লিচুর বাম্পার ফলন পাহাড়ের

0
235

মামুন চৌধুরী: পাহাড়ি এলাকার বিভিন্নস্থানে গাছে থোকায় থোকায় লিচু দুলছে। সবুজ পাতার ফাঁকে পাকা লিচুতে মৌমাছি উড়ছে। পরিবেশ অনুকূলে থাকায় এ মৌসুমে হবিগঞ্জে লিচুর বাম্পার ফলন হয়েছে। এমন ফলনে চাষিরা খুশি। এক সময় হবিগঞ্জের লিচুর তেমন একটা চাষ হতো না। বর্তমানে বাণিজ্যিকভাবে লিচু চাষ শুরু হয়েছে। জেলার পাহাড়ি এলাকার পাশাপাশি গ্রাম ও শহরের অনেক বাসা বাড়িতেও লিচু গাছ রয়েছে। এখন গাছে গাছে লিচুর সমারোহ। বাণিজ্যিকভাবে চাষকৃত লিচুর বাগানে বাগানে এখন পাইকারদের আনাগোনা। বাগানের লিচু বাজারে সরবরাহ করবেন তারা। পাহাড়বেষ্টিত চুনারুঘাট উপজেলার রাণীগাঁও ইউনিয়নের পারকুল পাহাড়ের গ্রিনল্যান্ড পার্কে দেখা যায় এমনই চিত্র। এ পার্কে প্রায় দেড় হাজার গাছে লিচু দুলছে। গ্রিনল্যান্ড পার্ক এর পরিচালক কাজী মাহমুদুল হক সুজন জানান, গাছে গাছে লিচু পাকা শুরু হয়েছে। এভাবে প্রায় ৬ বছর ধরে গাছে গাছে লিচু আসছে। এবারো ফলন ভাল হয়েছে।

শিলা বৃষ্টি বা কালবৈশাখীর মতো প্রাকৃতিক দুর্যোগে রক্ষা পাওয়ায় হবিগঞ্জে এবার লিচুর ব্যাপক উৎপাদন হয়েছে। এখানে চায়না থ্রি জাতের লিচুরই চাষ হয়েছে বেশি।

বাহুবলের রশিদপুর পাহাড়ে কথা হয় লিচু চাষি নূরুল ইসলামের সাথে। তিনি বলেন, ‘এবার গাছে প্রচুর লিচু এসেছে। ভালো ফলন পেতে নিয়মিত গাছের পরিচর্যা করেছি। মুকুল আসার আগ থেকে ফল আসা পর্যন্ত সঠিক পরিচর্যা খুবই জরুরি। প্রাকৃতিক দুর্যোগ থেকে রক্ষা পাওয়ায় অন্য বছরের তুলনায় এবার রেকর্ড পরিমাণে লিচু উৎপাদন হয়েছে।’

ফল ব্যবসায়ী সাদেকুর রহমান বলেন, ‘মুকুল আসার সাথে সাথেই বাগান কিনেছি। এবার ব্যাপকহারে মুকুল আসায় গত বছরের তুলনায় বেশি লাভ হবে বলে আশা করছি। গাছ থেকে লিচু সংগ্রহ করে বিক্রি শুরু করেছি।’

হবিগঞ্জ কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের অতিরিক্ত উপ-পরিচালক (শস্য) কৃষিবিদ মোঃ জালাল উদ্দিন বলেন, ‘চলতি মৌসুমে প্রায় ৪০০ হেক্টর জমিতে লিচু চাষের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছিল। প্রাকৃতিক দুর্যোগ থেকে থেকে রক্ষা পাওয়ায় এবারে লিচুর উৎপাদনও ভাল হয়েছে।’

Print Friendly, PDF & Email

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here

20 + 13 =