করোনাকালে রিটেন পরীক্ষা মওকুফ করে ভাইবার মাধ্যমে আইনজীবী সনদের দাবিতে রংপুরে মানববন্ধন-সমাবেশ

0
224

করোনাকালে মানবিক বিবেচনায় সময়ক্ষেপণের রিটেন পরীক্ষা মওকুফ করে ভাইবার মাধ্যমে আইনজীবী হিসেবে তালিকাভুক্ত করে সনদ প্রদানের দাবিতে আজ ১২ নভেম্বর বৃহস্পতিবার দুপুরে জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের সামনে বার কাউন্সিলের এমসিকিউ পরীক্ষায় উত্তীর্ণ রংপুর বারের শিক্ষানবীশ আইনজীবীদের উদ্যোগে মানববন্ধন-সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। এমসিকিউ উত্তীর্ণ শিক্ষানবীশ আইনজীবী পলাশ কান্তি নাগ এর সভাপতিত্বে সমাবেশে বক্তৃতা করেন শিক্ষানবীশ আইনজীবী রাতুলুজ্জামান রাতুল,হাফিজার রহমান,শাহিনুর রহমান,সাগর তালুকদার,আব্দুল গফুর,রাশেদুল হক রাশেদ,ফেরদৌস ইসলাম,আরিফ হোসেন,শামসুন নাহার কুসুম, তাসমিন লাকি,পারুল আক্তার প্রমূখ।
সংহতি জানিয়ে বক্তৃতা করেন শিক্ষানবীশ আইনজীবী নন্দিনী দাস,স্বপন রায়।


বক্তারা বলেন, প্রতিবছর আইনজীবী তালিকাভুক্তির অন্ততপক্ষে একটি প্রক্রিয়া সম্পন্ন করার বিষয়ে ২০১৭ সালে বাংলাদেশ সুপ্রীম কোর্টের আপীল বিভাগের নির্দেশনা থাকার পরও নিয়মিত পরীক্ষা হয়নি। প্রায় ৩ বছর পর চলতি বছরের ফেব্রুয়ারি মাসে এমসিকিউ পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হওয়ার পর আবারো ৮ মাস যাবৎ আইনজীবী তালিকাভুক্তির প্রক্রিয়াটি ঝুলে আছে। ফলে এমসিকিউ উত্তীর্ণ ১২৭৭৮ জন শিক্ষানবীশ আইনজীবী চরম অনিশ্চয়তায় মানবেতর দিনযাপন করছে। করোনা মহামারীকালে সময়ক্ষেপণের রিটেন পরীক্ষা মওকুফের দাবিতে আজ ১৩১ দিন যাবৎ শিক্ষানবীশ আইনজীরা আন্দোলন করছে। নিয়মিত পরীক্ষা হলে কখনোই রিটেন পরীক্ষা মওকুফের দাবি উত্থাপিত হতো না।
বক্তারা বলেন,করোনাকালে এইচএসসি পরীক্ষার্থীদের অটোপ্রমোশনসহ বিভিন্ন ক্ষেত্রে ক্ষতিগ্রস্থদের সহায়তা ও প্রণোদনা প্রদান করা হলে শিক্ষানবীশ আইনজীবীদের


একটি যৌক্তিক ও মানবিক দাবি কেন বাস্তবায়িত হবে না। আমরা তো তুমুল প্রতিযোগিতামুলুক একটি এমসিকিউ পরীক্ষায় পাশ করেছি। যেহেতু করোনা মহামারীসহ বিভিন্ন কারণে দীর্ঘ ৮ মাসেও রিটেন পরীক্ষা হয়নি,তাই সময়ক্ষেপণের এই রিটেন পরীক্ষাটি মওকুফ করে একটি ভাইবা পরীক্ষার মাধ্যমে তালিকাভুক্তির দাবি করছি। আমরা বার কাউন্সিল কর্তৃপক্ষের কাছে বেতন চাই না,ভাতা চাই না শুধু কর্মে প্রবেশের অনুমতি চাই।


এই মানবিক চাওয়াটির বাস্তবায়নে আমাদের আর কতকাল অপেক্ষা করতে হবে? বক্তারা,অবিলম্বে সময়ক্ষেপণের রিটেন পরীক্ষা মওকুফ করে ভাইবার মাধ্যমে আইনজীবী হিসেবে তালিকাভুক্ত করে সনদ প্রদানের দাবি জানান।

Print Friendly, PDF & Email

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here

19 + thirteen =