গোসল ও জানাজা ছাড়াই লাশ দাফন

3
650

কিশোরগঞ্জের ভৈরবে ইতালি থেকে আসা ৬০ বছর বয়সী এক প্রবাসীর মৃত্যু হয়েছে। ২২মার্চ, গতকাল রোববার রাত ১১টার দিকে স্থানীয় একটি প্রাইভেট হাসপাতালে আব্দুল খালেক নামে ওই প্রবাসীর মৃত্যু হয়। স্থানীয় বাসিন্দাদের সন্দেহ তিনি করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত থাকতে পারেন।

এ মৃত্যুকে কেন্দ্র করে ভৈরব উপজেলা প্রশাসন মৃত ব্যক্তির চারপাশের ১০টি বসত ঘর ও দুটি বেসরকারি হাসপাতাল লক ডাউন করেছেন। মৃত ব্যক্তির বাড়ির চারপাশে পুলিশ মোতায়েন রয়েছেন।

এছাড়াও ঘটনার রাতে দুটি হাসপাতালে থাকা কর্মরতদের হাসপাতালের ভেতরেই অবস্থান করতে বলা হয়েছে।

স্থানীয়রা জানান, দেড় যুগ আগে খালেক ইতালিতে যান। তাঁর দুই ছেলে বর্তমানে ইতালিতেই বসবাস করছেন। ইতালিতে করোনা ভাইরাসের পরিস্থিতি ভয়াবহ হওয়ায় তিনি নিজ বাড়ি ভৈরবে ফিরে আসেন গত ২৮ ফেব্রুয়ারি ২০২০। ইতালি থেকে তাঁর বাড়ি আসার তথ্যটি উপজেলা করোনা প্রতিরোধ কমিটির নজর এড়িয়ে যান। স্বাস্থ্য পরীক্ষা ছাড়াই তিনি এলাকায় স্বাভাবিক চলাফেরা করছিলেন।

প্রতিবেশীরা আতংকিত থাকলেও চক্ষু লজ্জায় কেউ কিছু বলেনি তাকে। ২১ মার্চ, শনিবার থেকে ওই প্রবাসীর জ্বর ও শ্বাসকষ্টে দেখা দিলে রাত ৯টার দিকে প্রথমে শহরের লক্ষ্মীপুরস্থ্য আবেদীন হাসপাতালে নিয়ে আসা হয়। পরে তাকে নিয়ে যাওয়া হয় ইউসুফ মেমোরিয়াল হাসপাতালে। ওই হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার পর কর্তব্যরত চিকিৎসকেরা তাঁকে মৃত ঘোষণা করেন।

এঘটনার খবর পেয়ে তাৎক্ষণিক রাতেই ভৈরব উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট লুবনা ফারজানা, ভৈরব থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো. শাহিন, উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা বুলবুল আহমেদসহ সংশ্লিষ্ট সরকারি কর্মকর্তারা ঘটনাস্থলে যান।

আজ সোমবার দুপুরে ভৈরব উপজেলা নির্বাহী অফিসার লুবনা ফারজানা ও উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভুমি) হিমাদ্রী খীসার উপস্থিততে পুলিশ প্রহরায় ইতালি প্রবাসী মরহুম আব্দুল খালেকের লাশ গোসল ও জানাজা ভৈরব পৌর কবরস্থানে দাফন করা হয়।

ভৈরব উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা বুলবুল আহমেদ জানান, মৃত প্রবাসী খালেক আমাদের তালিকার বাইরে ছিলেন। তিনি নিজেই হোম কোয়ারান্টাইনে ছিলেন। তাঁর পরিবারের সদস্যদের কাছ থেকে জেনেছি ওই ব্যক্তির জ্বর ও শ্বাসকষ্ট ছিল। নমুনা সংগ্রহের জন্য রোগতত্ত্ব, রোগনিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা প্রতিষ্ঠানকে (আইইডিসিআর) জানানো হয়েছে। তারা নমুনা সংগ্রহ করে পরীক্ষা নিরিক্ষার পর জানা যাবে প্রবাসী খালেক করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত কিনা। তবে নিয়ম মেনেই লাশ দাফন করা হয়েছে ।

Print Friendly, PDF & Email

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here

16 − 7 =