ড্রেজার ব্যবসার কাছে ১০ লাখ টাকা চাঁদা আদায়ের দাবি

0
182

ডেমরায় বালু ব্যবসায়ীর ম্যানেজার মোহাম্মদ হারুন এর কাছে ১০ লাখ টাকা চাঁদা দাবি।।। রাজধানীর সবুজবাগ এলাকার একটি ড্রেজার ব্যবসার নামে চালিয়ে যাচ্ছে অনৈতিক কর্মকান্ড। খোজ নিয়ে জানা গেছে যে, সবুজবাগ থানার বেগুনবাড়ি এলাকার ৭৩ নাম্বার ওয়ার্ডের বর্তমান সরকারের নাম ভাংগীয়ে বিভিন্ন অনৈতিক কর্মকান্ডে লিপ্ত আছে বলে থানা সহ বেগুনবাড়ি এলাকার জনসাধারণের বক্তব্য। জানা যায় যে উক্ত কতিপয় ব্যাক্তিগন প্রকাশ্যে ভদ্রতার মুখোশ পরে থাকলেও রাতের অন্ধকারে বিভিন্ন অনৈতিক কাজের সাথে লিপ্ত আছে বলে ৭৩ নাম্বার ওয়ার্ডবাসী জানায়। তাছাড়া উক্ত ব্যাক্তিদের নামে সবুজবাগ থানায় একাধিক জিডি ও মামলা রয়েছে বলে ৭৩ নাম্বার এলাকাবাসীরা জানায়। গত ৫ জানুয়ারি ডেমরার দুর্গাপুর এলাকায় ১০ লাখ টাকার চাঁদাবাজীর ঘটনা ঘটে।ভুক্তভোগী ব্যবসায়ী রোববার রাত এগারোটার দিকে অভিযুক্ত ৬ জন সহ অজ্ঞাত ৩ থেকে ৪ জনের বিরুদ্ধে ডেমরা থানায় মামলা করেন। অভিযুক্তরা হলেন সবুজবাগ থানার বেগুনবাড়ি এলাকার মোঃ শামসুদ্দিন এর ছেলে মোহাম্মদ নিজাম ৭৩ নাম্বার ওয়ার্ডের (যুবলীগের সভাপতি) ও তার ছোট ভাই মুসলিম সরদার (যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক) একই থানার মানিকদিয়া চেয়ারম্যান বাড়ি এলাকার মোঃ নাসির উদ্দিন ( যুবলীগের সভাপতি) । ছদর উদ্দিনের ছেলে ইমাম উদ্দিন, ওরফে ইমাম।

তথাকথিত জাল দলিল প্রস্ততকারী একজন ভেন্ডার। ইমাম আলী বর্তমানে জাল দলিলের মাধ্যমে বিভিন্ন জায়গায় জায়গা জমি ক্রয় বিক্রয় করে আজ শত কোটি টাকার মালিক হয়েছেন এটি মানিকদিয়া এবং বাগদিয়া এলাকাবাসীর বক্তব্য । বাইকদিয়া এলাকার আনিছ মিয়ার ছেলে আজিম মিয়া, একই এলাকার আলমাছ আলীর ছেলে নজরুল ইসলাম। থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা খন্দকার নাসির উদ্দিন বলেন, ওই ব্যবসায়ী দীর্ঘদিন নদীতে ড্রেজার বসিয়ে এ এলাকার নিম্নাঞ্চলে বালু ভরাটের কাজ করে আসছেন। ওই কাজেই ড্রেজারের পাইপ দুর্গাপুর হয়ে সবুজবাগ এলাকায় টানা হয়।

 আর এ পাইপ টানাকে কেন্দ্র করে সবুজবাগ থাকা এলাকার ওই সন্ত্রাসীরা চাঁদা দাবি করে। এত কিছু হওয়ার পর ও ডেমরা থানার পুলিশ এখনো কোন পদক্ষেপ নেয়নি, দিব্বি সন্ত্রাসীরা ঘুরে বেড়াচ্ছে এলাকায়। কি ডেমরা ও সবুজবাগ থানার পুলিশরাও এখন সেই চাঁদাবাজীদের সাথে যুক্ত?.. সবুজবাগ ও ডেমরা থানার পুলিশ এখনো কোনো পদক্ষেপ নেয়নি কেন তা জানতে চায় ৭৩ নাম্বার ওয়ার্ড এর এলাকাবাসীরা।

 

Print Friendly, PDF & Email

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here

eight + 12 =