প্রভাস লিপি

0
806

অভিনয়ে আসার তেমন কোনো পরিকল্পনাই ছিল না তার। তাই শুরুটা খুব একটা সাজানো-গোছানো ছিল বললে একটু বাড়িয়ে বলা হবে। ২০০২ সালে ক্যারিয়ারে প্রথম ক্যামেরার সামনে দাঁড়ান ভারতের দক্ষিণী ছবির নায়ক প্রভাস। সে ছবিতে খুব একটা সফলতার মুখ দেখেননি তিনি। পরে ২০০৩ সালে তিনি ‘রাঘবেন্দ্র’ ছবিতে মূল চরিত্রে অভিনয় করেন। সেখানেও তার ভাগ্য খুব একটা সহায় হয়নি। ২০০৪ সালে তাকে ‘ভরসাম’ ছবিতে দেখা যায়। পরে আরও কিছু ছবিতে অভিনয় করেন এ তারকা। এর মধ্যে, ২০০৫ সালে তিনি এসএস রাজামৌলি পরিচালিত ‘ছত্রপতি’ ছবিতে অভিনয় করে প্রথমবার সবার নজর কাড়েন। এই ছবিতে তাকে সন্ত্রাসী বাহিনী কর্তৃক শোষিত একজন শরণার্থীর চরিত্রে দেখা গেছে। পরে তিনি আরও বেশকিছু ছবি যেমন পৌরণামী, যোগী ও মুন্না ছবিতেও অভিনয় করেন। ২০০৭ সালে একটি অ্যাকশন-ড্রামা ছবি করেন এবং এর ঠিক পরপরই তার অ্যাকশন কমেডিধর্মী ‘বজ্জিগাডু’ ছবিটি আসে ২০০৮ সালে। ২০১০ সালের দিকে ‘ডার্লিং’ নামের রোমান্টিকধর্মী কমেডি ছবিতেও অভিনয় করেছেন প্রভাস। পরে আরও কিছু ছবিতে অভিনয় করলেও তার ভাগ্যের চাকা ততটা প্রসন্নিত হয়নি। ২০১৫ সালে ‘বাহুবলি : দ্য বিগিনিং’ দিয়েই সবার আলোচনার কেন্দ্রবিন্দু হলেন এ তেলেগু নায়ক। এ ছবির সফলতার পর শুরু হল অপেক্ষার পালা। দর্শক চাহিদা ‘বাহুবলি-২’। ঘোষণাও দিলেন পরিচালক। বাহুবলি-২ ছবির আকাশচুম্বী সাফল্যে রাতারাতি দেশের সুপারস্টার হয়ে উঠেছেন দক্ষিণী হিরো প্রভাস। পরিচালক এসএস রাজামৌলি পরিচালিত এ ছবি তার জীবন বদলে দিয়েছে কয়েকগুণ। আঞ্চলিক ছবির নায়ক থেকে এখন তিনি সারা দেশের বহু মানুষের প্রিয় নায়ক। একের পর এক রেকর্ড ভেঙে নিজ দাপুটেই যেন বিচরণ তার। আজ শীর্ষ পারিশ্রমিক নেয়া নায়কদের তালিকায় কাল আবার কোনো নায়িকার বিপরীতে অভিনয়ের মাধ্যমে খবরের শিরোনামে আসছেন তিনি। ভক্তদেরও তার সব ব্যাপারে আগ্রহের যেন কমতি নেই। অভিনয় জীবন থেকে শুরু করে ব্যক্তিগত জীবন নিয়েও ভক্ত মহলে কৌতূহল। সে ধারাবাহিকতায় শুরু হয় তার ব্যক্তিগত জীবন নিয়ে গুঞ্জন। কানাঘুষায় বারবারই বলা হচ্ছিল প্রভাসের সঙ্গে চুটিয়ে প্রেম করছেন বাহুবলির নায়িকা আনুশকা শেঠি। ‘বাহুবলি’র দ্বিতীয় পর্ব থেকেই এই প্রেম জমাট বেঁধেছে বলেও দাবি করেছেন অনেকে। শুধু তাই নয়, চলতি বছরের ডিসেম্বরেই তাদের চারহাত এক হচ্ছে। সে পর্যন্ত বিষয়টি শেষ হলেও হতে পারত। কিন্তু সেই পালে হাওয়া লাগাল সেন্সর বোর্ডের সদস্য, ফিল্ম ক্রিটিক এবং প্রভাস-আনুশকার কাছের বন্ধু উমের সান্ধুর একটি টুইট তথ্য। টুইটে উমের লিখেছেন, ‘বাহুবলি ফ্যানদের জন্য ব্রেকিং নিউজ। প্রভাস-আনুশকা আগামী ডিসেম্বরে বাগদান করছেন। তারা অফিসিয়ালি প্রেমের সম্পর্কে রয়েছেন।’ এই টুইটের পর স্বাভাবিকভাবেই বিভিন্ন মহলে জল্পনা শুরু হয়। প্রশ্ন ওঠে তবে কি দু’জনে গোপন করছেন তাদের সম্পর্কের কথা? জবাবে ফের উমের সান্ধু আরও একটি টুইট করেছেন। লিখেছেন, ‘যারা জানতে চাইছিলেন, হ্যাঁ এটা সত্যি। প্রভাস এবং আনুশকা এখন জুটি। সম্পর্কের কথা জানানোর জন্য তারা সঠিক সময়ের অপেক্ষায় রয়েছেন।’ প্রেম বা বিয়ে নিয়ে বরাবরই ‘নো কমেন্টস’ জোনে থাকতে পছন্দ করেন প্রভাস-আনুশকা। তবে বন্ধুর এমন টুইট বার্তায় কোনো বিরূপ প্রতিক্রিয়াও দেখা যায়নি তাদের মধ্যে। এখন সময় বলে দেবে পর্দার বাইরেও তারা জুটি বাঁধবেন কিনা!

Advertisement
Advertisement

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here