সরকারের ব্যর্থতায় দেশে ধর্ষণের তুফান: মওদুদ

0
1401

শুক্রবার জাতীয় প্রেসক্লাবের ভিআইপি লাউঞ্জে ন্যাশনাল পিপলস পার্টি আয়োজিত আলোচনা সভায় বক্তৃতা করেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য মওদুদ আহমদ -যাযাদিসরকারের ব্যর্থতার কারণে দেশে এখন নারী ও শিশু নির্যাতনের ‘তুফান’ চলছে বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপি নেতা মওদুদ আহমদ।
শুক্রবার সকালে এক আলোচনা সভায় বিএনপির স্থায়ী কমিটির এই সদস্য বলেন, “দেশে এখন নারী ও শিশু ধর্ষণ তুফান গতিতে চলছে। বগুড়ার তুফান সরকার বর্তমান সরকারের কর্মকা-েরই প্রতিফলন ঘটিয়েছে।”

Advertisement

বগুড়ার এক কিশোরীকে ভালো কলেজে ভর্তির প্রলোভন দেখিয়ে গত ১৭ জুলাই ও পরে কয়েকবার ধর্ষণ করেন জাতীয় শ্রমিক লীগ বগুড়া শহর শাখার আহ্বায়ক তুফান সরকার। এ কাজে তাকে সহায়তা করেন তার কয়েকজন সহযোগী।
বিষয়টি জানতে পেরে তুফানের স্ত্রী আশা ও তার বড় বোন বগুড়া পৌরসভার সংরক্ষিত মহিলা ওয়ার্ডের কাউন্সিলর মার্জিয়া হাসান রুমকিসহ তাদের সহযোগীরা গত ২৩ জুলাই ওই কিশোরী এবং তার মাকে বাড়ি থেকে তুলে নিয়ে যায়। পরে তাদের মারধর করে মাথা ন্যাড়া করে দেয়া হয়।
ওই কিশোরীর মা ২৩ জুন বিকালে তুফানসহ ১০ জনকে আসামি করে মামলার পর ঘটনাটি গণমাধ্যমে এলে দেশজুড়ে ব্যাপক সমালোচনা হয়। এরপর তুফানকে সংগঠন থেকে বহিষ্কার করে জাতীয় শ্রমিক লীগ। ধর্ষণ মামলার তদন্ত কর্মকর্তা বগুড়া সদর থানার পরিদর্শক (অপারেশন) আবুল কালাম আজাদ শুক্রবার জানান, ডাক্তারি পরীক্ষায় ওই কিশোরীকে ধর্ষণের আলামত পেয়েছেন চিকিৎসকরা।
দেশে সাম্প্রতিক সময়ে এ ধরনের সব ঘটনাতেই ‘আওয়ামী পরিবারের সদস্যরা’ জড়িত মন্তব্য করে মওদুদ আহমদ বলেন, “আমরা বলতে চাই, তুফান সরকার ও আমাদের বর্তমান সরকার একই তো। এই সরকারের আমলেই এ ধরনের ঘটনা ঘটতে পারে। যতদিন বর্তমান সরকার ক্ষমতায় থাকবে, ততদিন এই নারী ও শিশুদের ধর্ষণ চলতেই থাকবে।”
বগুড়ার ওই ঘটনাকে ‘একেবারে অবিশ্বাস্য’ হিসেবে বর্ণনা করে এই বিএনপি নেতা বলেন, “কী অসম্ভব একটা বর্বরতা! কী অসম্ভব একটা হিংস্রতা! এটা কেন হচ্ছে? “কারণ এই সরকারের কোনো জবাবদিহিতা নাই। তারা (সরকার) মানুষের কাছে জবাবদিহি করার কোনো প্রয়োজন বোধ করে না।”
‘মহিলা পরিষদ’ ও মানবাধিকার সংগঠন ‘অধিকার’-এর দেয়া নারী ও শিশু নির্যাতনের পরিসংখ্যান তুলে ধরে মওদুদ বলেন, “প্রতিদিন গড়ে পাঁচজন নারী ও শিশু ধর্ষিত হচ্ছে। তাহলে চিন্তা করে দেখেন, আমাদের সামাজিক অবস্থাটা কোথায় চলে গেছে! পত্রিকায় দেখলাম একজন বাস ড্রাইভার ও হেলপার একজন যাত্রীকে ধর্ষণ করেছে। তার মানে দেশে আইনশৃঙ্খলা বলতে কিছু নাই।”
সরকারের পাশাপাশি আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর ভূমিকা নিয়েও সমালোচনা করেন এই বিএনপি নেতা।
”সরকার পুলিশ ও র‌্যাবকে প্রশিক্ষণ দিয়েছে- কী করে বিরোধী দলকে নিস্তেজ করা যায়, তাদের ওপর আক্রমণ করা যায়, নির্যাতন করা যায়, তাদের বিরুদ্ধে কিভাবে মিথ্যা মামলা দায়ের করা যায়, তাদের ওপর কী করে হয়রানি করা যায়- সেই প্রশিক্ষণ দিয়েছে। আমাদের পুলিশ ও র‌্যাবকে সেই ট্রেনিং দেয়া হয় নাই যে তাদের প্রধান কর্তব্য দেশের মানুষের সম্পদ ও জীবনের নিরাপত্তা বিধান করা। আজকে পুলিশ সেখান থেকে সরে গেছে।”
জাতীয় প্রেসক্লাবের ভিআইপি লাউঞ্জে ২০ দলীয় জোটের অন্যতম শরিক ন্যাশনাল পিপলস পার্টির (এনপিপি) উদ্যোগে ‘একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের নিরপেক্ষতায় সহায়ক সরকারের ও নির্বাচন কমিশনের ভূমিকা’ শীর্ষক এই আলোচনা সভা হয়।
এনপিপির চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট ফরিদুজ্জামান ফরহাদের সভাপতিত্বে ও প্রেসিডিয়াম সদস্য অলিউর রহমানের পরিচালনায় এ অনুষ্ঠানে বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট নিতাই রায় চৌধুরী, জাতীয় পার্টির (কাজী জাফর) মহাসচিব মোস্তফা জামাল হায়দার, জাগপার সাধারণ সম্পাদক খন্দকার লুৎফর রহমান, এনপিপির মহাসচিব মোস্তাফিজুর রহমান, কেন্দ্রীয় নেতা আ হ ম জহির হোসেন হাকিম, নজরুল ইসলাম, সালমান রহমান, ফরিদউদ্দিন বক্তব্য দেন।

Advertisement

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here