।
অপরদিকে শাপলা চত্তর থেকে থানা রোড, মাদ্রাসা রোড ও উপজেলা রোডে কোন ড্রেনেজ ব্যবস্থা না থাকায় সামান্য বৃষ্টিপাতেই রাস্তাঘাট তলিয়ে গিয়ে জনসাধারন সহ গাড়ী চলাচলের  দুর্ভোগের সৃষ্টি হয়। শাপলা চত্তরে চলাচল গামী  রাস্তায় কাদা ময়লা যুক্ত পানিতে একাকার হয়ে যায়। কাঁদাপানি স্থায়ী রুপ নেয়ায়, স্কুল, কলেজ গামী ছাত্র/ছাত্রী পথচারীদের পায়ে হেটেচলা কষ্ট হয়ে পরে। উপজেলা রোডটির সিয়াম কাউন্টারের সামনে এবং ইসলামী ব্যাংকের সামনে উপজেলা গামী পাকা রাস্তা সামান্য বৃষ্টিতেই পুরোটা রাস্তাই পানি এবং কাদার নিচে তলিয়ে যায়। রাস্তাটির ধারে কোন ড্রেনেজ ব্যবস্থা না থাকায় বর্ষা মৌসুমে বৃষ্টির পানিতেই নিমজ্জিত থাকে। এমতাবস্থায় প্রশাসন, সরকার দলীয় নেতাকর্মি সহ সকলেই কষ্টে চলাচল করেও না দেখার ভ্যান করে চলেন।
রৌমারী সদর হাট-বাজার ইজারাদর আফজাল হোসেন বিপ্লবকে এবিষয়ে জিজ্ঞাস করলে তিনি জানান, আমরা হাট পয়পরিস্কার করছি, এবং ড্রেনগুলি মেরামত ও নতুন করে ড্রেনের ব্যবস্থার জন্য আমি উপজেলা নির্বাহী অফিসারের সঙ্গে বসে আলাপ করেছি। আগামী মাসিক সভায় আলোচনা ও রেজুলেশনের মাধ্যমে পাশ করিয়ে নিয়ে উন্নয়ন খাতে জমা টাকা দিয়ে সংস্কার করে দিবে আশ্বাস দিয়েছে। ড্রেনগুলি মেরামত ও পরিস্কার করে দিলে তখন হাটুরেদের কোন চলাচলে সমস্যা হবেনা।
উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ভারঃ) ফাউজুল কবিরকে জিজ্ঞাস করলে তিনি জানান, বিষয়গুলি আমাকে হাট-ইজারাদরসহ অনেকেই জানিয়েছে,এবং হাট-বাজার সংস্কার, ড্রেনগুলি পরিস্কার ও নতুন করে আরো ড্রেন করে দেয়ার জন্য আগামী মাসিক সভায় আলোচনা করে ব্যবস্থা গ্রহন করবো এবং আমি সওজের দ্বায়ীত্বরত ইঞ্জিনিয়ারকে জানিয়েছি ডিসি রাসÍার দুই স্থানে পানি জমে থাকা জায়গায় দ্রুত ঠিক করে দেয়ার কথা। উপজেলা প্রকৌশলী মোঃ আব্দুল কাইয়ুম বলেন, উপজেলা রোডটিতে পানি নিস্কাসনের ব্যবস্থা না থাকায় জলাবদ্ধতার সৃষ্টি হয়। এ বিষয়ে হাইওয়ে উর্দ্ধোতন কর্মকর্তাকে জানানো হয়েছে।
সুধী মহলের আবেদন উপজেলা সদরে চলাচলে দুই স্থানে পানিতে নিমজ্জিত এবং কাদাভরা রাস্তাঘাট, বাজারটির গলি ও ড্রেন গুলি দ্রুত ভাবে পরিস্কার করে হাটুরেদের চলাচলের ব্যবস্থা করা আবশ্যক বলে এলাকাবাসী মনে করেন।

Advertisement
Advertisement

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here