কুড়িগ্রামের রাজিবপুরে বাবার সাথে অভিমান করে গলায় ফাস নিয়ে আত্মহত্যা নবম শ্রেণীর শিক্ষার্থী

0
503

কুড়িগ্রাম প্রতিনিধি : রাজিবপুর উপজেলার সদর ইউনিয়নের শিবের ডাঙ্গী গ্রামে আত্মহত্যার ঘটনাটি ঘটেছে বৃহস্পতিবার সকাল আনুমানিক দশটার দিকে। এলাকা সুত্রে জানা গেছে জাহাঙ্গীর আলম নবম শ্রেণিতে পড়াশোনা করেন শিবের ডাঙ্গা উচ্চ মাধ্যমিক বিদ্যালয়। তবে এলাকাবাসীগন জানিয়েছেন দীর্ঘদিন যাবৎ।জাহাঙ্গীর আলম এর বাবা ফরিজল হক তার কাছে মটর সাইকেল এর দাবি জানিয়ে আসছিলেন। কারণ একসাথে পড়ালেখা করে অনেকেই মটর সাইকেল নিয়ে ক্লাস করার জন্য স্কুলে যায়। জাহাঙ্গীর আলমের হিসাব আমার বাবার জমিজমা টাকা পয়সা কোন অভাব নেই সবাই যদি গাড়ি নিয়ে স্কুলে যায় আমি কে সাইকেল নিয়ে স্কুলে যায়। ওদের কাছে জাহাঙ্গীর আলম মনে মনে ছোট এমনটি ভেবেই বাবার কাছে একটি মটর সাইকেল চেয়ে না পাওয়ার বেদনা

নিয়েই অবশেষে আত্মহত্যার পথ বেচে নিয়েছে বলে জানা গেছে। আরও জানা গেছে আজ সকাল দশটার দিকে বড় ঢাকায় থাকে আজ সে ঢাকায় যাবে বড় ভাইকে রাজিবপুর বটতলা বাস টার্মিনালে এগিয়ে দিয়ে বাড়িতে ফিরে এসেই উত্তর দর্জা ঘরে প্রবেশ করেই ঘরের দর্জা বন্ধ করে ঘরের  ধর্নার সঙ্গে গলায় ফাস নিয়ে আত্মহত্যা করেছেন। পরে পরিবারের লোকজন বুঝতে পারে জাহাঙ্গীর ঘরের দর্জা খুলছেনা কেন তখন ঘরের দর্জা ভেঙ্গে দেখতে পায় গলায় ফাস নিয়ে আত্মহত্যা করেছে।

পরে এই খবরে রাজিবপুর থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে লাশের স্রোত হাল দেখে কারর কোন অভিযোগ না থাকায় লাশ ময়না তদন্ত না করেই দাফনের অনুমতি দেওয়া হয় পরে পারিবারিক কবরস্থানে লাশ দাফন করা হয়। এবিষয় রাজিবপুর থানা ইনর্চাজ মোজাহারুল ইসলাম, জানান বাবার কাছে মটর সাইকেল কিনে চেয়েছিল জাহাঙ্গীর মটর সাইকেল না পেয়ে বাবার সঙ্গে অভিমান করেই আত্মহত্যা করেছেন কারও কোন অভিযোগ না থাকায় লাশ দাফন

করেছেন তার পরিবার।

Print Friendly, PDF & Email

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here

4 × two =