কোচের এমন কর্মকাণ্ড নতুন করে বিতর্কের জন্ম দিয়েছে

0
82

শ্রীলঙ্কা সফররত বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দল ইতিমধ্যেই তিন ম্যাচ সিরিজের প্রথম দুই ম্যাচ হেরে সিরিজ খুঁইয়েছে। সামনে আছে হোয়াইটওয়াশ হওয়ার শংকা। দলের এমন অবস্থার মাঝে নতুন করে নেতিবাচক আলোচনায় চলে আসলেন জাতীয় দলের ভারপ্রাপ্ত কোচ খালেদ মাহমুদ সুজন।

কলম্বোর একটি ক্যাসিনোতে তাকে জুয়া খেলতে দেখা গেছে। এমন একটি ভিডিও সোশ্যাল সাইটে ছড়িয়ে পড়েছে।

কলম্বো শহরটি এমনিতেই ক্যাসিনোর জন্য বিখ্যাত। এখানে নামকরা সব ক্যাসিনো রয়েছে। গোপনে ধারণ করা ভিডিওতে দেখা গেছে, কলম্বোর জনপ্রিয় একটি জুয়ার আসর ‘বেলিস ক্যাসিনো’তে খালেদ মাহমুদ সুজন একজন নারী ওয়েটারের হাত থেকে ব্যাংকের এটিএম অথবা ক্রেডিট কার্ড গ্রহণ করছেন। এরপর তিনি এগিয়ে যান একটি জুয়ার টেবিলের দিকে। যাতে আরও বেশ কয়েকজন মানুষকে দেখা যায়।

১১ সেকেন্ডের ভিডিওটির স্থানের সঙ্গে ‘বেলিস ক্যাসিনো’র শতভাগ মিল খুঁজে পাওয়া গেছে। খালেদ মাহমুদ সুজনের বিরুদ্ধে জুয়ার আসরে যাওয়ার অভিযোগ নতুন নয়। এর আগে ২০১৫ বিশ্বকাপে তিনি ক্যাসিনো বিতর্কে জড়িয়েছিলেন। জাতীয় দলের ম্যানেজার হিসেবে ওই বিশ্বকাপে গিয়ে তিনি অস্ট্রেলিয়ার একটি ক্যাসিনোতে ক্যামেরাবন্দি হন। তবে পরে তিনি জুয়ার কথা অস্বীকার করে জানান, রাতের খাবার খুঁজতে তিনি ক্যাসিনোতে ঢুকে যান।

বিশ্বকাপে বাংলাদেশ দলের বাজে পারফর্মেন্সের পর কোচিং প্যানেলে বড় পরিবর্তন আসে। প্রধান কোচ স্টিভ রোডস, পেস বোলিং কোচ কোর্টনি ওয়ালশসহ বেশ কয়েকজনকে ছাঁটাই করা হয়। এরপর সুজনকে ভারপ্রাপ্ত কোচ করে দলকে শ্রীলঙ্কা পাঠানো হয়। যদিও এই দফায় তিনি মিডিয়ার কাছে দীর্ঘমেয়াদে জাতীয় দলের দায়িত্ব নিতে চেয়েছিলেন। শ্রীলঙ্কা সফরে দলের এই বিপর্যয়ের মাঝে কোচের এমন কর্মকাণ্ড নতুন করে বিতর্কের জন্ম দিয়েছে।

Print Friendly, PDF & Email

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here

19 + ten =